মঙ্গলবার, জানুয়ারি ১৯

শ্রমিক ছাঁটাই বন্ধ ও পূর্ণাঙ্গ বেতন-বোনাস প্রদানের দাবি

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: শ্রমিকদের ছাঁটাই বন্ধ, পূর্ণাঙ্গ বেতন-বোনাস প্রদান ও করোনা আক্রান্ত শ্রমিকদের সুচিকিৎসার ক্ষতিপূরণের দাবিতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে ১১টি গার্মেন্টস শ্রমিকদের জোট গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলন।

জোটের সমন্বয়ক মাহবুবুর রহমান ইসমাইল-এর সভাপতিত্বে আজ বেলা ১১.৩০টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত এই সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ ওএসকে গার্মেন্টস এন্ড টেক্সটাইল শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মোহাম্মদ ইয়াসিন, বাংলাদেশ গার্মেন্টস শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের উপদেষ্টা শামীম ইমাম, গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের নেত্রী আমেনা আক্তার, গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি মাসুদ রেজা, বিপ্লবী গার্মেন্টস শ্রমিক সংহতির সভাপতি মাহমুদ হোসেন, বাংলাদেশ সোয়েটার গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের সভাপতি এএএম ফয়েজ হোসেন, গার্মেন্টস শ্রমিক সভা সভাপতি শামসুজ্জোহা প্রমুখ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, করোনা দুর্যোগের মধ্যে মালিকদের অবহেলার শিকার হয়ে বেতন-বোনাস কর্তন, ছাঁটাই, লে-অফের যন্ত্রণার মধ্যে শ্রমিকরা ঈদ অতিবাহিত করছে। এপ্রিল, মে ও জুন মাসের শ্রমিকদের বেতন পরিশোধের জন্য সরকারের নিকট হতে ৫,০০০ কোটি টাকার প্রণোদনা নিয়েও বেতন পরিশোধে টালবাহানা করেছেন অনেক গার্মেন্টস মালিক। এখন জুলাই, আগষ্ট ও সেপ্টেম্বর মাসের বেতন পরিশোধের কথা বলে আরও ৭,৫০০ কোটি টাকা আদায়ে গার্মেন্টস মালিকরা তৎপরতা চালাচ্ছে। মালিকদের স্বার্থরক্ষাকারী সরকারও এই ব্যাপারে ইতিবাচক। অথচ আসন্ন ঈদুল আজহার আগেও আশঙ্কা করা হচ্ছে বেতন-বোনাস পরিশোধে ব্যর্থ হতে পারে ৭৯০টি কারখানা।

এছাড়াও সরকার পরিকল্পিতভাবে রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলগুলোকে চূড়ান্তভাবে বন্ধ ও ব্যক্তিমালিকানায় হস্তান্তর করে নিজেদের লুটপাট ও ষড়যন্ত্রকে ধামাচাপা দিতে শ্রমিকদের ঘাড়ে দোষ চাপিয়ে বিশ্বব্যাংক আইএমএফ’র পরিকল্পনা বাস্তবায়নের শ্রমিক ও জাতীয় স্বার্থবিরোধী চেষ্টার তীব্র প্রতিবাদ জানান গার্মেন্টস শ্রমিক অধিকার আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ।


এখানে শেয়ার বোতাম