মঙ্গলবার, মার্চ ৯
শীর্ষ সংবাদ

ভারতের সাথে অসম চুক্তি বাতিলসহ বিভিন্ন দাবিতে বগুড়ায় বাম জোটের মিছিল

এখানে শেয়ার বোতাম

বগুড়া প্রতিনিধি :: বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসাবে বগুড়া জেলার উদ্যোগে ভারতের সাথে অসম চুক্তি বাতিল, আবরার হত্যার বিচার, দুর্নীতি, লুটপাট উচ্ছেদের দাবিতে সাতমাথায় মানববন্ধন সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

আজ বুধবার (২৩ অক্টোবর) সকাল ১১ টায় অনুষ্ঠিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাম গণতান্ত্রিক জোট বগুড়া জেলা সমন্বয়ক, সিপিবি জেলা সভাপতি জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না, বক্তব্য প্রদান করেন বাসদ বগুড়া জেলা আহ্বায়ক অ্যাড. সাইফুল ইসলাম পল্টু, মুক্তিযোদ্ধা মাহফুজুল হক দুলু, সিপিবি জেলা সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ফরিদ, বাসদ বগুড়া জেলা সদস্য মাসুদ পারভেজ, গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বক আব্দুর রশিদ, বাসদ মার্কসবাদী জেলা সদস্য আমিনুল ইসলাম প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

সভাপতির বক্তব্যে জিন্নাতুল ইসলাম জিন্না বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফরকালে বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত ৭ দফা চুক্তি ও সমঝোতা স্বারক এবং ৫৩ দফা যৌথ ঘোষণার মাধ্যমে ভারতের স্বার্থকেই প্রাধান্য দেয়া হয়েছে এবং বাংলাদেশের স্বার্থকে উপেক্ষা করা হয়েছে। কারণ তিস্তাসহ ৫৪টি অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আদায়, টিপাইমুখে বাঁধ, আন্তঃনদী সংযোগ প্রকল্প, বাণিজ্য ঘাটতি নিরসন, সীমান্তে হত্যাকা- বন্ধসহ অমীমাংসিত নানা ইস্যুতে কোন চুক্তি বা ঘোষণা এই সফরকালে সম্পাদিত হয়নি। তিস্তার পানি না পেলেও উল্টো ফেনী নদীর পানি ভারতকে দেয়া, বাংলাদেশের সমুদ্রসীমায় ভারতকে নজরদারি করার অনুমতি দেয়া, যৌথ ঘোষণায় রোহিঙ্গা শব্দ বাদ দেয়া, এনআরসি প্রসঙ্গ না থাকা, ভারতে এলএনজি রপ্তানির চুক্তি এবং ভারত থেকে আরো ১০০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করার মাধ্যমে এই সফরে সম্পাদিত চুক্তি, সমঝোতা স্মারক ও ঘোষণায় ভারতের স্বার্থকেই সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে এবং বাংলাদেশের স্বার্থকে উপেক্ষা করা হয়েছে। অন্যদিকে এই চুক্তির সাথে ভিন্নমত প্রকাশ করায় আবরার ফাহাদকে হত্যা করা হলো এবং এখন চলছে ছাত্র রাজনীতি বন্ধের পাঁয়তারা।” তিনি অবিলম্বে এই অসম চুক্তি বাতিল ও আবরার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার দাবি জানান এবং ছাত্র রাজনীতি বন্ধের চক্রান্ত বন্ধের দাবি জানান।

অ্যাড. সাইফুল ইসলাম পল্টু বলেন, “ বাংলাদেশ-ভারত দুই দেশের মধ্যে সম্পাদিত ৭ দফা চুক্তি ও সমঝোতা স্বারক এবং ৫৩ দফা যৌথ ঘোষণার মাধ্যমে শুধুমাত্র ভারতের স্বার্থই দেখা হয়নি সরকারের নতজানু পররাষ্ট্রনীতি আরো নগ্নভাবে প্রতিফলিত হয়েছে। যা একটি স্বাধীন সার্বভৌম দেশের আত্মমর্যাদা সম্পন্ন জাতি হিসেবে অপমানজনক বিষয়।” সেইসাথে তিনি বলেন, “দীর্ঘদিন ধরেই ছাত্র লীগ বুয়েট ক্যাম্পাস ও হল দখল করে প্রশাসনের নাকের ডগায় সন্ত্রাসী কার্মকান্ড চালিয়ে আসছে। ইতিপূর্বে তারা ক্যাম্পাসে সমাজাতিন্ত্রক ছাত্র ফ্রন্টসহ প্রগতিশীল সকল ছাত্র ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের কর্মকান্ডে অলিখিত নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে। হলে হলে টর্চার সেল বানিয়েছে। বুয়েট ক্যাম্পাসকে তোলাবাজি-টেন্ডারবাজি ও সন্ত্রাসের অভয়ারণ্যে পরিণত করা হয়েছে। অথচ বুয়েট প্রশাসন এসব অপকর্ম বন্ধে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। যার ফলেই আজকে আবরারের মতো একজন মেধাবী ছাত্রকে জীবন দিতে হলো। দুর্বৃত্তায়িত জাতীয় রাজনীতির ফলেই যে দুর্বৃত্তায়িত ছাত্র রাজনীতি তারাই এই হত্যাকান্প ঘটিয়েছে। শাসক শ্রেণির অপরাজনীতিকে বর্জন না করে ঢালাওভাবে ছাত্র রাজনীতিকে দোষ দেয়া একটা প্রকৃত সত্যকে আড়াল করার অপচেষ্টা। আবরার হত্যাকান্ডের পর একদল ছাত্র রাজনীতি বন্ধের দাবি তুলছে এটা বিভ্রান্তিমূলক বক্তব্য। বাস্তবে আদর্শহীন বুর্জোয়া রাজনীতিই যে ছাত্র রাজনীতির নামে গুন্ডামি-সন্ত্রাস-চাঁদাবাজি-তোলাবাজির জন্ম দিয়েছে সে বিষয়টাকে ধামাচাপা দিতে চাচ্ছে।”

নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, উন্নয়ন প্রকল্পের নামে যে পরিমাণ লুটপাট-দূনীতি চলছে তা বালিশ, পর্দা, চেয়ার কেলেঙ্কারীতে আর কারো বুঝতে অসুবিধা হচ্ছে না। নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে বাংলাদেশ-ভারত সরকারের যৌথ ঘোষণা এবং চুক্তি জনসন্মুখে প্রকাশ করার দাবি জানান এবং একই সাথে সরকারের নতজানুনীতির প্রতিবাদে এবং সাম্রাজ্যবাদী ভারতের আগ্রাসী তৎপরতার বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার এবং ছাত্র রাজনীতি বন্ধ নয়, দুর্বৃত্তায়িত নীতি-আদর্শহীন ছাত্র রাজনীতি, সংগঠন বর্জন করার দাবি জানান । নেতৃবৃন্দ আবরার হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার, দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান, এবং এ দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলনের আহ্বান জানান।

নেতৃবৃন্দ দেশের ছাত্র-জনতার প্রতি আদর্শহীন-নীতিবর্জিত সন্ত্রস-দখলদারিত্ব-টেন্ডারবাজির সাথে যুক্ত ছাত্র লীগসহ সকল অপরাজনীতি বর্জন এবং আদর্শবাদী ছাত্র রাজনীতিকে শক্তিশালী করার আহ্বান জানান। লুটপাট-দূর্নীতি বন্ধে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তুলতে সকল বাম প্রগতিশীল, দেশপ্রেমিক রাজনৈতিক দল, ব্যক্তি ও গোষ্ঠীর প্রতি আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম