শনিবার, ফেব্রুয়ারি ২৭
শীর্ষ সংবাদ

মৌলভীবাজারে জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদের নতুন কমিটি

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: ‘আপন হতে বাহির হয়ে বাইরে দাঁড়া, বুকের মাঝে বিশ্বলোকের পাবি সাড়া’ রবীন্দ্রনাথের এই অমর বাণীকে ধারণ করে শনিবার (২৪ আগস্ট) জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ্ মৌলভীবাজারে দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন স্থানীয় পৌর মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সম্মেলনে ডা. দিলশাদ পারভীনকে সভাপতি এবং অরুণ কুমার দাশকে সাধারণ সম্পাদক করে নতুন কার্যকরী কমিটি গঠিত হয়। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন- সহসভাপতি : শীলা তালুকদার, বিশ্বজিত ঘোষ অ্যাডভোকেট ও সৈয়দ সলমান আলী। সম্পাদক : সমীরণ দেব শুভ্র, সুপ্রিয়া মিশ্র, মাধুরী রায়, অনিমেষ চৌধুরী ও উপমা উর্বশী। কোষাধ্যক্ষ : আব্দুল মুকিত মাইনু অ্যাডভোকেট।

সদস্য : সমর কান্তি দাস চৌধুরী অ্যাডভোকেট, রনধীর রায়, সুধাময় রায় অ্যাডভোকেট, ভূষণজিৎ চৌধুরী অ্যাডভোকেট, দীপংকর মোহান্ত, শাহাদাৎ হোসাইন, হাসানাত কামাল, ডা. অঞ্জন কুমার দাশ, নমিতা রায় রাখি এবং মহাদেব কর্মকার। উপদেষ্টামন্ডলী : ছায়া রায়, ডা. এম এ আহাদ, সৈয়দ আব্দুল মোতালিব রঞ্জু, আকমল হোসেন নিপু, তৃপ্তি চক্রবর্তী, প্রফেসর আব্দুল খালিক ও আব্দুল মতিন।

বিকেল চারটায় জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে সম্মেলন শুরু হয়। ডা. দিলশাদ পারভীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সম্মেলনের প্রথম পর্বে কেন্দ্রীয় কমিটির প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতীক এন্দ এবং নওরোজ সাঈদ। এ পর্বে আলোচনায় অংশ নেন পরিষদের সদস্যরা।

দ্বিতীয় পর্বে বিশ্বজিত ঘোষ অ্যাডভোকেট সভাপতিত্ব করেন। সকলের সম্মতিক্রমের নব-নির্বাচিত কমিটি গঠন করা হয়। সবশেষে রবীন্দ্র সঙ্গীত পরিবেশন করেন শিল্পীরা। সার্বিক অনুষ্ঠান সমন্বয় করেন ডা. এম এ আহাদ।

নব-নির্বাচিত কমিটির সভাপতি ডা. দিলশাদ পারভীন বলেন, ‘বিশ্বায়নের যুগে এখন আমরা আত্ম-কেন্দ্রিক চিন্তা-চেতনায় বিভোর। ফলে বিশ্বলোকের অনুপম সৌন্দর্য্যরাশি অবলোকন করার যেমন সময় পাইনা –তেমনই সেই বৈচিত্র্যের মধ্যে ঐক্যের তানও খোঁজি না। অথচ বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর আমাদের মনন-চোখে সে আলো প্রস্ফুটিত করার কথা বলে গেছেন বরাবর। এই আলোর অভাবে সহস্রাব্দের দোয়ারে দাঁড়িয়ে থাকা পৃথিবী প্রতিক্ষণ স্নাত হচ্ছে হিংসা, নিন্দা ও সংঘাতে। এই অবস্থা উত্তরণে রবীন্দ্র চেতনা ধারণ ও চর্চা অপরিহার্য। আর তার জন্য কাজ করে যাচ্ছে মৌলভীবাজার রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ। দ্বিবার্ষিক সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি রবীন্দ্র চেতনা সবার মাঝে ছড়িয়ে দিতে আরও গঠনমূলক ভুমিকা রাখতে পারবে আশা করছি।’


এখানে শেয়ার বোতাম