শনিবার, ডিসেম্বর ৫

রংপুরে ছাত্র অধিকার পরিষদের সমাবেশে মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের বাধা

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) ভিপি নুরুল হক নুরসহ তার সঙ্গীদের ওপর হামলার প্রতিবাদে রংপুরে ছাত্র অধিকার আন্দোলনের প্রতিবাদ সমাবেশ কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।

পাশাপাশি ব্যানার ও ফেস্টুন ছিনিয়ে নিয়ে সমাবেশ পণ্ড করে দিয়েছে তারা। সোমবার দুপুরে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে এ ঘটনা ঘটে। তবে অভিযোগ অস্বীকার করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা।

রংপুর জেলা ছাত্র অধিকার আন্দোলনের নেতাকর্মীরা জানান, ডাকসু ভিপি নুরসহ ছাত্র অধিকার আন্দোলনের নেতাকর্মীদের ওপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে হামলার প্রতিবাদে সোমবার দুপুর ১২টার দিকে রংপুর প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করার ঘোষণা দেন তারা। প্রেসক্লাবের সামনে থেকে বিক্ষোভ মিছিল বের করে তারা আশপাশের এলাকা প্রদক্ষিণ করেন। এ সময় তারা ডাকসু ভিপিসহ নেতাকর্মীদের ওপর হামলার জন্য ছাত্রলীগ ও মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের নেতাকর্মীদের দায়ী করে তাদের গ্রেফতারসহ বিভিন্ন দাবিতে স্লোগান দেন। বিক্ষোভ মিছিল শেষে তারা প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন করার জন্য সমবেত হন।

এ সময় মুক্তিযোদ্ধা মঞ্চের পরিচয়দানকারী কয়েকজন যুবক এসে সমাবেশে হুমকি দিতে শুরু করে বলেন, কাউকে ‘ভারতের দালাল’ বলা যাবে না এবং সরকারবিরোধী কোনো বক্তব্য দেয়া যাবে না। ছাত্র অধিকার আন্দোলনের নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ করলে এ নিয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে ওই যুবকদের সঙ্গে আরও কয়েকজন যোগ দিয়ে ছাত্র অধিকার আন্দোলনের কর্মীদের হাতে থাকা ব্যানার কেড়ে নিয়ে তাদের প্রেসক্লাব এলাকা ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য গালাগালি ও ধাক্কাধাক্কি শুরু করে।

এক পর্যায়ে তারা মানববন্ধন পণ্ড করে দেয়। ফলে বাধ্য হয়ে মানববন্ধনকারীরা প্রেসক্লাব এলাকা ছেড়ে চলে যান।

এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে ছাত্র অধিকার আন্দোলন রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়কারী হানিফ খান বলেন, আমরা সরকারের বিরুদ্ধে কোনো ধরনের আপত্তিকর স্লোগান দেইনি। আমরা ডাকসুর ভিপিসহ আমাদের সংগঠনের নেতাকর্মীদের ওপর হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবিতে শান্তিপূর্ণভাবে বিক্ষোভ ও মানববন্ধন করতে চেয়েছি। এ সময় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের কয়েকজন নেতাকর্মী এসে ব্যানার ছিনিয়ে নিয়ে আমাদের সরিয়ে দেয়।

এ বিষয়ে হামলায় নেতৃত্বদানকারী মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের রংপুর বিভাগীয় সমন্বয়কারী পরিচয় দিয়ে আল-আমিন নামে এক যুবক বলেন, ওরা সরকার বিরোধী কর্মকাণ্ড করায় আমরা নিষেধ করেছি মাত্র।


এখানে শেয়ার বোতাম