শুক্রবার, নভেম্বর ২৭

সিএনজি চালকের সহযোগিতায় তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 26
    Shares

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি:: মৌলভীবাজারের বড়লেখায় সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালকের সহযোগিতায় এক তরুণীকে (১৮) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের আতুয়া এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় তরুণী বাদী হয়ে দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন। মামলার পরই পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- বড়লেখা উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের বাদেপুকুরিয়া গ্রামের মৃত রফিক উদ্দিনের ছেলে দেলোয়ার হোসেন (২৫) ও উপজেলার চুকারপুঞ্জি গ্রামের মাসুক মিয়ার ছেলে আলী আহমদ (১৮)।

এদিকে শনিবার সকালে ঘটনার শিকার ওই তরুণীকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণী ছোটবেলা থেকে নানা বাড়িতে বাস করেন। বৃহস্পতিবার তিনি খালার বাড়ি বেড়াতে যান। বৃহস্পতিবার রাতেই নানা বাড়ি থেকে খবর আসে নানা অসুস্থ। শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে খালার বাড়ি থেকে নানা বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন।

শাহবাজপুর বাজারে আসার পর তরুণীর খালাতো ভাই সিএনজি চালক আলী আহমদের গাড়িতে তুলে দেন। পথে সিএনজি চালক আলী শাহবাজপুর বাজারের পাহারাদার দেলোয়ারকে উঠান। একপর্যায়ে গাড়িতে দেলোয়ার তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান।

এ অবস্থায় তরুণী গাড়ি থেকে নামার চেষ্টা করলে সিএনজি চালকের সহযোগিতায় দেলোয়ার জোর করে তাকে আতুয়া এলাকার নির্জন স্থানে নিয়ে যান। পরে সেখানে দেলোয়ার তাকে ধর্ষণ করেন।

এ সময় স্থানীয় ইসলামপুর এলাকা থেকে একটি মোটরসাইকেলে লোকজন আসলে তরুণীকে রেখে দুজন পালিয়ে যায়। নানা বাড়ি না যাওয়ায় তাকে খুঁজতে গিয়ে খালাতো ভাই ও স্থানীয় লোকজন আতুয়া এলাকায় পেয়ে উদ্ধার করেন। পরে দেলোয়ার ও সহযোগিতার অভিযোগে আলীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন তরুণী।

বড়লেখা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার তরুণীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করার কথা জানিয়েছেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 26
    Shares