রবিবার, নভেম্বর ২৯

‘সরকারের ব্যর্থতায় সামাজিক নৈরাজ্যের সুযোগে ধর্ষকেরা বেপরোয়া’

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক আজ এক বিবৃতিতে ধর্ষক ও নারী নিপীড়কদেরকে রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক ছত্রছায়া প্রদান বন্ধ করার দাবি জানিয়েছেন এবং বলেছেন ধর্ষক-লম্পট-খুন ও নির্যাতনকারীরা রাজনৈতিক ও প্রশাসনিক ক্ষমতার জোরে নিজেদেরকে আইনের ঊধ্বে মনে করে। এ কারণে তারা লাগামহীন ও বেপরোয়া।

তিনি বলেন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে নারীকে উলঙ্গ করে নিপীড়নের ঘটনা ভয়ানক ও পাশবিক। তিনি ক্ষোভের সাথে বলেন, নির্যাতনের ভিডিও প্রকাশ না হলে অনেক বর্বরোচিত ঘটনার মত এই ঘটনাও ধামাচাপা পড়ে যেত। এসব ঘটনার দায়দায়িত্ব অবশ্যই স্থানীয় প্রশাসন ও সরকারকেই বহন করতে হবে।

তিনি ক্ষোভের সাথে উল্লেখ করেন, করোনা আর দুর্নীতির মহামারীর সাথে এখন ধর্ষণ ও নারী নিপীড়নের মহামারী যুক্ত হয়েছে। দেশ পরিচালনায় সরকারের অকার্যকারীতায় উদ্বেগজনক সামাজিক নৈরাজ্য দেখা দিয়েছে। এর সাথে যুক্ত মূল্যবোধের গুরুতর অবক্ষয়। অতীতে অসংখ্য রোমহর্ষক ধর্ষণ ও হত্যার ঘটনায় অপরাধীরা পার পেয়ে যাওয়ায় নারী নির্যাতন ও ধর্ষণের ঘটনা বৃদ্ধি পেয়েছে।

তিনি ধর্ষণ ও নারীর প্রতি সহিংসতার ঘটনাসমূহ বিচারে বিশেষ ট্রাইবুন্যাল গঠন করে সম্ভব দ্রুততম সময়ের মধ্যে অপরাধীদের বিচারের দাবি জানান। তিনি বলেন, ধর্ষকদেরকে ‘ক্রসফায়ারে’ মেরে ফেলার চিন্তা ভয়ানক। আইনের শাসনে বিশ্ববাসী কোন সমাজ বিচার বহির্ভূত হত্যাকাণ্ডের দাবি অনুমোদন করতে পারে না।

তিনি হত্যা, গুম, ধর্ষণ, নিপীড়নের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ রাজনৈতিক ও সামাজিক প্রতিরোধ জোরদার করার আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares