মঙ্গলবার, মার্চ ২
শীর্ষ সংবাদ

হংকংয়ে আন্দোলনের মুখে বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিল

এখানে শেয়ার বোতাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী ক্যারি ল্যাম বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) আনুষ্ঠানিকভাবে বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিল ঘোষণা করেছেন। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোর বরাতে এ খবর জানিয়েছে হংকং ফ্রি প্রেস।

হংকংয়ের স্থানীয় সময় বিকাল ৪ টায় ক্যারি ল্যাম গভার্নমেন্ট হাউজে হংকংয়ের চীনপন্থি সংসদ সদস্য এবং হংকংয়ের ডেপুটিদের সাথে এক বৈঠকে মিলিত হওয়ার পর এই বিলটি বাতিল করেছেন বলে সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে।

এর আগে, আন্দোলনের মুখে জুনের ১৫ তারিখে ক্যারি ল্যাম বন্দি প্রত্যর্পন বিল স্থগিত করেছিলেন। কিন্তু বিলটি স্থগিত নয় সম্পূর্ণ বাতিলের দাবিতে আন্দোলন চলতেই থাকলে, জুলাইয়ের ৯ তারিখ ক্যারি ল্যাম বিলটির মৃত্যু হয়েছে বলে উল্লেখ করেছিলেন।
প্রসঙ্গত, এই বন্দি প্রত্যর্পণ বিলের অধীনে হংকংয়ের যে কোন নাগরিককে ফৌজদারি মামলায় বিচারের জন্য চীন তার নিজস্ব ভূখন্ডে নিয়ে যাওয়ার ক্ষমতা অর্জন করতো। কিন্তু হংকংয়ের সর্বস্তরের মানুষ বিশেষত ছাত্ররা এই বিল সার্বভৌমত্ব বিরোধি উল্লেখ করে আন্দোলনে নামে। টানা চার মাস আন্দোলন চলার পর বিলটি বাতিলের ঘোষণা আসতে যাচ্ছে।

কিন্তু হংকংয়ের আন্দোলন ইতোমধ্যেই সরকার বিরোধি আন্দোলনে রূপ নিয়েছে। পাঁচ দফা দাবিতে প্রতি সপ্তাহান্তেই নতুন নতুন কর্মসূচি নিয়ে রাস্তায় নামছেন হংকংয়ের মানুষ। তাদের পাঁচ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে ক্যারি ল্যামের পদত্যাগ, হংকংয়ে আরও গণতান্ত্রিক পরিবেশ তৈরি, আন্দোলনকারীদের ওপর পুলিশী নির্যাতনের স্বাধীন তদন্ত ও বিচার, আন্দোলনকারীদের দাঙ্গাবাজ না বলা ও বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিল।

বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিল হতে যাচ্ছে এমন সংবাদ শুনে গণতন্ত্রপন্থি সংসদ সদস্য এডি চু এক ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছেন, যদি এ কথা সত্যিও হয়। তবে আমরা বলতে চাই, আমাদের চার দফা দাবির বাস্তবায়ন ছাড়া এ আন্দোলন বন্ধ করা যাবে না।

হংকংয়ের ডেমোসিস্টো পার্টির পক্ষ থেকে এজেন্স চো আরেক ফেসবুক পোস্টে বলেছেন, আমাদের পাঁচটি সুস্পষ্ট দাবি রয়েছে। বন্দি প্রত্যর্পণ বিল বাতিল আন্দোলন থামানোর জন্য সরকারের একটি কৌশলমাত্র। আপনারা সে ফাঁদে পা না দিয়ে, যে কমরেডদের আমরা হারিয়েছি, যারা আহত হয়েছেন তাদের কথা স্মরণ করে বাকি দাবিগুলোর পক্ষ নিয়ে রাস্তায় থাকুন।


এখানে শেয়ার বোতাম