বুধবার, ফেব্রুয়ারি ২৪
শীর্ষ সংবাদ

শেখ হাসিনাকে দৃশ্যপট থেকে সরিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে: তথ্যমন্ত্রী

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলায় ব্যর্থ হয়ে আওয়ামী লীগ সভাপতিকে দৃশ্যপট থেকে সরিয়ে দেওয়ার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) রাজধানীতে জাতীয় শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে ‘শেখ হাসিনা বাংলাদেশের স্বপ্নসারথী’ শীর্ষক আলোকচিত্র ও শিল্পকর্মের মাসব্যাপী প্রদর্শনী উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী এ অভিযোগ করেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুকে যখন তার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে ব্যর্থ হয়, তখন হত্যার পথ বেছে নেয়। আজকেও শেখ হাসিনার রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ তাকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবিলা করতে পারতো, কিন্তু রাজনৈতিকভাবে ক্রমাগতভাবে তারা পরাজিত হয়েছে। তাই তারা ষড়যন্ত্রের পথ বেছে নিয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আজকে শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র আছে। বঙ্গবন্ধুর বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হয়েছিল। আজকেও তার বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র আছে।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা শুধু শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত রাষ্ট্র নয়, একটি উন্নত জাতি গঠন করতে চাই। তাই সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে ষড়যন্ত্রের দাঁতভাঙা জবাব দিতে হবে।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ গত সাড়ে ১০ বছরের মধ্যে অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধিতে পৃথিবীতে সর্বোচ্চ। তার নেতৃত্বে খাদ্য-উদ্বৃত্ত দেশে রূপান্তরিত হয়েছে বাংলাদেশ। আমরা মৎস্য উৎপাদনে পৃথিবীতে চতুর্থ। ছোট্ট একটি দেশ এভাবে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে সক্ষমতা প্রদর্শন করেছে, তা পৃথিবীর সামনে উদাহরণ।’

বিশ্বনেতারা শেখ হাসিনার প্রশংসায় পঞ্চমুখ দাবি করে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, ‘শেখ হাসিনা হচ্ছেন উন্নয়ন-অগ্রগতির নায়ক। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বপ্ন দেখেছিলেন বাংলাদেশকে একটি সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত করার, একটি উন্নত দেশে রূপান্তরিত করার। বঙ্গবন্ধু যদি বেঁচে থাকতেন তাহলে অনেক আগেই বাংলাদেশ একটি উন্নত-সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত হতো। বর্তমানে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণের পথে বাংলাদেশ দুর্বার গতিতে এগিয়ে চলছে।’

শিল্পকলা অ্যাকাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জাতীয় অধ্যাপক ড. রফিকুল ইসলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যাললের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক প্রমুখ।


এখানে শেয়ার বোতাম