শনিবার, জানুয়ারি ১৬

ইতিহাস

বাংলাদেশের ৩ দাবির কোনোটিই মানেনি পাকিস্তান
ইতিহাস, জাতীয়

বাংলাদেশের ৩ দাবির কোনোটিই মানেনি পাকিস্তান

অধিকার ডেস্ক:: স্বাধীনতার পর পরই বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে কয়েকটি বিষয় বড় আকারে আলোচনায় আসে। এর মধ্যে রয়েছে ১৯৭১ সালে হানাদার বাহিনীর নৃশংসতর জন্য পাকিস্তানের নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা, সম্পদের সম বণ্টন এবং আটকে পড়া পাকিস্তানিদের প্রত্যাবাসন। পাকিস্তানের অনাগ্রহের কারণে এখনও অমীমাংসিত রয়ে গেছে বিষয়গুলো। বাংলাদেশ বিভিন্ন বৈঠকে বিষয়গুলো আলোচনা করলেও পাকিস্তানের পক্ষ থেকে কখনও কোনও আগ্রহ দেখা যায়নি। নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে সহিংসতা ও ধ্বংসযজ্ঞ চালানোর ৫০ বছর পরও ক্ষমা প্রার্থনার নজির আছে। কিন্তু পাকিস্তান এ নিয়ে উদাসীন। পাকিস্তান ক্ষমা প্রার্থনা করবে এমন একটি বিষয় ১৯৭৪ সালের ত্রিপক্ষীয় চুক্তিতে পরিষ্কার উল্লেখ থাকলেও সেটা মানেনি দেশটির কোনও সরকারই। ১৯৭৪ সালের ত্রিপক্ষীয় চুক্তি এবং পাকিস্তান সরকারের গঠিত হামুদুর রহমান কমিশনের রিপোর্ট পর্যালোচনা করলেও ক্ষমার বিষয়টি...
হাজার বছরের পুরনো বিশ্ববিদ্যালয়ের খোঁজ চলছে মৌলভীবাজারে
ইতিহাস, ক্যাম্পাস, সারা দেশ

হাজার বছরের পুরনো বিশ্ববিদ্যালয়ের খোঁজ চলছে মৌলভীবাজারে

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজার জেলার জুড়ী উপজেলায় এক বৌদ্ধ রাজার বসবাস ছিল। সেই চন্দ্র বংশীয় বৌদ্ধ রাজা শ্রীচন্দ্র খ্রিস্টীয় দশম শতকের প্রথম দিকে আনুমানিক ৯৩৫ খ্রিস্টাব্দে বর্তমান জুড়ী উপজেলার সাগরনাল গ্রামে ‘চন্দ্রপুর বিশ্ববিদ্যালয়’ নামে একটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। অক্সফোর্ড ও ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ের চেয়েও প্রাচীন এ বিশ্ববিদ্যালয়। নানা বিষয় পড়ানো হতো সেখানে। কালের বির্বতনে এটি হারিয়ে গেলেও সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে জনমনে সৃষ্টি হয়ছে নতুন আগ্রহ আর আলোচনার। বিষয়টি জানতে পেরে নড়েচড়ে বসেছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় ও প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর। এ বিষয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করে প্রতিবেদন দিতে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর সিলেটের দায়িত্বপ্রাপ্ত আঞ্চলিক পরিচালককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. হান্নান মিয়া (অতিরিক্ত সচিব) জানান, মন্ত্রী বিষয়টি আমাকে জানানোর পর আমি খুব গ...
বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে গোপন প্রতিবেদন লেখা শুরু হয় যে কারণে
ইতিহাস, জাতীয়, রাজনীতি, লিড নিউজ

বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে গোপন প্রতিবেদন লেখা শুরু হয় যে কারণে

অধিকার ডেস্ক:: বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে পাকিস্তানি গোয়েন্দারা গোপন প্রতিবেদন লেখা শুরু করে ভাষা আন্দোলনের সময় থেকে। বিষয়টির কারণ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ১৯৪৭ সালে করাচিতে শিক্ষা সম্মেলন হয়, সেখানেই সিদ্ধান্ত হয় যে, পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা হবে উর্দু। তখন থেকেই কিন্তু আন্দোলনের সূত্রপাত। তখনই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কিছু ছাত্র তৎকালীন মুখ্যমন্ত্রী খাজা নাজিমউদ্দিনের বাসায় মিছিল নিয়ে যায় ও প্রতিবাদ জানিয়ে আসে। এরপর ১৯৪৮ সালের ৪ জানুয়ারি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ছাত্রলীগ নামে একটি ছাত্র সংগঠন করেন। এ সংগঠনের নেতাকর্মীরা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে আন্দোলন করে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ছাত্র সংগঠনকে সঙ্গে নিয়ে তিনি গড়ে তোলেন ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ। রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনে এই সংগ্রাম পরিষদ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। এরপর থেকেই গোয়েন্দারা তার নামে গোপন প্রতিবেদন...
সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের শ্রীরামসী গণহত্যা দিবস আজ
ইতিহাস, সারা দেশ

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের শ্রীরামসী গণহত্যা দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক :: শ্রীরামসী গণহত্যা দিবস আজ । ১৯৭১ সালের এই দিনে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলার মীরপুর ইউনিয়নের শ্রীরামসী গ্রামে ১২৬ জন বাঙালিকে হত্যা করে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী। স্থানীয়দের সহযোগিতায় এলাকায় শান্তি স্থাপনের কথা বলে এলাকার লোকজনকে নৌকৈা যোগে শ্রীরামসি হাইস্কুল মাঠে একত্রিত করা হয়। এরপর পাকিস্তানি সেনারা একজন একজন করে বিদ্যালয়ের শ্রেণী কক্ষে ঢুকিয়ে ফেলে। পরে ১০/১২ জনকে একত্রিত করে হাত-পা বেঁধে বিদ্যালয়ের নিকটস্থ রসুলপুরের হিরণ মিয়ার বাড়ির পুকুর পাড়ে নিয়ে যায়। সেখানে সবাইকে লাইন ধরিয়ে নির্বিচারে গুলি করে হত্যা করা হয়। পরে সকলের মরদেহ পুকুরের পানিতে ফেল দেয়া হয়। নিহতদের মধ্যে ছাত্র, শিক্ষক, সরকারী কর্মচারী, যুবক, সাধারণ গ্রামবাসী ও বেড়াতে আসা স্বজনরাও ছিলেন। পাকিস্তানি সেনারা এ হত্যাকাণ্ডের পরপরই শ্রীরামসি গ্রামে ঢুকে গ্রামের প্রায় ২৫০টি ঘরবাড়ী আগুনে পুড...
নানকার বিদ্রোহের ৭০ বছর: শোষণের উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত মুক্তির লড়াই চলবে- সিপিবি
আন্দোলন, ইতিহাস, জাতীয়, রাজনীতি

নানকার বিদ্রোহের ৭০ বছর: শোষণের উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত মুক্তির লড়াই চলবে- সিপিবি

অধিকার ডেস্ক ::  ঐতিহাসিক নানকার বিদ্রোহের ৭০তম বার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোহাম্মদ শাহ আলম নানকার আন্দোলনের শহীদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বলেছেন, নানকার, টঙ্ক, তেভাগাসহ সামন্ত সমাজের শোষণমূলক অন্যায় সব প্রথার বিরুদ্ধে কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বে কৃষকরা গর্জে উঠেছিলেন। এসব প্রথার উচ্ছেদ হয়েছে, কিন্তু শোষণের জাল এখনও রয়ে গেছে। শোষণের উচ্ছেদ না হওয়া পর্যন্ত মুক্তির লড়াই চলবে। কমিউনিস্ট পার্টি সর্বশক্তি দিয়ে শোষণমুক্তির লড়াইকে অগ্রসর করবে। আজ ১৭ আগস্ট এক বিবৃতিতে সিপিবির নেতৃবৃন্দ বলেন, নানকার বিদ্রোহ এই অঞ্চলে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদ এবং তাদের জমিদার প্রথার বিরুদ্ধে ধারবাহিক সংগ্রামের এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। এ অঞ্চলের মুক্তিসংগ্রাম এবং জমিদার প্রথা ও সামন্ত শোষণ বিরোধী আন্দোলন এক সূত্রে গাঁ...
বিশ্বনেতাদের চোখে বঙ্গবন্ধু
আন্তর্জাতিক, ইতিহাস

বিশ্বনেতাদের চোখে বঙ্গবন্ধু

বিশ্বনেতাদের কেউবা বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বের প্রশংসা করেছেন, কেউবা মুগ্ধ তাঁর ব্যক্তিত্বের কথা জেনে। বঙ্গবন্ধুর বাড়ি দেখে, তাঁর সাদাসিধে জীবনযাপনের কথা জেনে কেউ কেউ রীতিমতো বিস্মিত। অনেকেই আবার বলেছেন, তিনি শুধু বাংলাদেশের নেতাই ছিলেন না, ছিলেন দক্ষিণ এশিয়ার গুরুত্বপূর্ণ নেতা। তাঁকে বিশ্বের অন্যতম আলোচিত নেতা হিসেবে আখ্যা দিয়েছেন কেউ কেউ। বঙ্গবন্ধুকে এভাবে যাঁরা স্বীকৃতি দিয়েছেন, সম্মান দেখিয়েছেন বা শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেছেন, তাঁদের কেউই এ দেশের নাগরিক নন। তাঁরা বিশ্বনেতা, বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্র বা সরকারপ্রধান অথবা সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি। বাংলাদেশ সফরে এসে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘর দেখার পর তাঁরা বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে নিজের হাতে মন্তব্য লিখেছেন। এসব মন্তব্য হয়ে উঠেছে জাদুঘরের মূল্যবান সম্পদ। বঙ্গবন্ধু সম্পর্কে সাধারণ মানুষের প্রতিক্রিয়া জানা বা বোঝার সুযোগ থাকলেও বিশ্বনেতা বা অতি গুরুত্বপূ...
ভারতের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার সুরাইয়া বদরুদ্দিন তায়াবজি
আন্তর্জাতিক, ইতিহাস

ভারতের জাতীয় পতাকার ডিজাইনার সুরাইয়া বদরুদ্দিন তায়াবজি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: ভারতের জাতীয় পতাকার জন্মদিন ২২ শে জুলাই।১৫ আগষ্ট ভারতের স্বাধীনতার জাতীয় দিবস উপলক্ষে বিশ্বের সর্ববৃহত এই গণতান্ত্রীক দেশটিতে পতাকা উত্তোলন করা হয় মহা সমারোহে।কিন্তু তেরঙ্গা এই পতাকার ডিজাইনার হিসেবে নাম রয়েছে এক মুসলিম নারীর। ভারতের ইতিহাস বিবৃতির আশ্রয় নিয়ে নারীর নাম গোপন করে ফেলা হয়েছে দীর্ঘ প্রচেষ্টার মাধ্যমে।“ভারতের জাতীয় পতাকার নকশা বানিয়েছিলেন একজন মুসলীম নারী, ICS বদরুদ্দীন তায়েবজী’র স্ত্রী সুরাইয়া” এমনটাই লেখা রয়েছে ইংলিশ ইতিহাসবিদ ট্রেভোর রয়েলের বইতে। সুরাইয়ার করা নকশা পন্ডিত নেহেরুর ভালো লাগায় তিনি নিজের গাড়ীর বনেটে তা লাগিয়ে নিয়েছিলেন। পরবর্তীতে সেটাই ভারতের জাতীয় পতাকার মর্যাদা পায়। এই নারী অহিংস স্বাধীনতা আন্দোলনেও অগ্রনী ভূমিকা নিয়েছিলেন, কিন্তু হিন্দুপ্রধান ভারতে তিনি বিস্মৃতির অতলে চলে গিয়েছেন। একে নারী, তাও আবার মুসলিম। কিন্তু ইতিহাস মুছে ফেল...
মৃত্যুঞ্জয়ী ক্ষুদিরাম বসু’র মৃত্যুবার্ষিকী আজ
ইতিহাস, বিপ্লবীদের কথা

মৃত্যুঞ্জয়ী ক্ষুদিরাম বসু’র মৃত্যুবার্ষিকী আজ

অধিকার ডেস্ক :: কিশোর ক্ষুদিরাম বসু জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত লড়ে গেছেন ব্রিটিশদের হাত থেকে নিজের জন্মভূমি ভারতকে মুক্ত করতে, মুক্ত বাতাসে স্বাধীনতার পতাকা উড়াতে। এ জন্য ফাঁসির দঁড়িকেও তিনি করেছেন তুচ্ছ জ্ঞান, হাসতে হাসতে আলিঙ্গন করে নিয়েছেন মৃত্যুকে। আজ থেকে ১১১ বছর আগের এমনই একটা দিনে ফাঁসির মঞ্চে আত্মদান করতে হয়েছিল ক্ষুদিরাম বসুকে। ১৯০৮ সালের ১১ আগস্ট, সময় তখন ভোর ৫টা। ক্ষুদিরামকে ফাঁসি দেওয়ার সব আয়োজন সম্পন্ন। যারা ফাঁসিতে ঝুলাবেন তাঁরাও প্রস্তুত।লোহার গরাদ দেওয়া গেটটি তখনো বন্ধ। হঠ্যাৎ গেটটি খুলে গেল। সেই গেট পেরিয়ে দৃঢ় পায়ে এগিয়ে আসছেন একটি কিশোর, তিনি আর কেউ নন, ক্ষুদিরাম। মেধাবী এই দেশপ্রেমিক অন্যায়কে মেনে নিতে পারেননি কখনো। অল্প বয়সে বাবা মারা যাওয়ায় লেখা পড়াতেও বেশি দূর এগোতে পারেননি বোনের কাছে বড় হওয়া ক্ষুদিরাম। অ্যাডভেঞ্চার প্রিয় এই কিশোর ১৯০৩ সালে অষ্টম শ্রেণীতে থাক...
আফ্রিকার বাইরে প্রথম আধুনিক মানুষের সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা
ইতিহাস, প্রকৃতি ও বিজ্ঞান

আফ্রিকার বাইরে প্রথম আধুনিক মানুষের সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা

অধিকার ডেস্ক ::   আফ্রিকা মহাদেশের বাইরে আমাদের প্রজাতির (আধুনিক মানুষ) সবচেয়ে পুরনো নমুনার সন্ধান পেয়েছেন গবেষকরা। গ্রিসে পাওয়া একটি মাথার খুলিকে ২ লাখ ১০ হাজার বছরের পুরনো বলছেন তারা; এটি এমন এক সময় ‍যখন সমগ্র ইউরোপ নিয়ান্ডারথাল (সেকেলে মানুষের আরেকটি প্রজাতি) মানবদের দখলে ছিল। এ আবিষ্কার আফ্রিকা থেকে আধুনিক মানুষের প্রথম দিককার অভিবাসনেরও নজির; আজকের জীবিত মানুষের ডিএনএ-তে যাদের কোনো অস্তিত্বই নেই। বিজ্ঞান সাময়িকী নেচার গবেষকদের নতুন এ আবিষ্কারের খবর ছেপেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। ১৯৭০-র দশকে গবেষকরা গ্রিসের আপিদিমা গুহায় দুটো গুরুত্বপূর্ণ জীবাশ্ম খুজে পান । এর একটি অত্যন্ত বিকৃত ছিল, অন্যটি অসম্পূর্ণ। কম্পিউটার টোমোগ্রাফি স্ক্যানিং ও ইউরেনিয়াম-সিরিজ ডেটিংয়ের মাধ্যমে গবেষকরা এ জীবাশ্ম দুটোর রহস্য উদঘাটন করেন। তুলনামূলক পূর্ণাঙ্গ খুলিটি জীবাশ্মটি একজন নিয়ান্ডারথা...
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় বিরোধিতা করেছিলেন যারা
ইতিহাস

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় বিরোধিতা করেছিলেন যারা

ভারতবর্ষে উচ্চশিক্ষার শুরু ১৮৫৭ সালের সিপাহী বিদ্রোহের পর। ১৮৫৭ সালে ভারতের বড় লাট লর্ড ক্যানিং 'দ্য অ্যাক্ট অফ ইনকরপোরেশন' পাশ করে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা করেন। বিশ্ববিদ্যালয়গুলো হল কোলকাতা, বোম্বে এবং মাদ্রাজ বিশ্ববিদ্যালয়। এর আগে থেকেই ভারতবর্ষে উচ্চশিক্ষার ব্যবস্থা ছিল কিন্তু এই তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হয় ইউরোপিয় মডেলে। অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয়ের মত কোলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের মান ছিল উঁচু। আর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ছিলেন মূলত পশ্চিম বঙ্গের উঁচুতলার হিন্দু সন্তানরা। ১৯০৫ সালে বঙ্গভঙ্গের আগে অবিভক্ত বাংলায় ১৯টি কলেজ ছিল। তার মধ্যে পূর্ব বাংলায় নয়টি। তবে সেটাই পর্যাপ্ত ছিল বলে মনে করেননি তখনকার পূর্ব বাংলার মানুষ। কেন পূর্ববঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রয়োজন ছিল: ১৯০৫ সালে বাংলা প্রেসিডেন্সি ভাগ করে পূর্ববঙ্গ ও আসাম নামে নতুন এক প্রদেশ করা হয়। যা...