শনিবার, ডিসেম্বর ৫

বৃষ্টিতে রাজধানীজুড়ে তীব্র জলাবদ্ধতা, জনদুর্ভোগ

এখানে শেয়ার বোতাম


অধিকার ডেস্ক:: ভোর থেকেই রাজধানীতে বৃষ্টি হচ্ছে। এই বৃষ্টিতে নগরীর বিভিন্ন এলাকায় তীব্র জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে কর্মব্যস্ত নগরবাসী চলাচলে অন্তহীন দুর্ভোগের শিকার হয়েছেন। পানি অপসারণের ড্রেনগুলো সচল না থাকায় জলাবদ্ধতা তীব্র হচ্ছে। পাশাপাশি বিভিন্ন সেবা সংস্থার অপরিকল্পিত খোঁড়াখুঁড়ি আরও বাড়িয়ে দিয়েছে দুর্ভোগ। এতে যানচলাচলে বিঘ্ন ঘটছে। এ সুযোগে রিকশা, সিএনজি চালকরা যাত্রীদের কাছ থেকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করছেন।

ধানমণ্ডি ২৭ এলাকার সড়কবৃষ্টিতে নগরীর ধানমন্ডি ২৭, সংসদ ভবন এলাকা, লালমাটিয়া, কাজীপাড়া, শেওড়াপাড়া, সেনপাড়া, তেজকুনিপাড়া, তেজতুরি বাজার, মিরপুর ১০ থেকে ১৪ নম্বর, তেজগাঁও, সাতরাস্তা মোড, কারওয়ানবাজার টিসিসি ভবন, রাজারবাগ পুলিশ লাইনের উত্তর গেট, নয়াপল্টন, পুরান ঢাকার বঙ্গবাজার এলাকা, সিদ্দিক বাজার মোড়, নাজিরা বাজার, নাজিম উদ্দিন রোড, গ্রিন রোড, মোহাম্মদপুর, ফার্মগেট, শুক্রাবাদ, রামপুরা, মালিবাগ ও খিলক্ষেতে জলাবদ্ধতা দেখা দিয়েছে। এতে বেশি দুর্ভোগে পড়েছেন পথচারী ও ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা।

এসব এলাকায় সাধারণ মানুষকে পথচলাচলে তীব্র ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে। কোথাও কোথাও ইঞ্জিনে পানি ঢুকে যানবাহনও বিকল হতে দেখা গেছে। রাস্তায় পানি জমায় মানুষ গাড়িতে উঠ‌তে পারছেন না। এছাড়া বিভিন্ন বাসা-বাড়িতেও পানি উঠেছে বলে জানা গেছে। বৃষ্টিতে কোনও কোনও এলাকা যেন নদীতে পরিণত হয়। পাশাপাশি বিভিন্ন এলাকায় তীব্র যানজট দেখা দিয়েছে। এতে ট্রাফিক পুলিশকেও চরম ভোগান্তি সহ্য করতে হয়।

বৃষ্টিতে সাত রাস্তা এলাকায় তীব্র জলাবদ্ধতা দেখা গেছে। পাশাপাশি তীব্র যানজটও দেখা দিয়েছে। ওই এলাকার রিকশাচালক জমির উদ্দিন বলেন, ‘নাবিস্কো থেকে সাত রাস্তা পর্যন্ত আসতে আধাঘণ্টা লেগেছে। পুরো এলাকায় পানি জমে রয়েছে। মানুষ চলাচল করতে পারছে না। রাস্তায় পানির কারণে বাসেও উঠতে পারছে না।’

তোপখানা এলাকার বাসিন্দা করিম হোসেন বলেন, ‘সকালে বাজার করার জন্য বের হয়ে দেখি কাকরাইলের নাইটিঙ্গেল মোড় থেকে নটর ডেম কলেজ পর্যন্ত ফকিরাপুল পর্যন্ত সড়কে পানি ঢুকে তলিয়ে গেছে। রিকশা সিএনজি ও প্রাইভেট কার চলাচল করতে পারছে না। এই এলাকায় ফুটপাত ধরেও চলাচল কঠিন হয়ে পড়েছে।’

মিরপুর ১৪ নম্বর এলাকার বাসিন্দা মহিউদ্দিন বলেন, ‘রাস্তায় পানি আর পানি। মিরপুর ১০ থেকে ১৪ নম্বর পর্যন্ত পুরো রাস্তায় পানি। বিশেষ করে বিআরটিএ ভবনের সামনে পানির পরিমাণ অনেক বেশি। এই এলাকায় সামান্য বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়।’

এদিকে আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানীতে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। সকাল ৭টা থেকে পরবর্তী ৬ ঘণ্টায় ঢাকা ও পাশবর্তী এলাকার আকাশ আংশিক মেঘলা থেকে মেঘলা থাকতে পারে। হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে।


এখানে শেয়ার বোতাম