রবিবার, জানুয়ারি ২৪

শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে শাবিপ্রবি’র সহকারী অধ্যাপক ও তার স্বামী আটক

এখানে শেয়ার বোতাম

সিলেট প্রতিনিধি::

বার বছরের এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে শাবিপ্রবির লোকপ্রশাসন বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন ও তার স্বামী সোহাগকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার রাতে কোতোয়ালী থানা পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।

জানা গেছে, গত দুই সপ্তাহ ধরে ১২ বছরের কিশোরী গৃহকর্মীকে নানা অজুহাতে বেধড়ক মারপিট করে আসছিলেন অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিন ও স্বামী সোহাগ। কয়েকদিন আগে লোহার জিআই পাইপ দিয়েও নির্মমভাবে মেরে তাকে আটকে রাখেন বাসায়। বৃহস্পতিবার (৩০ জুলাই) দুপুরে ঘরের দরজা খোলা পেয়ে ওই গৃহকর্মী তাদের বাসা থেকে পালিয়ে আসে এবং পাশের বাসার আরেক গৃহকর্মীর সহযোগিতায় ৯৯৯ এ কল দিয়ে পুলিশকে নির্যাতনের কথা জানায়।

পরে পুলিশ দ্রুত গিয়ে সিলেট আখালিয়া সুরমা আবাসিক এলাকার রেনেসা ১১ নম্বর বাসা থেকে ওই দম্পতিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সিলেট কোতোয়ালি থানায় নিয়ে আসে।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সেলিম মিয়া জানান- গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগ পেয়ে বিকেলে পুলিশ অধ্যাপক সাবিনা ইয়াসমিনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসে। এরপর রাত ১২টার দিকে গৃহকর্মী শিশুটির বাবা আবুল কাশেম বাদি হয়ে শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করলে ওই মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে থানা হাজতে প্রেরণ করে।

ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল থেকে এসআই ফারুক জানান- নির্যাতিত শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে চিকিৎসা দিয়ে ছেড়ে দিয়েছেন।

এদিকে মামলার সত্যতা নিশ্চিত করে নির্যাতিতা গৃহকর্মীকে ওসমানী হাসপাতালে চিকিৎসা শেষে পুলিশের ভিকটিম সার্ভিস সেন্টারে রাখা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সিলেট মহানগর পুলিশের উপ পুলিশ কমিশনার (উত্তর) আজবাহার আলী শেখ।


এখানে শেয়ার বোতাম