শনিবার, জানুয়ারি ১৬

স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক মালেক ফের রিমান্ডে

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 3
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক আব্দুল মালেককে (৬৩) জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ফের চার দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনের পৃথক দুই মামলায় দুই দিন করে চার দিন তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে মামলার তদন্তকারী সংস্থা র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটেলিয়ন (র‌্যাব)।

মঙ্গলবার (১ ডিসেম্বর) র‌্যাব-১ আসামিকে আদালতে হাজির করে দুই মামলায় তিন দিন করে ছয় দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। এসময় মালেকের পক্ষে তার আইনজীবী রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষ থেকে জামিনের বিরোধিতা করা হয়।

শুনানি শেষে ঢাকা মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট বেগম ইয়াসমিন আরা তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে চার দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

এর আগে, গত ২১ সেপ্টেম্বর দুই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আব্দুল মালেকের ১৪ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছিলেন আদালত। পরে রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়েছিল।

গত ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় আব্দুল মালেককে। এসময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ টাকার বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইল জব্দ করা হয় বলে জানিয়েছে র‍্যাব।

র‍্যাব জানায়, রাজধানীর তুরাগ এলাকায় আব্দুল মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেক অবৈধ অস্ত্র ব্যবসা, জাল টাকার ব্যবসা, চাঁদাবজিসহ বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত। ওই এলাকায় তিনি সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে শক্তির মহড়া ও দাপট প্রদর্শনের মাধ্যমে ত্রাসের রাজত্ব তৈরি করেছেন। এমন অভিযোগের সত্যতা পাওয়ার পর অভিযান চালিয়ে তুরাগে কামারপাড়ার বামনের টেক এলাকার ৪২ নাম্বার হাজি কমপ্লেক্স নামের সপ্তম তলা ভবনের তৃতীয় তলা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

র‍্যাব আরও জানায়, মালেক পেশায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিবহন পুলের একজন চালক এবং তৃতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা। তিনি ১৯৮২ সালে সাভার স্বাস্থ্য প্রকল্পে চালক হিসেবে যোগ দেন। পরে ১৯৮৬ সালে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিবহন পুলে চালক হিসেবে চাকরি শুরু করেন। বর্তমানে তিনি প্রেষণে স্বাস্থ্য ও শিক্ষা অধিদফতরে কাজ করেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 3
    Shares