শুক্রবার, ডিসেম্বর ৪

বাম জোটের কর্মসূচিতে হামলার নিন্দা জানিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: বাম গণতান্ত্রিক জোটের কর্মসূচিতে পুলিশের লাঠিপেটার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ঐক্যফ্রন্টের দপ্তরপ্রধান জাহাঙ্গীর আলমের পাঠানো এক বিবৃতিতে এ নিন্দা জানানো হয়।

আজ সোমবার ‘গণতন্ত্রের কালো দিবস’ পালন উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এক প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে ব্যাপক কারচুপির অভিযোগ তুলে দিনটিকে কালো দিবস হিসেবে পালন করছে বাম গণতান্ত্রিক জোট। কর্মসূচির মধ্যে আরও ছিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে পদযাত্রা।

সমাবেশ থেকে কদম ফোয়ারার সামনে পুলিশের প্রথম বাধার মুখে পড়ে বাম জোটের মিছিল। ব্যারিকেড ভেঙে মিছিলটি সামনের দিকে এগোতে থাকে। ওই সময় পুলিশ জোটের মিছিলে লাঠিপেটা করে। পুলিশের বাধা উপেক্ষা করে মিছিলটি সামনের দিকে এগোলে বেলা একটার দিকে মৎস্য ভবনের সামনে দ্বিতীয় ব্যারিকেডের সামনে পড়ে। সেখানে তাদের সঙ্গে পুলিশের হাতাহাতি ও ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। বাম জোটের নেতারা জানিয়েছেন, পুলিশের লাঠিপেটায় তাঁদের বেশ কয়েকজন নেতা-কর্মী আহত হয়েছেন।

এ ঘটনার প্রতিবাদে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের আহ্বায়ক ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি জাফরুল্লাহ চৌধুরী ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের সভাপতি নুরুল আমিন ব্যাপারী যৌথ বিবৃতিতে বলেন, বাম জোটের কর্মসূচিতে পুলিশি হামলা, বেধড়ক লাঠিপেটা ও নেতা-কর্মীদের আহত করার ঘটনায় নিন্দা প্রকাশ করছেন।

বিবৃতিতে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা অভিযোগ করেন, ২০১৮ সালে সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ২৯ ও ৩০ ডিসেম্বর পুলিশ ও প্রশাসনের সহায়তায় বর্তমান সরকার যে নজিরবিহীন ভোট ডাকাতি করেছে, তার বিরুদ্ধে সারা দেশের জনগণ আজ সোচ্চার। সরকারের মধ্যে একটা রাজনৈতিক ভীতি কাজ করছে, যার কারণে জনগণের কোনো সভা, সমাবেশ, মিছিল, সব সাংবিধানিক ও গণতান্ত্রিক অধিকার বাধাগ্রস্ত করছে। সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার ও ঐক্যবদ্ধ হওয়ার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান জোটের নেতারা।


এখানে শেয়ার বোতাম