"> দেশে সহনশীল রাজনীতির পরিবেশ বিদ্যমান : তোফায়েল আহমেদ
 

দেশে সহনশীল রাজনীতির পরিবেশ বিদ্যমান : তোফায়েল আহমেদ

Pronob paul 6:12 pm সারা দেশ,
Home  »  সারা দেশ   »   দেশে সহনশীল রাজনীতির পরিবেশ বিদ্যমান : তোফায়েল আহমেদ

ভোলা প্রতিনিধি: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য সাবেক বাণিজ্য মন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, দেশে সহনশীল রাজনীতির পরিবেশ বিদ্যমান। হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনকের কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ এখন বিশ্ব দরবারে উন্নয়নের রোল মডেল। এ ধারা অব্যাহত রাখতে হবে।

তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকার সাধারণ মানুষের কল্যাণে অবিরাম পরিশ্রম করছে। ষড়যন্ত্রকারীদের ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে। কোনো অনুপ্রবেশকারী যাতে দলে স্থান নিতে না পারে সে ব্যাপারে নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার নির্দেশ দেন তিনি।

বিএনপি শাসনামলের কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০০১ সালে ভোলার আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীরা বিএনপি’র সন্ত্রাসীদের নির্যাতন-অত্যাচারের শিকার হয়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে বেড়াতে হয়েছে।

লালমোহন উপজেলার আওয়ামী লীগের আয়োজনে সজীব ওয়াজেদ জয় ডিজিটাল পার্ক মাঠে মঙ্গলবার দুপুরে ভোলা লালমোহন উপজেলার আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে টেলি কনফারেন্সে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। লালমোহন উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি ও ভোলা-৩ আসনের সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন সভাপতির বক্তব্যে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে লালমোহন ও তজুমদ্দিনের মানুষের সেবা করার জন্য পাঠিয়েছে। তার নির্দেশে আমি আপনাদের পাশে রয়েছি।

তিনি আরো বলেন, বিএনপির ক্ষমতার আমলে লালমেহান ও তজুমদ্দিন ছিলো সন্ত্রাসী জনপথ। সেই জনপদকে আজ শান্তির জনপদে রুপান্তর করেছি। ভোলা-৩ আসনের মানুষ এখন শান্তি প্রিয়।

সম্মেলনের উদ্বোধন করেন ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লা। প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আবদুল মমিন টুলু। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মইনুল হোসেন বিপ্লব।

এসময় উপস্থিত কাউন্সিলরদের সমর্থনের ভিত্তিতে নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনকে সভাপতি ও ফখরুল আলম হাওলাদারকে সাধারণ সম্পাদক করে আগামী ৩ বছরের জন্য ৭১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠানে লালমোহন পৌর সভা ও উপজেলার এবং বিভিন্ন ইউনিয়নের প্রায় ১৫ হাজার নেতা-কর্মী, কাউন্সিলর-ডেলিকেটরা উপস্থিত ছিলেন।