শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭
শীর্ষ সংবাদ

শেকৃবি শিক্ষার্থীদের দু’গ্রুপের সংঘর্ষ, আহত ১৩

এখানে শেয়ার বোতাম

শেকৃবি প্রতিনিধি :: শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে (শেকৃবি) দুই আঞ্চলিক গ্রুপের শিক্ষার্থীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে ১৩ শিক্ষার্থী আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এসময় দায়িত্বরত বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সাংবাদিককেও লাঞ্ছিত করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আজ মঙ্গলবার সকাল ১১টায় প্রথম বর্ষে ভর্তি হতে আসা এক নবীন শিক্ষার্থীকে নিয়ে কুমিল্লা এবং ঢাকা- দুই আঞ্চলিক গ্রুপ টানাটানি শুরু করে। এরপর হাতাহাতি এবং ধাওয়া-পাল্টা শুরু হয়। পরে ইট-পাটকেল নিক্ষেপও করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন আহতরা। কুমিল্লা গ্রুপের দাবি, ওই হামলার সময় তাদের অনুসারী ইয়াছিন, বাপ্পি, তানভির, ফাহিম মুতাছি এ ঘটনায় আহত হয়েছেন।

পরবর্তীতে দুপুর ১টার দিকে কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের সামনে পুনরায় দুই গ্রুপ সংঘর্ষে জড়ায়। এসময় পেপার স্প্রে ব্যবহার করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে কুমিল্লা গ্রুপের ২০১৯ শিক্ষাবর্ষের আরিফুল ইসলাম, ২০১৮ শিক্ষাবর্ষের ফরহাদ, জয় শাহা এবং ঢাকা গ্রুপের ২০১৭ শিক্ষাবর্ষের মিজানুর রহমান বুলবুল, ২০১৯ শিক্ষাবর্ষের সৌমিক দাস প্রান্ত, সারোয়ার গুরুতর আহত হয়েছে। তারা সবাই সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানা গেছে। এছাড়া ঢাকা গ্রুপের নিলয়, অনিক আহত হয়েছেন।

এ বিষয়ে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. ফরহাদ হোসেন জানান, ‘এ পর্যন্ত আমাদের কাছে কোনো লিখিত অভিযোগ আসেনি। আমরা তদন্ত কমিটি গঠন সাপেক্ষে দোষীদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করব”।

এদিকে দুপুর ১২টার দিকে কেন্দ্রীয় অডিটোরিয়ামের পিছনে লাইনে দাঁড়ানোকে কেন্দ্র করে উত্তরাঞ্চল ও ময়মনসিংহ গ্রুপের সংঘর্ষ হয়। এসময় বিশ্ববিদ্যালয়ের কর্মরত বাংলাদেশ প্রতিদিনের সাংবাদিক ওলী আহম্মেদ দায়িত্ব পালনকালে সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে তাকে লাঞ্ছিত করে মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়।

সাংবাদিক লাঞ্ছনার ঘটনায় বিচার দাবি করে প্রতিবাদলিপি দিয়েছে শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি।


এখানে শেয়ার বোতাম