বৃহস্পতিবার, মে ১৩
শীর্ষ সংবাদ

ফিচার

রক্তদানের যত উপকারিতা
ফিচার

রক্তদানের যত উপকারিতা

অধিকার ডেস্ক:: রক্তদান হল কোন প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ মানুষের স্বেচ্ছায় রক্ত দেবার প্রক্রিয়া। নানা অসুখ-বিসুখ কিংবা দুর্ঘটনাজনিত কারণে অনেকেরই রক্তের প্রয়োজন হয়। অনেক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আছে যারা পরীক্ষার মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে বিশুদ্ধ রক্ত সংগ্রহ করে যাদের প্রয়োজন তাদের দান করে। রেড ক্রস সোসাইটির তথ্য অনুযায়ী, মানবদেহে লোহিত রক্তকণিকা সাধারণত ৩ থেকে ৪ মাস থাকে। এ কারণে ৩ মাস আগের সঙ্গে বর্তমানের লোহিতকণিকা এক হবে না। রক্তদান করলেই শরীরে রক্তের ঘাটতি দেখা দেবে এমন ভাবা ঠিক নয়। বরং রক্তদান করলে বেশ কিছু স্বাস্থ্যগত উপকারিতা পাওয়া যায়। যেমন-: রক্তদানের প্রথম এবং প্রধান কারণ, একজনের দানকৃত রক্ত আরেকজন মানুষের জীবন বাঁচাবে। রক্তদান স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী। রক্তদান করার সঙ্গে সঙ্গে শরীরের মধ্যে অবস্থিত ‘বোন ম্যারো’ নতুন কণিকা তৈরির জন্য উদ্দীপ্ত হয় এবং রক্তদানের ২ সপ্তাহের মধ...
ছাত্র ইউনিয়ন-যুব ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে চলছে ‘শ্রমজীবী ক্যান্টিন’
ফিচার, সংগঠন সংবাদ

ছাত্র ইউনিয়ন-যুব ইউনিয়নের যৌথ উদ্যোগে চলছে ‘শ্রমজীবী ক্যান্টিন’

অধিকার ডেস্ক:: সারাদেশে করোনা সংক্রামণ দিন দিন মারাত্মক হারে বাড়ছে। যার ফলে লকডাউন দেয়া হয়েছে। মাত্র দুই দিনের নির্দেশনায় এই লকডাউনের কারণে ভোগান্তিতে পড়েছে সাধারণ মানুষ। সবচেয়ে করুণ অবস্থায় আছে নিম্ন আয়ের শ্রমজীবী মানুষ, দিনমজুর। এই করোনাকালীন সময়ে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছে বাংলাদেশের সাধারণের অধিকার আদায়ের লড়াই-সংগ্রামের সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন ও বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন। রাজধানীর পুরাণা পল্টনের মুক্তি ভবনে তারা খুলেছে ‘শ্রমজীবী ক্যান্টিন’।গত মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) থেকে শুরু হওয়া এই ক্যান্টিন চলবে পুরো করোনাকালীন সময় জুড়ে। রিক্সা শ্রমিক, ভ্যান শ্রমিকদের মতো নিম্ন আয়ের মানুষ যাচ্ছে সেখানে খাবারের জন্য। সেখানের সকল ধরণের কাজ করছেন ছাত্র ইউনিয়ন, যুব ইউনিয়ন কর্মীরাই। বাজার করা থেকে শুরু করে রান্না করে শ্রমিকের হাতে খাবার তুলে দেওয়া পর্যন্ত সমস্ত কাজই করছেন কাঁধেকাঁধ মিলিয়ে। এই সংকটতম সময়ে নিম্নআয়ে...
মস্তিষ্কের রোগে ভুগছেন এক-তৃতীয়াংশ করোনা জয়ী: ল্যানসেট
জাতীয়, ফিচার

মস্তিষ্কের রোগে ভুগছেন এক-তৃতীয়াংশ করোনা জয়ী: ল্যানসেট

অধিকার ডেস্ক:: করোনা থেকে বেঁচে যাওয়া প্রায় এক-তৃতীয়াংশ মানুষ মানসিক সমস্যা অথবা অন্য কোনো নিউরোলজিক্যাল সমস্যায় ভুগছেন বলে জানিয়েছেন গবেষকেরা। ল্যানসেট সাইকিয়াট্রিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে মঙ্গলবার বলা হয়েছে, ৩৪ শতাংশ করোনাজয়ী মানুষ সংক্রমণের ছয় মাসের মধ্যে মানসিক অথবা নিউরোলজিক্যাল উপসর্গে ভুগেছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি দেখা গেছে উত্তেজনা বিষয়ক সমস্যা, ১৭ শতাংশ। ১৪ শতাংশ মেজাজ নিয়ন্ত্রণহীনের কথা জানিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগীদের নিউরোলজিক্যাল সমস্যা প্রকট। যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানীরা যুক্তরাষ্ট্রের ৫ লাখের বেশি রোগীর মেডিকেল তথ্য বিশ্লেষণ করেছেন। এই রোগীদের ক্ষেত্রে তারা কয়েকটি সমস্যা দেখতে পেয়েছেন: মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণ, স্ট্রোক, পার্কিনসন, স্মৃতিভ্রংশ, গুলেন-বারি সিন্ড্রোম, সাইকোসিস, মুড ডিজঅর্ডার এবং উত্তেজনা। সমস্যাগুলো মূলত পর্যবেক্ষণমূলক সিদ্ধান্ত।...
প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করছেন শিপ্ত
ক্যাম্পাস, ফিচার

প্রতিবন্ধীদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে স্বাবলম্বী করছেন শিপ্ত

মেহেরাবুল ইসলাম সৌদিপ:: প্রতিবন্ধী কথাটা শুনলেই চোখের সামনে কোন এক অসহায় মানুষের ছবি ভেসে ওঠে। ধরেই নেওয়া হয় তাদের দ্বারা কিছুই হবে না, ঘরের কোণে পড়ে থাকা বা রাস্তায় ভিক্ষা করার জন্যই তাদের জন্ম। কিন্তু না তারা আজ আর বসে নেই। লেখাপড়া এবং চাকরিতে একজন স্বাভাবিক মানুষের মতো তাদেরও সকল সুযোগ-সুবিধা ভোগ করার অধিকার রয়েছে। কিন্তু স্কুল কলেজ এবং চাকরি ক্ষেত্রে তাদের সুযোগ সুবিধা না থাকায় পিছিয়ে পড়েছে তারা। এই সকল ধারণাকে ভেস্তে দিয়ে, আত্মনির্ভরশীল হওয়ার প্রত্যয়, ছুটে চলেছে চাকরিতে তৈরি করছে সুনিপুণ বিশ্বমানের সকল হস্তশিল্প। পাট, হোগলা, পাতা, ছন, কাশিয়া এইসব ব্যবহার করে তৈরি করছে বিভিন্ন ধরনের বাস্কেট, ব্যাগ, কার্পেট ও বিভিন্ন ধরনের শিল্পকর্ম। পরিবারের আরেকজন উপার্জনক্ষম সদস্যর মত সংসারের চাকা ঘোরাতে নিজেকে আত্মনিয়োগ করছে। আর তাদের এই স্বপ্ন বাস্তবায়নের কাজ করছে নরসিং...
ইউরিনে সংক্রমণ কমাতে যা করণীয়
ফিচার

ইউরিনে সংক্রমণ কমাতে যা করণীয়

অধিকার ডেস্ক:: নানা কারণে ইউরিনে সংক্রমণ হতে পারে। বিশেষ করে নারীরা এ সমস্যায় বেশি ভোগেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, সঠিক সময়ে এ সমস্যার চিকিৎসা না করালে কিডনি ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ইউরিনে সংক্রমণ হলে নানা উপসর্গের মাধ্যমে তা প্রকাশ পায়। যেমন- ১. বার বার প্রস্রাবের জন্য চাপ অনুভূত হওয়া। ২. প্রস্রাবের সময় মূত্রনালীতে জ্বালাপোড়া ভাবের সৃষ্টি। ৩. ঘন এবং অল্প পরিমাণে প্রস্রাব হওয়া কিংবা প্রস্রাবের রঙ গাঢ় হলুদ হয়ে যাওয়া। ৪. প্রস্রাবের রঙ লাল হয়ে যেতে পারে বা প্রস্রাবের মাধ্যমে রক্ত বার হওয়ার লক্ষণও দেখা দিতে পারে ৫. প্রস্রাবের আগে বা পরে মূত্রনালীতে প্রদাহের সৃষ্টি বা জ্বালাপোড়া তৈরি হতে পারে। এ ধরনের সমস্যা হলে ঘরোয়া পদ্ধতিতে নিরাময়ের চেষ্টা করতে পারেন। যেমন- ১. প্রচুর পরিমাণে বিশুদ্ধ পানি পান করুন এবং ঠান্ডা জাতীয় পানীয় খান। এতে প্রস্রাবের রঙ যেমন ঠিক থাকবে তেমনি প্রস্রাব পাতলা...
‘ভালোবাসা’
ফিচার

‘ভালোবাসা’

সেলিনা আক্তার ::  প্লেটো: ‘ভালো জিনিস ও সুখের প্রতি কোনো সাধারণ আকাঙ্ক্ষা, সেটাই প্রেম।’ টলস্টয়: ‘ভালোবাসা সর্বদা ব্যক্তিগত সম্পত্তি ত্যাগের ওপর ভিত্তি করে।’ স্পিনোজা: ‘প্রেম একটি বাহ্যিক কারণের সঙ্গে আনন্দ ছাড়া কিছুই নয়।’ অধ্যাত্মবাদ: ‘ভালোবাসা একতরফা এবং সেটা তোমার নিজের মধ্যে, অন্য কোথাও না।’ এভাবে ভালোবাসা নিয়ে আছে অসংখ্য মতবাদ। ভালোবাসা মানে পরিপূর্ণতা, ভালোবাসা মানে অসম্পূর্ণতা। ভালোবাসা পেলে পূর্ণতা মেলে। ভালোবাসার অভাব থাকলে বোঝা যায়, ভালোবাসা কী? এ ভালোবাসার অভাবে মানুষ জীবন পর্যন্ত দিয়ে দেয়। তবে কি ভয়ংকর ভালোবাসা? বেশির ভাগ মানুষেরই কথা ভালোবাসার মানুষকে না পেলে তা ঘৃণায় পরিণত হয়। কথিত আছে ‘ভালোবাসার উল্টো পিঠে ঘৃণা’। আসলেই কি তাই? এখন কথা হলো, না পেলে কি ভালোবাসা থাকবে না? যার জন্য জীবন দিয়ে দিতে পারি, তাকে ঘৃণা করতে হবে? নাকি ভালোবাসা মানে কেবলই লেনাদেনা? খাঁট...
ভালোবাসি কথাটা এই দিনে বলা যায় বারবারই
ফিচার

ভালোবাসি কথাটা এই দিনে বলা যায় বারবারই

তাসলিমা তামান্না 'দোহাই তোদের একটুকু চুপ কর/ভালোবাসিবারে দে আমারে অবসর'... আজ তো কবিগুরুর সেই দিন। শুধুই ভালোবাসার। সারা বিশ্বের তাবৎ প্রেমিক-প্রেমিকাই—এ দিনটির জন্য উন্মুখ হয়ে থাকে। ভালোবাসি কথাটা এই দিনে বলা যায় বারবারই! আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি। বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। বিশ্বজুড়ে দিনটি 'ভ্যালেন্টাইন'স ডে' হিসেবে পরিচিত। একসময় দিনটি শুধুমাত্র প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকলেও এখন এর ছোঁয়া ছড়িয়ে গেছে সবার মধ্যে। সব বয়সীদের জন্য ভালোবাসা প্রকাশের আজ এক বিশেষ দিন। আজকের দিনে প্রেমিক তার প্রেমিকার হাত ধরে হাঁটবেন অনেক দূর, চোখে চোখ রেখে জানাবেন হৃদয়ের কথা। আবার কেউ হয়তো ফুল হাতে সাহসী কিংবা কাঁপা কাঁপা কণ্ঠে প্রিয়তমাকে জানাবেন নিজের অনুভূতির কথা। কেউ আবার মোবাইল ফোন কিংবা অনলাইন মেসেজে প্রিয়জনকে পাঠাবেন ভালোবাসার পংক্তিমালা। ফুল, বই, চকোলেট, কিংবা কার্ড দিয়ে প্রিয়জনকে চমকে দেওয়ার পরিকল্পনাও...
ইশারা ভাষা কাদের জন্য জরুরি?
ফিচার

ইশারা ভাষা কাদের জন্য জরুরি?

অধিকার ডেস্ক:: বর্ণমালা আবিষ্কারের আগে ইশারায় নিজের মনের ভাব প্রকাশ করতে হতো। আদিম জনগোষ্ঠী ইশারায় তাদের শিকারের গল্প জনতার সামনে তুলে ধরতো। বর্ণমালা আবিষ্কারের ফলে এ আঙ্গিক প্রকাশ বিলুপ্ত হতে থাকে। তবুও বিশেষ শ্রেণির জন্য ইশারাই হয়ে ওঠে ভাব প্রকাশের মাধ্যম। তারই ধারাবাহিকতায় প্রতিষ্ঠিত হতে থাকে ইশারা ভাষা। যার ইংরেজি হচ্ছে ‘সাইন ল্যাঙ্গুয়েজ’। একে সাংকেতিক ভাষা বা প্রতীকী ভাষাও বলা হয়ে থাকে। এ ভাষা শ্রবণ ও বাকপ্রতিবন্ধী মানুষের জন্য জরুরি। তারা ইশারার মাধ্যমেই ভাবের আদান-প্রদান করে থাকেন। ইশারা ভাষা বলতে শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ বিশেষ করে হাত ও বাহু নাড়ানোর মাধ্যমে যোগাযোগ করার পদ্ধতিকে বোঝানো হয়। মুখের ভাষায় যোগাযোগ করা অসম্ভব বা অযাচিত হলে এ ভাষা ব্যবহার করা হয়। সম্ভবত মুখের ভাষার আগেই ইশারা ভাষার উদ্ভব ঘটেছে। মুখের বিকৃত ভঙ্গিমা, কাঁধের ওঠা-নামা কিংবা আঙুল তাক করাকে একধরনের মোট...
করোনার নতুন বৈশিষ্ট্যের বিরুদ্ধেও কার্যকর মডার্নার টিকা
আন্তর্জাতিক, তথ্য ও প্রযুক্তি, ফিচার

করোনার নতুন বৈশিষ্ট্যের বিরুদ্ধেও কার্যকর মডার্নার টিকা

অধিকার ডেস্ক :: যুক্তরাজ্য ও দক্ষিণ আফ্রিকায় যে নতুন বৈশিষ্ট্যের করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে, তার বিরুদ্ধে মডার্নার কোভিড-১৯ টিকাটি কার্যকর। এমনটাই দাবি করেছেন মডার্নার বিজ্ঞানীরা। ল্যাবের প্রাথমিক পরীক্ষায় দেখা গেছে, এই টিকা দেওয়ার পর শরীরের ভেতরে যে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার তৈরি হয়, সেটি নতুন ধরনটি শনাক্ত ও ঠেকাতে সক্ষম হয়েছে। তবে টিকা নেওয়া মানুষদের ক্ষেত্রে এটি কতটা সত্যি, তা পুরোপুরি নিশ্চিত হতে আরও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে। বেশ কয়েকটি দেশে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাসের নতুন ধরনটি। বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, গত সেপ্টেম্বর মাসে যুক্তরাজ্যে শনাক্ত হওয়া ভাইরাসের ধরনটি অন্তত ৭০ শতাংশ বেশি হারে বিস্তার ঘটাতে পারে। বর্তমানে বিশ্বে যে টিকাগুলো রয়েছে সেগুলো করোনাভাইরাসের প্রথম দিকের ধরন ঠেকানোর চিন্তা করে তৈরি করা হয়েছে। তবে বিজ্ঞানীদের বিশ্বাস, এটি নতুন ধরন ঠেকাতেও কাজ করবে, যদিও তা ন...
করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কী কী?
ফিচার

করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া কী কী?

অধিকার ডেস্ক:: করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবিলায় বিশ্বের বিভিন্ন দেশে শুরু হয়ে গেছে ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচি। আর কিছুদিনের মধ্যে হয়তো বিশ্বের প্রতিটি কোণায় পৌঁছে যাবে সেটি। তবে এই ভ্যাকসিন নিলে কী কী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে অথবা আদৌ গুরুতর কোনো সমস্যার ঝুঁকি রয়েছে কি না, তা নিয়ে এখনো প্রশ্ন রয়েছে অনেকের মনে। জেনে নেয়া যাক করোনা ভ্যাকসিনের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া সম্পর্কে- সাধারণ প্রতিক্রিয়া যেকোনো ভ্যাকসিনেই কিছু সাধারণ পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে। যেমন- শরীরে ইনজেকশন দেয়া জায়গা ফুলে যায় বা লাল হয়ে ওঠে। তিনদিনের মধ্যে অবসাদ, জ্বর, মাথাব্যাথা অথবা শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে ব্যাথা হতে পারে। তবে এর কোনোটিই দীর্ঘস্থায়ী নয়৷ শরীরে ভ্যাকসিনের কার্যকারিতা শুরু হলে অ্যান্টিবডি বা রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি হতে থাকায় এধরনের প্রতিক্রিয়া স্বাভাবিক। অনুমোদন পাওয়া করোনা ভ্যাকসিনগুলোর ক্ষেত্রেও এমন পার্...