শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২৬
শীর্ষ সংবাদ

১৭ দফা দাবিতে সিলেটে সিপিবি পদযাত্রা অনুষ্ঠিত

এখানে শেয়ার বোতাম

সিলেট প্রতিনিধি :: জনগণের ভোটাধিকার, কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় দখলমুক্ত, রেল-সড়কে মৃত্যুর মিছিল বন্ধ, জাতীয় ন্যূনতম মজুরী ১৬ হাজার টাকা নির্ধারণ, ভূমিহীন ক্ষেতমজুরসহ গ্রামীণ মজুরদের জন্য রেশনিং ব্যবস্থা চালু, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধগতি রোধ, ধর্মীয় সংখ্যালঘু ও আদিবাসীদের উপর জুলুম-নির্যাতন বন্ধ, ভারতের সাথে জাতীয় স্বার্থবিরোধী অসমচুক্তি বাতিলসহ ১৭ দফা দাবিতে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পাটি’র (সিপিবি) ডাকে দেশব্যাপী পদযাত্রা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

কেন্দ্রীয় কমিটি ঘোষিত এ কর্মসূচির অংশ হিসেবে আজ ২৩ নভেম্বর শনিবার সিপিবি সিলেট জেলাধীন কোতোয়ালী থানা শাখার উদ্যোগে পদযাত্রা কর্মসূচি পালিত হয়। সকাল ১০টায় নগরীর ঐতিহাসিক কীন ব্রিজ মোড়ে পথসভার মাধ্যমে এ কর্মসূচি শুরু হয়। পরে বিভিন্ন স্থানে পথসভার মাধ্যমে পদযাত্রা এগিয়ে চলে। সবশেষে রিকাবি বাজারে গিয়ে পথসভার মাধ্যমে ঐদিনের মতো পদযাত্রা কর্মসূচি সমাপ্ত হয়।

সিপিবির নেতা-কর্মিবৃন্দসহ বিভিন্ন গণসংগঠনের নেতৃবৃন্দ লাল পতাকা এবং জাতীয় ও স্থানীয় বিভিন্ন দাবি সংবলিত প্লেকার্ড হাতে নিয়ে পদযাত্রায় অংশ নেন। এছাড়াও পদযাত্রা চলাকালে ১৭ দফা দাবিসংবলিত লিফলেট জনসাধারণের হাতে তুলে দেওয়া হয়।

এসব পথসভায় বক্তারা বলেন, রাষ্ট্রযন্ত্র বর্তমানে ফ্যাসিবাদী রূপ ধারণ করেছে। ক্ষমতাসীনদের সহযোগী সংগঠনসমূহের নেতা-কর্মিরা ক্রাইমসিন্ডিকেট তৈরি করে ক্যাসিনো বাণিজ্যসহ টেন্ডারবাজি চাঁদাবাজির মাধ্যমে দেশকে লুটপাটের রাজত্বে পরিণত করেছে। ভারতের সাথে অসম চুক্তি বাতিলের আহবান জানিয়ে তারা বলেন, তিস্তার পানি বণ্টনের ন্যায্য চুক্তির জন্য বাংলাদেশের মানুষ দীর্ঘদিন ধরে দাবি জানিয়ে এলেও সরকার ভারতের কাছ থেকে তা আদায় করতে সক্ষম হয়নি। বরং অসম চুক্তির মাধ্যমে উল্টো ফেনী নদীর পানি ভারতকে দিয়ে দেওয়া হয়েছে। দেশে লক্ষ লক্ষ শিক্ষিত যুবক বেকার। তাদের কর্মসংস্থানের ব্যাপারে কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নেই। নারী নির্যাতন, শিশু নির্যাতন অহরহ ঘটছে। কিন্তু ভুক্তভোগিরা কোনো বিচার পাচ্ছেন না। সাম্প্রদায়িকতা মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য অসহনীয় পর্যায়ে পৌঁচেছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে লুটপাট দুর্নীতি গণতন্ত্রহীনতা ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে এবং শোষণমুক্ত সাম্যবাদী সমাজব্যবস্থা গড়ে তোলার লক্ষ্যে কাস্তে মার্কায় ঐক্যবদ্ধ হয়ে জোরালো আন্দোলনে ঝাপিয়ে পড়ার জন্য ছাত্র-জনতার প্রতি বক্তারা আহ্বান জানান।

এছাড়াও ভূমিহীন ক্ষেতমজুরসহ গ্রামীণ মজুরদের জন্য রেশনিং ব্যবস্থা চালু করাসহ শ্রমিকদের ন্যুনতম মজুরী ১৬ হাজার টাকা নির্ধারণ এবং ধান-গমসহ সকল কৃষিপণ্যের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করা, খাদিমনগরস্থ শাহপরান হাসপাতাল অবিলম্বে চালু, খাদিমনগরে একটি পূর্ণাঙ্গ শিল্পনগরী গড়ে তোলা, আবাসিক গ্যাস সংযোগ প্রদান পুনরায় চালু, এমসি কলেজ এবং সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজকে বিশ্ববিদ্যালয়ে রূপান্তর, সিলেট-আখাউড়া বিদ্যমান রেলপথ সংস্কার করে ডাবল লাইনে উন্নীতকরণের জন্য বক্তারা জোর দাবি জানান।

পথসভাগুলোতে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, সিপিবি সিলেট জেলা কমিটির সংগ্রামী সভাপতি হাবিবুল ইসলাম খোকা, সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আনোয়ার হোসেন সুমন, সহ-সাধারণ সম্পাদক খায়রুল হাছান, জেলা নেতা ডা. বীরেন্দ্র চন্দ্র দেব, সিপিবি কোতোয়ালী থানা শাখার সম্পাদক সাথী রহমান, সিপিবি শাহপরান থানা শাখার সম্পাদক তুহিন কান্তি ধর, সিপিবি জালালাবাদ থানা শাখার সম্পাদক নিরঞ্জন দাস খোকন, এনায়েত হাসান মানিক, এডভোকেট ফজলুর রহমান শিপু, বিধান দেব চয়ন, যুবনেতা রশীদ আহমদ রাশেদ, সন্দ্বীপ দেব, ছাত্র ইউনিয়ন সিলেট জেলা সংসদের সভাপতি সরোজ কান্তি, সাধারণ সম্পাদক নাবিল এইচ, মহানগর সংসদের সভাপতি হাছান বক্ত চৌধুরী কাওছার, সাধারণ সম্পাদক বিশাল দেব, সহ-সাধারণ সম্পাদক মনীষা ওয়াহিদ, ছাত্রনেতা মোহাইমিনুল ইসলাম মাহিন প্রমুখ।


এখানে শেয়ার বোতাম