বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫
শীর্ষ সংবাদ

বিকেল সাড়ে ৪টায় বসছে বছরের প্রথম সংসদ অধিবেশন

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: একাদশ জাতীয় সংসদের একাদশ অধিবেশন সোমবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪ টায় বসবে। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন অধিবেশনের সভাপতিত্ব করবেন। এই অধিবেশন শীতকালীন এবং বছরের প্রথম অধিবেশন।

অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ভাষণ দেবেন। রেওয়াজ অনুযায়ী বছরের প্রথম অধিবেশনে রাষ্ট্রপতি ভাষণ দিয়ে থাকেন।

অধিবেশন শুরু হয়ে প্রথমে সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়ন এবং শোক প্রস্তাব উত্থাপনের পর রাষ্ট্রপতি সংসদে ভাষণ দেবেন। এরপর অধিবেশন মুলতবি করা হবে।

বছরের শুরুর অধিবেশন ৩০ কার্যদিবস চলার কথা থাকলেও কারোনা ভাইরাসের কারণে তা হচ্ছে না। অধিবেশন ১২ থেকে ১৪ কার্যদিবস চালতে পারে বলে সংসদ সচিবালয় থেকে জানা গেছে। রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর সংসদ সদস্যরা অধিবেশন জুড়ে ওই ভাষণের ওপর আনার ধন্যবাদ প্রস্তাাব নিয়ে আলোচনা করেন।

বিকেলে সংসদ ভবনে প্রবেশ করবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ। বিশেষ লিফটে চড়ে সাত তলায় তার চেম্বারে যাবেন। সেখান থেকে অধিবেশন কক্ষে যাবেন। স্পিকার তাকে আমন্ত্রণ জানালে বিউগলে বাজবে। রাষ্ট্রপতি সংসদে ঢুকলে নিয়মানুযায়ী জাতীয় সংগীত বাজানো হবে।

প্রথমে স্পিকারের পাশের চেয়ারে বসবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। এরপর তাকে ভাষণ দেওয়ার জন্য অনুরোধ জানাবেন স্পিকার, পর ডায়াসে দাঁড়িয়ে বক্তব্য দেবেন রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ। মন্ত্রিপরিষদ থেকে ঠিক করে দেওয়া ভাষণের সংক্ষিপ্তসার সংসদে পাঠ করবেন রাষ্ট্রপতি।

করোনা পরিস্থিতির কারণে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অধিবেশন চলবে। অধিবেশনের প্রথম দিনে সাংবাদিকসহ সীমিত সংখ্যক অতিথির সংসদে প্রবেশের সুযোগ থাকছে। তবে সংসদে প্রবেশের জন্য করোনা নেগেটিভ নিশ্চিত হতে হবে।

অধিবেশনের প্রতি কার্যদিবসে ৭০-৮০ জন সংসদ সদস্যের উপস্থিতি নিশ্চিত করা হয়। করোনা ঝুঁকি এড়াতে মাঝখানে গ্যাপ দিয়ে দিয়ে আসন বিন্যাস করা হয়েছে।

সংসদ অধিবেশন চলাকালে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীদের করোনাভাইরাস পরীক্ষা করিয়ে নেওয়া হয়। এমনকি অধিবেশনে যোগদানের ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যদের করোনা নেগেটিভ নিশ্চিত করা হয়।

জাতীয় সংসদের অধিবেশন শেষ হওয়ার ৬০ দিনের মধ্যে পরবর্তী অধিবেশন বসার বাধ্য-বাধকতা রয়েছে।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 11
    Shares