মঙ্গলবার, জানুয়ারি ২৬

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিনিধি পরিষদে ‘নো ব্যান অ্যাক্ট’ পাস

এখানে শেয়ার বোতাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: যুক্তরাষ্ট্রে মুসলিম অধ্যুষিত দেশের নাগরিকদের প্রবেশাধিকার যেনো ফের কেউ বিশেষ নির্বাহী আদেশ জারি করে বন্ধ করতে না পারে, সে লক্ষে যুক্তরাষ্ট্র কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে ‘নো ব্যান অ্যাক্ট’ নামে একটি বিল পাশ হয়েছে। খবর বিবিসি।

এদিকে, নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদে ২৩৩-১৮৩ ভোটে বিলটি পাস হয়। প্রতিনিধি পরিষদের সব ডেমোক্রেট সদস্য বিলটি পাসের পক্ষে ভোট দিয়েছেন। ওই বিলের অন্যতম উদ্যোক্তা ছিলেন কংগ্রেসওম্যান গ্রেস মেং।

এ ব্যাপারে মেং বলেন, মুসলমানদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে নির্বাহী আদেশ জারির পর থেকেই তিনি আন্দোলনকারীদের পক্ষে রয়েছেন। সকলকে ট্রাম্পের মুসলিম বিদ্বেষী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। এমন নিষ্ঠুরতাকে যুক্তরাষ্ট্রের সংবিধানও প্রশ্রয় দেয় না। এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত সকলকে অভিনন্দন জানান তিনি। কংগ্রেসের উচ্চকক্ষেও বিলটি পাস করার জন্য সিনেট সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

‘নো ব্যান অ্যাক্ট’ উচ্চকক্ষ সিনেটে পাস হওয়ার পর প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের স্বাক্ষরের জন্য পাঠানো হবে ।

তবে, তা সম্ভব হওয়া দূরহ বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। সেক্ষেত্রে পুনরায় দুই-তৃতীয়াংশ ভোটে বিলটি পাস করতে হবে কংগ্রেসকে। যার মাধ্যমে ট্রাম্পের ভেটো অকার্যকর হয়ে বিলটি আইনে পরিণত হবে।

এর আগে, ডোনাল্ড ট্রাম্প ২০১৭ সালের ২০ জানুয়ারি প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের কয়েক দিনের মধ্যেই ইরান, লিবিয়া, সোমালিয়া, সিরিয়া, ইয়েমেন, চাদ, উত্তর কোরিয়া, নাইজেরিয়া, সুদান, মিয়ানমার ও ভেনেজুয়েলার নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষিদ্ধ করে নির্বাহী আদেশ জারি করেছিলেন। সেই আদেশের বাস্তবায়ন এখনও আদালতে ঝুলে রয়েছে।

অন্যদিকে, ২০২০ সালের মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্প জয়ী হতে পারলে ফের মুসলিম অধ্যুষিত দেশসহ ট্রাম্পের ‘অপছন্দের’ কিছু দেশের নাগরিকদের ভিসা নিষিদ্ধের আদেশ জারি করবেন কি না – সেই শঙ্কা থেকেই এই ‘নো ব্যান অ্যাক্ট’ বিল পাস করা হয়েছে।

পাশাপাশি, প্রতিনিধি পরিষদে ‘নো ব্যান অ্যাক্ট’ বিলটি পাস হওয়ায় সন্তোষ জানিয়েছে মুসলিম বার অ্যাসোসিয়েশন অব নিউইয়র্ক এবং সাউথ এশিয়ান বার অ্যাসোসিয়েশন।


এখানে শেয়ার বোতাম