মঙ্গলবার, মার্চ ৯
শীর্ষ সংবাদ

১০ দফা দাবিতে বাসদ(মার্কসবাদী) সিলেট জেলার গণস্বাক্ষর শুরু

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: ১০ দফা দাবিতে বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলা শাখার উদ্যোগে গণস্বাক্ষর কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়। আজ সকাল ১১:৩০ টায় সিলেট সিটি পয়েন্টে এই গণস্বাক্ষর কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন বাসদ (মার্কসবাদী) সিলেট জেলা শাখার আহবায়ক কমরেড উজ্জ্বল রায়, সদস্য এডভোকেট হুমায়ুন রশীদ সোয়েব, সুশান্ত সিনহা, রেজাউর রহমান রানা, মহিতোষ দেব মলয়, রুবাইয়াৎ আহমেদ, সঞ্জয় কান্ত দাশ, সাদিয়া নোশিন তাসনিম, নাজিরুল আজম বিশ্বাস, ফাহিম আহমদ চৌধুরী, তানজিনা বেগম প্রমুখ।

গণস্বাক্ষর

১০ দফা দাবিসমূহ :
১. স্বৈরতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার অবসান ও গণতান্ত্রিক অধিকার চাই। দমন-পীড়ণ,
গায়েবী মামলা, বিচারবহির্ভূত আটক-হত্যা, রাষ্ট্রীয় হেফাজতে গুম-ক্রসফায়ার বন্ধ করতে
হবে। মতপ্রকাশের স্বাধীনতা চাই।

২. গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বাড়ানো চলবে না। গরিব-মধ্যবিত্তের জন্য রেশন ব্যবস্থা চালু করতে
হবে। রেল-বিআরটিসি সহ সরকারি গণপরিবহন বিস্তৃত করতে হবে। নিম্ন আয়ের
মানুষের জন্য সরকারি উদ্যোগে অল্প ভাড়ায় বহুতলবিশিষ্ট কলোনি নির্মাণ কর। বাড়ি ভাড়া-
গাড়ি ভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন কার্যকর কর।

৩. কৃষি ফসলের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে হাটে হাটে সরকারি ক্রয়কেন্দ্র চাই। ভর্তুকি
দিয়ে স্বল্পমূল্যে কৃষি উপকরণ সরবরাহ কর। ক্ষেতমজুরদের সারা বছর কাজ ও রেশন চাই।
ভূমিহীনদের খাস জমি বরাদ্দ দিতে হবে।

৪. শ্রমিকদের নিম্নতম জাতীয় মজুরি ১৬ হাজার টাকা নির্ধারণ, অবাধ ট্রেড
ইউনিয়ন অধিকার ও কর্মক্ষেত্রে স্বাস্থ্যসম্মত নিরাপদ পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।
গণতান্ত্রিক-শ্রমিকবান্ধব শ্রম আইন প্রণয়ন ও সকলক্ষেত্রে বাস্তবায়ন চাই।।

৫. ক্রমবর্ধমান নারী-শিশু নির্যাতন বন্ধে দোষীদের দ্রুত বিচার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি
চাই। মাদক, পর্ণোগ্রাফি ও জুয়া বন্ধ কর। মাদকাসক্তদের পুনর্বাসন চাই।

৬. চিকিৎসা ও শিক্ষা নিয়ে ব্যবসা বন্ধ কর। সরকারি উদ্যোগে স্বাস্থ্যব্যবস্থা ও
শিক্ষাব্যবস্থার অধীনে প্রত্যেক নাগরিকের উপযুক্ত চিকিৎসা ও শিক্ষাপ্রাপ্তি নিশ্চিত
করতে হবে। ডেঙ্গু রোগীদের চিকিৎসার খরচ সরকারকে বহন করতে হবে।

৭. নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে চুক্তিভিত্তিক গাড়ি চালানো বন্ধ করে ড্রাইভারদের
নিয়োগপত্র, মাসিক বেতন, পর্যাপ্ত বিশ্রাম, সবেতন ছুটি ও প্রশিক্ষণ চাই।
লাইসেন্সবিহীন চালক ও ফিটনেসবিহীন যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ করতে হবে।

৮. সাম্প্রদায়িক ও মৌলবাদের পৃষ্ঠপোষকতা বন্ধ কর। ধর্মীয় ও জাতিগত সংখ্যালঘুদের
উপর সা¤প্রদায়িক আক্রমণের দ্রুত বিচারে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল ও নাগরিক তদন্ত কমিশন
গঠন কর। পার্বত্য চট্টগ্রাম থেকে অঘোষিত সেনাশাসন প্রত্যাহার কর।

৯. ভারতের কাছ থেকে তিস্তাসহ সব অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায় কর।
সুন্দরবন ধ্বংসকারী রামপাল কয়লা বিদ্যৎকেন্দ্র ও ঝুঁকিপূর্ণ রূপপুর পরমাণু বিদ্যুৎ প্রকল্প
চাই না। কাশ্মীরে ভারতীয় সেনাবাহিনীর নির্যাতন, আসামে বিজেপি-ও ‘বাংলাদেশে;
বিতাড়নের হুমকি এবং মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা উচ্ছেদের প্রতিবাদে সোচ্চার
হও।

১০. জনগণের ম্যান্ডেটবিহীন আওয়ামী লীগ সরকারকে অবিলম্বে পদত্যাগে বাধ্য করে সকল
গণতান্ত্রিক শক্তির সাথে আলোচনার ভিত্তিতে নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠন করে
তার অধীনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন দাও। স্বাধীন নির্বাচন কমিশন ও সংখ্যানুপাতিক
প্রতিনিধিত্ব ব্যবস্থা চালুসহ নির্বাচনী ব্যবস্থার আমূল সংস্কার চাই।


এখানে শেয়ার বোতাম