সোমবার, নভেম্বর ৩০

মসজিদের অর্থ আত্মসাতকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবীতে জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন

এখানে শেয়ার বোতাম

সিলেট প্রতিনিধি :: সিলেট সদর উপজেলার বড়শালা মসজিদের অর্থ আত্মসাতকারীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবীতে জেলা প্রশাসকের কাছে অভিযোগ মসজিদের অর্থ আত্মসাত, দূর্নীতি, অনিয়ম ও স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ এনে সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবরে অভিযোগ করেছেন সিলেট সদর উপজেলার বড়শালা এলাকাবাসী।

রোববার জেলা প্রশাসক কাজী এমদাদুল ইসলাম-এর সাথে সাক্ষাত করে এলাকাবাসী এ লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন (যার ডকেট নং- ৬১ তাং-১৭.১১.২০১৯)।

এলাকাবাসী সিলেট সদর উপজেলার বড়শালা গ্রামের এয়ারপোর্ট রোডের ফয়জুল হক বতুশা-এর বিরুদ্ধে অনিয়ম, দূনীতি, ভয়-ভীতি প্রদর্শনসহ এলাকার প্রাচীনতম বড়শালা জামে মসজিদ পরিচালনায় স্বেচ্ছাচারীতামুলক আচরণের অভিযোগ আনেন। তারা অভিযোগ করেন ফয়জুল হক বতুশা স্বঘোষিত সেক্রেটারি হিসেবে দীর্ঘ ১৮ বছর যাবৎ মসজিদের সেক্রেটারির পদ দখল করে আছেন। তিনি এলাকাবাসীর মতামতের তোয়াক্কা না করে নিজের খেয়ালখুশীমত নিজের পছন্দের লোক দিয়ে কমিটি গঠন করে মসজিদের লক্ষ লক্ষ টাকা আত্মসাত করছেন।

অভিযোগপত্রে এলাকাবাসী বড়শালা গ্রামের প্রাচীন জামে মসজিদ রক্ষা ও মসজিদের লক্ষ লক্ষ টাকা উদ্ধারে জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করেন। এসময় এলাকাবাসীর পক্ষে উপস্থিত ছিলেন ও লিখিত আবেদনে স্বাক্ষর করেন, মো. লয়লু, মো. সাইফুল ইসলাম (লিটন), মো. আলমগীর আহমদ, মো. মলিক আহমদ, মো. সাজলু মিয়া সাজু, আব্দুস সামাদ, মানিক মিয়া, মো. রুবেল, ইশফাক আহমদ চৌধুরী, মো. রায়হান, মো. আবুল কালাম, মো. রাজ্জাক হোসেন, সরফ আলী, আনা মিয়া, রাজু, মো. আউয়াল আলী, মো. সেলিম মিয়া, আব্দুল মুতালিবসহ এলাকার প্রবীণ ব্যক্তিবর্গ।


এখানে শেয়ার বোতাম