শনিবার, মার্চ ৬
শীর্ষ সংবাদ

রংপুরে ব্র্যাক অফিসে স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: রংপুরের পীরগাছায় স্ত্রীকে কুপিয়ে হত্যার পর আত্মহত্যা করেছেন স্বামী আব্দুল্লাহ আল মাসুদ স্বপন (২৮)। সোমবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে উপজেলার চৌধুরানী ব্র্যাক অফিসের ভেতরে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত তাসলিমা আক্তার রুনি (২৩) ব্র্যাকের ক্যাশিয়ার পদে কর্মরত ছিলেন। স্বামী আব্দুল্লাহ আল মাসুদ স্বপন (২৮) গাইবান্ধার বল্লমঝাড় এলাকার সামসুল আলম মাস্টারের ছেলে। পারিবারিক বিরোধের জেরে এ ঘটনা ঘটতে পারে বলে ধারণা করছে পুলিশ।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ব্র্যাকের চৌধুরানী শাখার ক্যাশিয়ার তাসলিমা আক্তার রুনি সকাল থেকে নিজের অফিসে বসে কাজ করছিলেন। বেলা ১২টার দিকে তার স্বামী আব্দুল্লাহ আল মামুদ স্বপন ওই অফিসে ঢুকে তাকে আলাদা একটি কক্ষে নিয়ে গিয়ে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এরপর নিজে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে সিলিং ফ্যানের সঙ্গে আত্মহত্যা করেন স্বপন।

পরে এলাকার লোকজন রুনিকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে স্বপনের মরদেহ উদ্ধার করে।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে পীরগাছা থানা পুলিশের এসআই বুলবুল হাসান জানান, পীরগাছার সুবিদ গ্রামের তোজাম্মল হোসেনের মেয়ে রুনির সঙ্গে গাইবান্ধার বল্লমঝাড়ের সামসুল ইসলামের ছেলে স্বপনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্ত্রীকে রেখে কয়েক বছর বিদেশে থাকেন স্বপন। ছয় মাস আগে দেশে ফিরলেও রুনি তার কাছে যাননি। আর্থিক বিষয়ে নানা টানপোড়েনের কারণে স্বপন এ ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে বলে ধারণা করছেন তারা।


এখানে শেয়ার বোতাম