বুধবার, নভেম্বর ২৫

সরকার ধর্ষক-নিপীড়কদের পাহারাদারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে : ‍সিপিবি

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 105
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: ধর্ষণবিরোধী গ্রাফিতি আঁকার অভিযোগে ছাত্র ইউনিয়নের নেতাদের ওপর পুলিশি নির্যাতনের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ধিক্কার জানিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

মঙ্গলবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিবৃতিতে সিপিবি সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম ও সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাহ আলম বলেন, ‘গণবিরোধী সরকার জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে পারছে না। বর্তমানে সারাদেশে ধর্ষণ-নিপীড়ন অনেক বেড়ে গেছে। সরকার ধর্ষক-নিপীড়কদের পাহারাদারের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছে।’

সিপিবি নেতৃবৃন্দ বলেন, “সরকার কোনো ধরনের প্রতিবাদই সহ্য করতে পারছে না। দেয়ালের গ্রাফিতিকেও ভয় পেতে শুরু করেছে সরকার। ধর্ষণবিরোধী গ্রাফিতি আঁকতে গিয়ে এখন ছাত্র ইউনিয়ন নেতাদের গ্রেপ্তার হতে হচ্ছে। শুধু তাই নয়, কোনো ধরনের আইন-কানুনের তোয়াক্কা না করে পুলিশ থানার মধ্যেই চলমান ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনের নেতাদের ওপর নির্মম নির্যাতন চালিয়েছে। আন্দোলনের কর্মীদের ওপর থানার মধ্যে নির্যাতন করার স্পর্ধা পুলিশ পায় কোথায়?”

এর আগে সোমবার রাতে রাজধানীর বেইলি রোডে চলমান ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে ধর্ষণবিরোধী গ্রাফিতি আঁকার সময় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ঢাকা মহানগর সংসদের সভাপতি জহর লাল রায় এবং শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক সাদাত হোসাইনকে আটক করে রমনা থানা পুলিশ। পরে তাদেরকে দুইজনকে থানা হেফাজতে নির্মম নির্যাতনের পর ভোর পাঁচটার দিকে ছেড়ে পুলিশ।

বিবৃতিতে সেলিম ও শাহ আলম বলেন, ‘বর্তমান কর্তৃত্ববাদী শাসনে পুলিশ বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। ক্ষমতায় টিকে থাকতে কর্তৃত্ববাদী সরকার পুলিশ বাহিনীকে দলীয় মাস্তান বাহিনীতে পরিণত করেছে। ধর্ষণ-নিপীড়নের প্রতিবাদকারীরা এখন সরকার ও তার পেটোয়া পুলিশ বাহিনীর টার্গেটে পরিণত হয়েছে।’

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ চলমান ধর্ষণ-নিপীড়ন বিরোধী চলমান আন্দোলনকে তীব্র করার পাশাপাশি ‘কর্তৃত্ববাদী’ সরকারের বিরুদ্ধে গণআন্দোলন গড়ে তোলার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 105
    Shares