মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

শ্রম আইনের দৈনিক কর্মঘন্টা ও ওভার টাইম ধারা স্থগিত করায় শ্রমিক ফ্রন্টের নিন্দা

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 31
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি রাজেকুজ্জামান রতন ও সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব বুলবুল করোনা ঝুঁকির এই সময়ে দৈনিক কর্মঘন্টা এবং ওভারটাইম সংক্রান্ত শ্রম আইনের ১০০, ১০২ এবং ১০৫ নং ধারা স্থগিত করে সরকারি প্রজ্ঞাপন জারির করে শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ানোর নিন্দা এবং প্রজ্ঞাপন বাতিলের দাবি জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, সরকারের শ্রম মন্ত্রণালয়ের মজুরি বোর্ড বিভাগ ১৩ এপ্রিল তারিখ দিয়ে অর্থাৎ লকডাউনে সরকারি অফিস ছুটি হয়ে যাওয়ার আগের দিন শ্রম আইনের ৩২৪ ধারায় প্রদত্ত ক্ষমতাবলে দৈনিক কর্মঘন্টা এবং ওভারটাইম সংক্রান্ত শ্রম আইনের ১০০, ১০২ এবং ১০৫ নং ধারা ১৭ এপ্রিল থেকে পরবর্তী ৬ মাসের জন্য স্থগিত করে প্রজ্ঞাপন জারী করেছে। সরকারের এই প্রজ্ঞাপন মালিকদের হাতে শ্রমিকের উপর অতিরিক্ত চাপ তৈরী করে অল্প শ্রমিককে অধিক সময় খাটিয়ে উৎপাদন করানোর সুযোগ তৈরী করবে এবং মালিকদের শ্রমিকদেরকে চাকরিচ্যূত করার প্রবনতাকে উৎসাহিত করবে।

নেতৃবৃন্দ বলেন, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে সরকার কঠোর বিধি নিষেধ আরোপ করে সরকারি-বেসরকারী অফিস আদালত, মার্কেট, গণপরিবহনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করেছে। এই লক-ডাউনের মধ্যেও উৎপাদনের স্বার্থে কারখানা বন্ধ করা হয়নি। চাকরি হারানোর ভয়ে শ্রমিকরা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে হেঁটে কষ্ট করে উৎপাদন কাজ চালু রেখেছে। এই সময় শ্রমিকদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি কমানোর জন্য পর্যাপ্ত বিশ্রাম এবং ৮ ঘন্টা কাজের বিপরীতে জীবনধারণের জন্য প্রয়োজনীয় উপার্জন নিশ্চিত হওয়া জরুরী। যে সময়ে সরকারের দায়িত্ব ছিল শ্রমিকের স্বাস্থ্য সুরক্ষার জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করা, সেই সময় শ্রমিকদের জীবন ও স্বাস্থ্য ঝুঁকির বিষয়টি ন্যূনতম গুরুত্ব না দিয়ে জারিকৃত এই প্রজ্ঞাপন, অল্প শ্রমিকের উপর অতিরিক্ত কাজের বোঝা চাপিয়ে মুনাফা নিশ্চিত করার কৌশল কার্যকর করতে মালিকদের হাত কে শক্তিশালী করবে।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে শ্রমিক স্বার্থ বিরোধী এই প্রজ্ঞাপন বাতিলের আহবান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 31
    Shares