বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫
শীর্ষ সংবাদ

সত্যিকার অর্থে বাংলাদেশ স্বাধীন নয়: মির্জা ফখরুল

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 80
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সব মিলিয়ে বাংলাদেশ এখন বলা যেতে পারে এখন সত্যিকার অর্থেই স্বাধীন রাষ্ট্র বাংলাদেশ নয়।

রবিবার (১৭ জানুয়ারি) স্বাধীনতা সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন ঢাকা বিভাগীয় সমন্বয়ক কমিটির এক সভায় বিএনপি মহাসচিব এই অভিযোগ করেন। এদিন বিকালে শাহজাহানপুরে মির্জা আব্বাসের বাসায় স্বাধীনতার সূবর্ণজয়ন্তীর ঢাকা বিভাগীয় সমন্বয় কমিটির এই সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মির্জা ফখরুল বলেন, দুভার্গ্য আমাদের আজ ৫০ বছর পরে যখন আমরা সেই বছরটি পালন করতে যাচ্ছি আমরা দেখছি যে, আমাদের কোনও স্বাধীনতা নাই। আজকে আমাদেরে ন্যূনতম যে অধিকার, সংবিধান সম্মত যে অধিকার সেই অধিকার থেকে আমাদের বঞ্চিত করা হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করেন, পৌরসভা নির্বাচনে ‘ভোট ডাকাতি’ করে ক্ষমতাসীনরা দখল করেছে।

ফখরুল বলেন, ‘আপনারা দেখছেন যে, নির্বাচনগুলো কি হচ্ছে? পৌরসভা নির্বাচন গতকাল(শনিবার) হয়ে গেল। প্রত্যেকটি নির্বাচনে বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই তারা দখল করে নিয়ে গেল, ডাকাতি করে নিয়ে গেল। এমনকী খুন পর্যন্ত হয়েছে সিরাজগঞ্জে একজন কমিশনার। তিনি প্রায় ৮৫ ভাগ ভোট পেয়ে জিতেছেন। তাকে হত্যা করা হয়েছে।

ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশের একটি শ্রেণিকে বিপুল বিত্তের অধিকারী করা হচ্ছে। অন্যদিকে সাধারণ মানুষ তারা দারিদ্র্যের আরও অতলে চলে যাচ্ছে। আজকে আমাদের গণতন্ত্রকে লুন্ঠন করা হয়েছে, মানবাধিকার লুন্ঠন করা হয়েছে। সেই কারণে এই সূবর্ণজয়ন্তীকে আমরা অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে জনগণের সামনে তুলে ধরতে চাই। এদেশের জনগণের ১৯৭১ সালে যে আকাঙ্ক্ষা ছিল সেই আঙ্ক্ষাকাকে সামনে নিয়ে এসে জনগনকে ঐক্যবদ্ধ করতে চাই আমরা। আমরা এখানে সত্যিকার অর্থে একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র, গণতান্ত্রিক সমাজ এবং সকল মানুষের সমান অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে চাই-এই হবে আমাদের লক্ষ্য।’

বাংলাদেশে গভীর সংকট সৃষ্টি হয়ে্ছে- উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, এই সংকট শুধু রাজনৈতিক সংকট নয়, অর্থনৈতিক সংকট সৃষ্টি হয়েছে। সেই সংকট মানুষের ন্যূনতম বাস করবার যে পরিবেশ তার সংকট সৃষ্টি হয়েছে এবং স্বাধীনতার সংকট শুরু হয়েছে।

মির্জা আব্বাসের সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব ফজলুল হক মিলনের পরিচালনায় সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, স্বাধীনতা সূবর্ণজয়ন্তী উদযাপন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য সচিব আব্দুস সালাম, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য তৈমুর আলম খন্দকার, আফরোজা খানম রীতা, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল প্রমূখ উপস্থিত ছিলেন।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 80
    Shares