বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ৩

রাষ্ট্রীয় পাটকল চালুর দাবিতে ১৯ অক্টোবর সারাদেশে রাজপথ অবরোধ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 146
    Shares

নিজস্ব প্রতিবেদক:: রাষ্ট্রীয় পাটকল চালু ও আধুনিকায়ন করার দাবিতে আগামী ১৯ অক্টোবর সারাদেশে রাজপথ অবরোধ কর্মসূচি সফল করা এবং সারাদেশে নারী ধর্ষণ-নির্যাতন প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন বাম জোটের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

সারাদেশে অব্যাহত নারী ধর্ষণ-নির্যাতন, পাটকল চালুর দাবিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় ঘেরাও মিছিলে পুলিশী হামলার ও খুলনায় পুলিশী তল্লাশী ও গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে আজ ৬ অক্টোবর বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ এই আহবান জানান।

বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় সমন্বয়ক ও বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড বজলুর রশীদ ফিরোজ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জোটের কেন্দ্রীয় নেতা বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি-সিপিবি’র সহকারী সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাজ্জাদ জহির চন্দন, বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য কমরেড রাজেকুজ্জামান রতন, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশাররফ হোসেন নান্নু, বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য বহ্নিশিখা জামালী, বাসদ (মার্কসবাদী) কেন্দ্রীয় নেতা কমরেড মানস নন্দী, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক, গণতান্ত্রিক বিপ্লবী পার্টির নেতা শহিদুল ইসলাম সবুজ। সমাবেশ পরিচালনা করেন বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য আকবর খান।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, অবৈধ ভাবে রাষ্ট্র ক্ষমতা দখল প্রক্রিয়ায় প্রশাসন কে ব্যবহার, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা হরণ এবং বিরোধী মতকে দমন করার ফল হিসাবে আজ সারাদেশে একদিকে অবাধে রাষ্ট্রীয় সম্পদ লুটপাট, অন্যদিকে ক্ষমতার দম্ভের প্রকাশ আর অপরাধ করলেও শাস্তি হবেনা এইরূপ প্রশ্রয় থেকে সারাদেশে নারী ধর্ষণ-নির্যাতনের মত অমানবিক ঘটনা মারাত্মক আকার ধারণ করেছে। ক্ষমতাসিন দলের সাধারণ সম্পাদক নিজেই স্বীকার করেছেন আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির এই অবনতির দায় সরকার এড়াতে পারে না অথচ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অন্যদেশের তুলনা দিয়ে ধর্ষণ-নির্যাতনক বৈধতা দেয়ার চেষ্টা করছেন। নেতৃবৃন্দ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর দায়িত্বহীন মন্তব্যের নিন্দা জানান এবং তার পদত্যাগ দাবি করেন।

নেতৃবৃন্দ রাষ্ট্রীয় পাটকলসমূহ আধুনিকায়ন করে চালু করার দাবিতে আগামী ১৯ অক্টোবর ২০২০ সারাদেশে রাজপথ অবরোধ কর্মসূচি সফল করার আহ্বান জানান। নেতৃবৃন্দ গতকালের প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় ঘেরাও মিছিলে পুলিশী হামলা ও খুলনার খালিশপুরে বাসদ কার্যালয়ে পুলিশী তল্লাসী ও গ্রেপ্তার-হুমকির তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, গ্রেপ্তার-নির্যাতনের ভয় দেখিয়ে জনগণের আন্দোলনকে দমানো যাবে না। পাটকল চালু ও আধুনিকায়নের দাবিতে এবং সারাদেশে অব্যাহত ধর্ষণ-নির্যাতনের বিরুদ্ধে ছাত্র সংগঠন-নারী-যুব-সাংস্কৃতিক সংগঠনসহ সকল শ্রেণি পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তোলারও আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 146
    Shares