গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট রূপগঞ্জ উপজেলার কাউন্সিল, সভাপতি সোহেল ও সম্পাদক মোহসিন

Pronob paul 4:34 pm সারা দেশ,
Home  »  সংগঠন সংবাদসারা দেশ   »   গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট রূপগঞ্জ উপজেলার কাউন্সিল, সভাপতি সোহেল ও সম্পাদক মোহসিন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি :: গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কাউন্সিল অনুষ্ঠিত। কাউন্সিলে মোঃ সোহেলকে সভাপতি, খোকনকে সহ-সভাপতি, মোহসিন মিয়াকে সাধারণ সম্পাদক ও ইব্রাহিমকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে ১৯ সদস্যের কার্যকরী কমিটি নির্বাচিত করা হয়।

আজ শুক্রবার সকাল ১০টায় গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট রূপগঞ্জ উপজেলার কাউন্সিল রূপগঞ্জ উপজেলা কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়।

গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট রূপগঞ্জ উপজেলার সংগঠক মোঃ সোহেলের সভাপতিত্বে কাউন্সিলে বক্তব্য রাখেন সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি আবু নাঈম খান বিপ্লব, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার সভাপতি সেলিম মাহমুদ, গার্মেন্টস শ্রমিক ফ্রন্ট নারায়ণগঞ্জ জেলার ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম শরীফ, স্থানীয় সংগঠক খোকন, মোহসিন মিয়া।

নেতৃবৃন্দ বলেন, পোশাক শিল্পের রপ্তানি প্রবৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশের রপ্তানি আয় নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা অতিক্রম করে যাচ্ছে। অথচ এই শিল্পের ভারবাহী হিসাবে মুল ভুমিকা পালনকারী গার্মেন্টস শ্রমিকদের জীবনমানের কোন পরিবর্তন হচ্ছে না। মজুরি বিবেচনায় বিশ্বের সর্বনি¤œ মজুরির বিনিময়ে কাজ করে যে শ্রমিক কর্মক্ষেত্রের অধিকার ভোগের ক্ষেত্রে তার অবস্থান বিশ্বের সর্বশেষ ১০টি দেশের তালিকায়। সকল নাগরিকের অধিকার সুরক্ষার শপথ নিয়ে রাষ্ট্র পরিচালনাকারী সরকারও শ্রমিকস্বার্থ হরণকারী আইন তৈরি করে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, আমাদের দেশে শ্রম আইন আছে কিন্তু এর সুফল শ্রমিকরা ভোগ করতে পারে না। মালিকরা শ্রম আইনের ২৩, ২৬ ও ২৭ ধারার অপপ্রয়োগ করে শ্রমিকদের বঞ্চিত করে। যখন-তখন ছাঁটাই করে। জোর করে স্বাক্ষর রেখে প্রাপ্য পাওনা না দিয়ে কারখানা থেকে বের করে দেয়। অবসর নিলে বছরের পর বছর ঘুরাতে থাকে কিন্তু শ্রমিকের প্রাপ্য দেয় না। শ্রম আদালতে গেলেও ২/৪ বছরেও রায় পায় না।

নেতৃবৃন্দ বলেন, সিনহা গার্মেন্টসে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে পাঁচশতাধিক শ্রমিক ছাঁটাই হয়েছে। তাদের প্রাপ্য পাওনা থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে। এস এস কটন ফেব্রিকস লিঃ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। শ্রমিকদের প্রাপ্য পাওনা দেয়া হয়নি। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী, কলকারখানা পরিদর্শন অধিদপ্তর কেউই আইন লঙ্ঘনের কারণে মালিকের বিরুদ্ধে কোন ব্যবস্থা নেয় না।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে সিনহাসহ গার্মেন্টসের ছাঁটাইকৃত শ্রমিকদের প্রাপ্য পাওনা প্রদান ও ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার এবং এস এস কটন ফেব্রিকস লিঃ অবিলম্বে চালু করার দাবি করেন।