শনিবার, নভেম্বর ২৮

মাস্ক কেলেঙ্কারি: গ্রেপ্তারের পর রিমান্ডে জেএমআই চেয়ারম্যান

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 42
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: করোনা মহামারির শুরুতে ভুয়া মাস্ক সরবরাহ করার অভিযোগে জেএমআই গ্রুপের চেয়ারম্যান পাঁচ দিনের রিমান্ডে।

এন-৯৫ মাস্কের মোড়কে ভুয়া মাস্ক সরবরাহ করার অভিযোগে জেএমআই হসপিটাল রিক্যুইজিট ম্যানুফ্যাকচারিং লিমিটেডের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বিকেলে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েসের আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করে।

এর আগে, আব্দুর রাজ্জাককে আদালতে তুলে রিমান্ড আবেদন জানায় দুদক। রিমান্ড আবেদনের আগে দুপুরে দুদক পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে একটি টিম চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাককে রাজধানীর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে।

গ্রেপ্তারের আগে চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাকসহ মোট সাতজনের বিরুদ্ধে দুদকের উপ-পরিচালক নুরুল হুদা মামলা করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন, কেন্দ্রীয় ঔষধাগার-সিএমএইচডি’র উপপরিচালক জাকির হোসেন, সহকারী পরিচালক শাহজাহান সরকার, চিফ কো-অর্ডিনেটর জিয়াউল হক, ডেস্ক অফিসার সাব্বির আহমেদ, স্টোর অফিসার কবির আহমেদ, সিনিয়র স্টোর কিপার ইউসুফ ফকির।

করোনা মহামারিকালে চিকিৎসক-নার্স এবং অন্যদের সুরক্ষায় এন-৯৫ মাস্ক সরবরাহের জন্য জেএমআই গ্রুপের সঙ্গে চুক্তি করেছিল সরকার। কিন্তু, যাচাই করে পণ্য গ্রহণ করার কথা থাকলেও পরস্পরের যোগসাজশে নকল মাস্ক সরবরাহ করে চিকিৎসক ও নার্সদের ঝুঁকিতে ফেলা হয়েছে বলে মন্তব্য করেন দুদক সচিব।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 42
    Shares