শনিবার, এপ্রিল ১৭
শীর্ষ সংবাদ

সন্ত্রাসীদের গুলিতে দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ী নিহত

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: দক্ষিণ আফ্রিকায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে মো. বায়েজিদ (৩০) নামে এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। বুধবার (২৯ জানুয়ারি) রাতে দক্ষিণ আফ্রিকার পচেস্ট্রম শহরে নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তাকে গুলি করে হত্যা করে স্থানীয় সন্ত্রাসীরা। বায়েজিদের মৃত্যুতে জামালপুরের মাদারগঞ্জের তারতাপাড়ায় তার নিজ গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। দ্রুত বায়েজিদের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি স্বজনদের।

জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলার তারতাপাড়া মধ্যপাড়ার রুস্তম আলীর ছেলে বায়েজিদ। ভাগ্য বদলের আশায় ২০০৮ সালে পাড়ি জমিয়েছিলেন দক্ষিণ আফ্রিকায়। দীর্ঘদিনের প্রবাস জীবন শেষে এ বছরই একেবারে দেশে ফেরার কথা ছিল তার। কিছুদিন আগে ছুটি শেষে যাওয়ার সময় সে কথাই বলে গিয়েছিলেন বায়েজিদ। ছেলেকে হারিয়ে পাগলপ্রায় মা কইতরি বেগম। আর স্বামী হারিয়ে ৩ বছর বয়সী ছেলেকে নিয়ে শোকে ভেঙে পড়া স্ত্রী নিশা আক্তারের কান্না থামছে না কিছুতেই। ছেলের এমন মৃত্যুতে শোকে স্তব্ধ হয়ে পড়েছেন বায়েজিদের বাবা রুস্তম আলী। দ্রুত বায়েজিদের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি তাদের।

জানা যায়, পাঁচ মাসের ছুটি শেষে গত ২০ ডিসেম্বর দক্ষিণ আফ্রিকায় ফিরে যান বায়েজিদ। এক বছরের মধ্যে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বিক্রি করে দিয়ে একেবারে দেশে ফিরে আসার কথা ছিল তার। এর আগে ২০১৭ সালে একবার স্থানীয় সন্ত্রাসীদের হাতে অপহৃত হন বায়েজিদ। পরে তার পরিবার ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ পাঠালে সে যাত্রায় বেঁচে যান তিনি। কিন্তু গত ২৯ জানুয়ারি রাতে দক্ষিণ আফ্রিকার পচেস্ট্রমে নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধের ঠিক আগ মুহূর্তে সন্ত্রাসীদের গুলিতে মৃত্যু হয় তার।

নিহত বায়োজিদের স্ত্রী নিশি আক্তার বলেন, স্বামীকে তো হারিয়েছি, অন্তত তার তিন বছরের সন্তান যেন বাবার মুখ দেখতে পায় সেই জন্য মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের সহায়তা চাই।

নিহত বায়োজিদের বাবা রুস্তম আলী বলেন, কদিন আগেই দেশে এসে বায়োজিদ জানিয়েছিল সে একেবারেই আফ্রিকায় ব্যবসা গুটিয়ে চলে আসবে। কিন্তু সন্ত্রাসীদের গুলিতে ছেলের এমন মৃত্যু হবে তা ভাবতে পারি নাই, এখন সরকারের কাছে দাবি আমার ছেলের মরদেহ যেন দ্রুত দেশে ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করে।

জামালপুরের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ এনামুল হক পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করে দ্রুত বায়োজিদের মরদেহ দেশে ফিরিয়ে আনার আশ্বাস দিয়েছেন।


এখানে শেয়ার বোতাম