রবিবার, মে ১৬
শীর্ষ সংবাদ

৯ মিনিট আলো নিভিয়ে মোমবাতি জ্বালালেন ভারতবাসী

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 36
    Shares

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে দেশবাসীর কাছে আর্জি জানিয়ে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বলেছিলেন, রোববার (৫ এপ্রিল) রাত ৯টায় আপনারা ৯ মিনিট বাড়ির সব আলো বন্ধ করে ঘর বা বারান্দায় দাঁড়িয়ে মোমবাতি, প্রদীপ বা ফোনের ফ্ল্যাশলাইট জ্বালাবেন। এতে যে শক্তি প্রকাশ পাবে, তার মাধ্যমে বুঝব, করোনার বিরুদ্ধে আমরা সবাই আছি।

মোদির সেই ডাকে সাড়া দিয়েছে ভারতবাসী। করোনাভাইরাস দূর করতে তার ডাকে সাড়া দিয়ে দেশজুড়ে বাড়ির আলো নিভিয়ে বারান্দায় দাঁড়িয়ে মোমবাতি জ্বালালেন আপামর দেশবাসী।

প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ভারতজুড়ে ২১ দিনের লকডাউন চলছে। বড় শহরগুলোতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির লকডাউনের কারণে ঘরবন্দী হয়েছে সাধারণ মানুষ। এদিন মোমবাতি জ্বালিয়ে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে এক হওয়ার বার্তা দিল ভারত।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, রোববার রাসে অনেকে বাজি ফাটাতে, হর্ন বাজাতে দেখা যায়। এছাড়া ঘণ্টা বাজানোর পাশাপাশি দেশের শক্তি প্রদর্শনের বার্তা দিতে চিৎকার করতে দেখা যায় সাধারণ মানুষকে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি আপলোড করা রাজনীতিবিদদের তালিকায় প্রথম আসেন অন্ধ্রপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা তেলেগু দিশম পার্টির সুপ্রিমো চন্দ্রবাবু নাইডু। এক টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, নরেন্দ্র মোদিজির ডাকে সাড়া দিয়ে, নাগরিকদের সঙ্গে আমিও মোমবাতি, প্রদীপ জ্বালিয়েছি এবং করোনাভাইরাসকে পরাস্ত করতে আমাদের দায়িত্ব পালন করেছি।

নরেন্দ্র মোদির ডাকে লকডাউনে গৃহবন্দী সাধারণ মানুষ। অত্যবশকীয় পণ্যের দোকান খোলা রয়েছে, রোববার দেশের বিভিন্ন জায়গায় ঠেলাগাড়িতে মোমবাতি বিক্রি করতে দেখা যায়।

লকডাউনের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ডাকে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার সবমেতভাবে সামিল হলেন দেশবাসী। নিজেদের বাড়িতে মোমবাতি, প্রদীপ জ্বালানোর ছবি পোস্ট করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং, বিজেপি সভাপতি জেপি নাড্ডা।

নিজের বাড়ির বাইরে আলো জ্বালান উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাডু। একই পথে হাঁটেন উত্তরাখণ্ডের মুখ্যমন্ত্রী ত্রিবেন্দ্র সিং রাওয়াত এবং লোকসভার অধ্যক্ষ ওম বিড়লা।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির অনুরোধের পর থেকেই রাজ্য বিদ্যুৎ দফতরের কর্মকর্তাদের মধ্যে উদ্বেগ ছড়িয়ে প়ড়ে। কারণ, এত মানুষ বাড়ির আলো নিভিয়ে দিলে, বিদ্যুৎ সরবরাহের সমস্যা হতে পারে। ফলে সেখানে ওভারলোড হতে পারে।

ভারতে গত একদিনে আরও ৫ শতাধিক মানুষকে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত করা হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে এখন ৩ হাজার ৫৭৭ জন। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ তথ্য দিয়েছে ভারতীয় টেলিভিশন এনডিটিভি।

কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, ভারতে করোনাভাইরাস সংক্রমিত কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা এখন ৮৩ জন। গতকাল রাত পর্যন্ত এই সংখ্যাটা ছিল ৭৫। এছাড়া আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসা শেষে ২৭৫ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন বলে জানিয়েছে দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 36
    Shares