সোমবার, নভেম্বর ৩০

বিক্ষোভে উত্তাল উইসকনসিনে গুলিতে নিহত ২

এখানে শেয়ার বোতাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কৃষ্ণাঙ্গ এক যুবককে পুলিশের গুলির পর বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠেছে যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিনের কেনোশা শহর। মঙ্গলবার রাতে এবং বুধবার সকালের দিকে সহিংস আকার ধারণ করা এই বিক্ষোভে গুলিতে অন্তত দু’জন নিহত ও আরও একজন আহত হয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

ব্রিটিশ বার্তাসংস্থা রয়টার্স বলছে, টানা তৃতীয় দিনের মতো কেনোশায় বিক্ষোভ করেছেন হাজার হাজার মানুষ। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভের ভিডিওতে দেখা যায়, তীব্র গোলাগুলির মাঝে আতঙ্কিত লোকজন পালানোর চেষ্টা করছে।

বিক্ষোভ দমাতে পুলিশ কারফিউ জারি করলেও মঙ্গলবার তা উপেক্ষা করে রাজপথে নেমে আসে মানুষ। পরে পুলিশ টিয়ার গ্যাস, রাবার বুলেট ছুড়ে বিক্ষোভকারীদের হটিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে সহিংসতা শুরু হয়।

এক বিবৃতিতে কেনোশা পুলিশ বিভাগ বলছে, মঙ্গলবার মধ্যরাতের আগ মুহূর্তে গোলাগুলির ঘটনায় দু’জন নিহত ও অন্য একজন আহত হয়েছেন। আহত ব্যক্তি শঙ্কামুক্ত রয়েছেন বলে জানিয়েছে পুলিশ।

রাস্তায় রাইফেল হাতে এক ব্যক্তিকে দেখার পর উত্তেজিত জনতা তাকে ধাওয়া দেয়। বিক্ষোভকারীদের ধারণা, ওই ব্যক্তির গুলিতে অপরজন আহত হয়েছেন।

রয়টার্স বলছে, বিক্ষোভকারীদের একজন রাইফেল হাতে থাকা ব্যক্তিকে উড়ন্ত লাথি মেরে মাটিতে ফেলে দেন। অপর এক বিক্ষোভকারী তার অস্ত্র ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেন। পরে কাছাকাছি স্থানে থেকে ওই বন্দুকধারীকে গুলি করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

অপর একটি ভিডিওতে দেখা যায়, এক ব্যক্তি মাথায় গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েছেন। আশপাশের লোকজন তাকে সেবা দেয়ার চেষ্টা করছে। অন্য একজনকে বাহুতে গুরুতর জখম অবস্থায় দেখতে পাওয়া যায়।

এর আগে, গত রোববার একেবারে কাছে থেকে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জ্যাকব ব্লেইককে গুলি করে পুলিশ। এ ঘটনার পর থেকে বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠে কেনোশা। পুলিশের সঙ্গে কথা কাটাকাটি ধস্তাধস্তিতে রুপ নেয়।

এর এক পর্যায়ে সেখান থেকে ছুটে নিজের গাড়িতে গিয়ে ওঠার চেষ্টা করলে পেছন থেকে ব্লেইককে কয়েক রাউন্ড গুলি করে পুলিশ। সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়া ব্লেইককে আটক করা হয়।

এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হয়ে যাওয়ায় দোষী পুলিশ সদস্যদের বিচারের দাবিতে রাস্তায় নেমে আসে হাজার হাজার মানুষ।


এখানে শেয়ার বোতাম