শুক্রবার, জানুয়ারি ২২

বাজেটে সুবিধা নিতেই পোষাক মালিকদের কণ্ঠে ছাঁটাইয়ের সুর : খালেকুজ্জামান

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 8.1K
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: শ্রমজীবী মানুষের কর্মচ্যুতি ঘটলে মালিকদের বিলাসের স্বর্গ তাসের ঘরের মতো তছনছ হয়ে যাবে মন্তব্য করে বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেছেন, বাজেটে সুবিধা নিতেই পোষাক মালিকদের কণ্ঠে ছাঁটাইয়ের সুর।

তিনি আজ ৫ জুন ২০২০ সংবাদপত্রে দেয়া এক বিবৃতিতে করোনাকালে শ্রমজীবীদের চাকরি সুরক্ষার পরিবর্তে পোষাক মালিকদের মুখে শ্রমিক ছাঁটাইয়ের কথা শুনে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে এই মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, সবচেয়ে বেশি বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী রপ্তানি খাতের দাবিদার তৈরি পোষাক মালিকেরা তাদের দীর্ঘ ৪০ বছরের ব্যবসায়ে মাত্র ২/৩ মাসের করোনা সংকটে এতো হাপিত্যেস করছেন কেন? এতো বছরে শ্রমিক শোষণ করে যে লাভ করেছেন তা দিয়ে দেশে-বিদেশে যে সম্পদ করেছেন তা থেকে সামান্য দিলেই তো শ্রমিকের সমস্যা মিটে যায়। তা না করে মালিকেরা গলাশুকিয়ে কান্নার রোল তুলে সরকারের কাছ থেকে কত প্রকারে সুযোগ-সুবিধা নেয়া যায় সে ফন্দি আটছেন। গত বছরেও দল বেধে চাপ দিয়ে বাজেটে উৎসে কর কমিয়ে নিয়েছে। করোনাকালে প্রণোদনা প্যাকেজ হিসেবে ৫ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ নিয়েছে, এখন আবার বাজেটকে সামনে রেখে আরো কি কি সুবিধা আদায় করা যায় সেজন্য সুর তুলছে জুন থেকেই শ্রমিক ছাঁটাইয়ের।

বিবৃতিতে খাকেুজ্জামান বলেন, শ্রমিকদের ছাঁটাই করে মালিকেরা মনে করছেন তারা নির্বিঘ্নে থাকবেন। সে আশা করলে ভুল করবেন। শ্রমিকের কর্মচ্যুতি ঘটালে মালিকের বিলাসের স্বর্গও তাসের ঘরের মতো তছনছ হয়ে যাবে।

খালেকুজ্জামান বলেন, বিজিএমইএ একবার বলছে ক্রেতারা তাদের ক্রয় আদেশ বাতিল করেছে, আরেকবার বলছে পুনরায় আদেশ দিচ্ছে বায়াররা আবার এখন বলছে কাজ নাই তাই শ্রমিক ছাঁটাই হবে। এটা নাকি বাস্তবতা! তাদের কোন বক্তব্য সঠিক?

বিবৃতিতে খালেকুজ্জামান বলেন, যে মালিক কারখানা চালাতে পারবে না সে কারখানা সরকার গ্রহণ করে নিক তবুও শ্রমিক ছাঁটাই করা যাবে না। তিনি শ্রমিক ছাঁটাইয়ের যে কোন মালিকী ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে সকল শ্রমিক কর্মচারীদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 8.1K
    Shares