মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

বিধিনিষেধ অমান্য করায় চট্টগ্রামে  ৪১ মামলা

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে দেশব্যাপী চলছে কঠোর লকডাউন। এই লকডাউনে বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে চট্টগ্রাম নগরজুড়ে অভিযান পরিচালনা করেছে জেলা প্রশাসনের ১০ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের ভ্রাম্যমাণ আদালত।

শনিবার (১৭ এপ্রিল) দিনব্যাপী পরিচালিত এই অভিযানে ৪১ মামলায় মোট ১৩ হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। একইসঙ্গে সচেতনতার জন্য এক হাজার মাস্ক বিতরণ করা হয়।

জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গেছে, নগরের পাহাড়তলী, হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সাত মামলায় এক হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এহসান মুরাদ পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে একটি বিপণী বিতান বন্ধ করে দেন।

একই সময়ে, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মুহাম্মদ ইনামুল হাছান পাহাড়তলী, হালিশহর ও আকবরশাহ এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা এক মামলায় এক হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত পাঁচলাইশ, বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ১০ মামলায় এক হাজার ৮০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এদিকে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. রাজিব হোসেন পতেঙ্গা, ইপিজেড ও বন্দর এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে ছয় মামলায় দুই হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ানা আফরিন কোতোয়ালি, সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা জনসাধারণকে সরকারি আদেশ মেনে চলতে নির্দেশনা প্রদান করেন।

জেলা প্রশাসন জানায়, নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ফাহমিদা আফরোজ খুলশী, বায়েজিদ ও চান্দগাঁও এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে দুই মামলায় এক হাজার ৫০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুরাইয়া ইয়াসমিন কোতোয়ালি, সদরঘাট ও ডবলমুরিং এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চার মামলায় ৮০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মিজানুর রহমান পাঁচলাইশ, বাকলিয়া ও চকবাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে চার মামলায় দুই হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন এবং নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আব্দুল্লাহ আল মামুন খুলশী, বায়েজিদ ও চান্দগাঁও এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে সাত মামলায় দুই হাজার ৩০০ টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এছাড়াও সন্ধ্যার পর থেকে আরও দুইজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট গালিব চৌধুরী ও হুছাইন মুহাম্মদের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম নগরের বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে বলে জানা যায়।

চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ওমর ফারুক বলেন, ‘কঠোর লকডাউন বাস্তবায়ন এবং স্বাস্থবিধি নিশ্চিতে আজও নগরের বিভিন্ন স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। এসব অভিযানে জরিমানার পাশাপাশি সচেতনতার জন্য মাস্ক বিতরণ করা হয়েছে।’

জেলা প্রশাসনের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।


এখানে শেয়ার বোতাম