মঙ্গলবার, এপ্রিল ১৩
শীর্ষ সংবাদ

সিলেটের চৌহাট্টায় সংঘর্ষ : ফের ধর্মঘটের হুমকি পরিবহন শ্রমিকদের

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares

সিলেট প্রতিনিধি:: সিলেট নগরের চৌহাট্টায় সিটি করপোরেশনের কর্মীদের সাথে পরিবহন শ্রমিকদের সংঘর্ষের ঘটনায় ফের ধর্মঘটের হুমকি দিয়েছেন পরিবহন শ্রমিক নেতারা। ১৩ মার্চের মধ্যে তাদের তিন দফা দাবি মানা না হলে ১৪ মার্চ থেকে ধর্মঘট ডাকার হুমকি দেন তারা।

চৌহাট্টার ঘটনায় সিটি করপোরেশনে অনুষ্ঠিত সমঝোতা বৈঠকের সিদ্বান্ত কার্যকরের জন্য ১০ দিনের সময় বেঁধে দিয়েছেন সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা। বুধবার সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার বরাবর দেওয়া এক স্মারকলিপিতে তারা এই আলটিমেটাম দেন।

এ সময় তারা জানান- ১৩ মার্চের মধ্যে তিন দফা দাবি মেনে না নিলে ১৪ মার্চ রোববার ভোর ৬ টা থেকে সিলেট জেলার পরিবহন শ্রমিকরা অনির্দিষ্টকালের জন্য কর্ম বিরতি শুরু করবেন।

পরিবহন শ্রমিকদের ঘোষিত ৩ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে- কোতোয়ালি থানায় শ্রমিক ও নেতৃবৃন্দের উপর দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার, ভাংচুরকৃত গাড়ির ক্ষতিপুরন ও আটককৃত গাড়ি ফেরত দেওয়া ও গাড়ি রাখার জন্য স্ট্যান্ডের ব্যবস্থা করা।

সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি হাজী মো. ময়নুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুল মুহিম পুলিশ কমিশনারের কাছে পরিবহন শ্রমিকদের পক্ষে এ স্মারকলিপি পেশ করেন।

স্মারকলিপিতে তারা জানান- চৌহাট্টার ঘটনার প্রেক্ষিতে মোল্লারগাও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মখন মিয়া, সিলেট মহানগর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আব্দুর রহমান রিপন, বন্দরবাজার ব্যবসায়ী সমিতির সহ-সভাপতি আতিক মিয়া ও সিলেট জেলা ট্রাক মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম হাদী ছয়ফুলের আহবানে গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে সিটি করপোরেশনে বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী সহ কাউন্সিলররা, মালিক শ্রমিক নেতৃবৃন্দ ও সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। বৈঠকে দীর্ঘ আলোচনার পর ১৭ ফেব্রুয়ারি সৃষ্ট ঘটনায় ভাংচুরকৃত গাড়ি সমুহের ক্ষতিপুরণ প্রদান, আটককৃত গাড়ি ফেরত ও মামলা প্রত্যাহার করতে সর্ব সম্মতিক্রমে সিদ্বান্ত গ্রহন করা হয়। কিন্তু এখনো সিলেট সিটি করপোরেশন থেকে এ ব্যাপারে কার্যকর কোনো উদ্যোগ গ্রহন করা হয়নি।

স্মারকলিপিতে তারা জানান- এ নিয়ে গত মঙ্গলবার বিকেলে সিলেট জেলা বাস মিনিবাস কোচ মাইক্রোবাস শ্রমিক ইউনিয়নের প্রধান কার্যালয়ে সভাপতি হাজী ময়নুল ইসলামের সভাপতিত্বে সিলেট জেলার ৬টি রেজিস্ট্রার্ড সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সমন্বয়ে প্রতিবাদ সভা অনুষ্টিত হয়। ওই প্রতিবাদ সভায় সৃষ্ট ঘটনার প্রেক্ষিতে সমঝোতা বৈঠকের সিদ্বান্ত বাস্তবায়ন না করায় নিন্দা জানানো হয়। একই সঙ্গে ৩ দফা দাবিতে আলটিমেটাম সহ কর্ম বিরতির কর্মসূচি ঘোষনা করা হয়। স্মারকলিপিতে এ ব্যাপারে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনারের সর্বাত্মক সহযোগিতা চেয়েছেন পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের নেতারা।

প্রসঙ্গত, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি চৌহাট্টায় অবৈধ স্ট্যান্ড উচ্ছেদে গিয়ে হামলার মুখে পড়েন মেয়র ও কাউন্সিররা। এরপর সিটি করপোরেশনের কর্মী, পরিবহন শ্রমিক ও পুলিশের ত্রিমুখী সংঘর্ষ বাঁধে। এসময় বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাংচুর করা হয়।

ওই রাতে পুলিশ বাদী হয়ে দুটি ও সিটি করপোরেশনের এক কর্মকর্তা বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। এই তিন মামলায় তিনশতাধিক আসামি করা হয়। যাদের বেশিরভাগই পরিবহন শ্রমিক।

এই এ ঘটনার জেরে আগামী ২২ ফেব্রুয়ারি সোমবার থেকে পরিবহন ধর্মঘট কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। তবে ২১ ফেব্রুয়ারি রাতে নগর ভবনে সমঝোতা বৈঠক শেষে তারা ধর্মঘটের ঘোষণা প্রত্যাহার করে নেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares