বুধবার, ডিসেম্বর ২

৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা ইতালির

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: বাংলাদেশ থেকে যাওয়া যাত্রীর শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়ায় প্রথমে একসপ্তাহের জন্য বাংলাদেশের সঙ্গে ফ্লাইট বাতিল করে ইতালি। তবে পরে এই সময়সীমা বাড়িয়ে আগামী ৫ অক্টোবর পর্যন্ত করেছে দেশটি। বুধবার (৮ জুলাই) রাতে এ সংক্রান্ত নোটাম (নোটিস টু এয়ারম্যান) জারি করেছে ইতালি।

নোটামে বলা হয়েছে, ‘ইতালিয়ান স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের নির্দেশে বাংলাদেশে থেকে আসা সব যাত্রী ও ফ্লাইট ইতালিতে প্রবেশ করতে পারবে না। করোনাভাইরাস মহামারির কারণে ঝুঁকি বেড়ে যাওয়ায় কোনও এয়ারলাইন্স বাংলাদেশে থেকে কোনও যাত্রী আনতে পারবে না। এমনকি কোনও ট্রানজিট ফ্লাইটেও যাত্রী আনা যাবে না, যারা বাংলাদেশ থেকে এসেছেন।’

এই নোটাম জারির পর কাতার এয়ারওয়েজ ঘোষণা দিয়েছে— ৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে ইতালিগামী কোনও যাত্রী তাদের ফ্লাইটে নেওয়া হবে না।

বিশ্বে করোনা সংক্রমণে বিপর্যস্ত দেশগুলোর একটি ইতালি। এ পর্যন্ত সে দেশে ২ লাখ ৪১ হাজার ৮শ’র বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তের তালিকায় দেশটির অবস্থান ১১তম। করোনায় আক্রান্ত হয়ে ইতালিতে প্রাণ হারিয়েছে ৩৪ হাজারের বেশি মানুষ।

জানা গেছে, ৬ জুলাই বাংলাদেশ থেকে রোমে যাওয়া একটি ফ্লাইটের উল্লেখযোগ্য সংখ্যক যাত্রীর শরীরে করোনা শনাক্ত হয়। এরপর বাংলাদেশের সঙ্গে সব ধরনের ফ্লাইট বাতিলের ঘোষণা দিয়েছে ইতালি। এ ঘোষণার পরও ৮ জুন বাংলাদেশ থেকে কাতার হয়ে ইতালিতে যাওয়া দুটি ফ্লাইটের ১৬৮ বাংলাদেশিকে ফিরিয়ে দিয়েছে ইতালি।

করোনা পরিস্থিতির কারণে দুই মাস বন্ধ থাকার পর জুনে বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পুনরায় চালু হয়। গত কয়েক সপ্তাহে ইতালির সঙ্গে বাংলাদেশের বেশ কয়েকটি ফ্লাইট চলাচল হয়েছে।

এদিকে আজ বাংলাদেশ থেকে ইতালিতে যাওয়া প্রবাসীদের গণহারে করোনা পরীক্ষা শুরু হয়েছে। ছুটির দিনসহ সপ্তাহের সবদিনই চলবে পরীক্ষা।

স্থানীয় কমিউনিটি হাসপাতালগুলোতে চলছে নমূনা সংগ্রহ। বিনামূল্যে প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত চলবে পরীক্ষা। গেল এক মাস ধরে বিশেষ ফ্লাইটে যেসব বাংলাদেশি ইতালিতে গেছেন, তাদের মধ্যে ২০০ জনের শরীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে এরইমধ্যে আরো ৪০০ জন আক্রান্ত। এক সপ্তাহ আগে বাংলাদেশ থেকে ইতালি যাওয়া একটি ফ্লাইটে দুজনের শরীরে করোনাভাইরাস মেলে।


এখানে শেয়ার বোতাম