মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

বাঁশখালীতে শ্রমিক হত্যার নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে বেসরকারি বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিকদের বেতনভাতাসহ বিভিন্ন দাবিতে চলমান আন্দোলনে পুলিশ কর্তৃক নিরীহ শ্রমিকদের উপর গুলিবর্ষণের ঘটনায় ৫ শ্রমিক হত্যা এবং অন্তত শতাধিক শ্রমিক আহত হওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ নিন্দা জানিয়েছে।

বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন সংঘ (রেজিঃ নং বাঃজাঃফেঃ-০৫ ) এর কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি হাবিবুল্লাহ বাচ্চু ও সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী আশিকুল আলম একযুক্ত বিবৃতিতে তীব্র নিন্দ্রা-প্রতিবাদ ও উপযুক্ত ক্ষতিপুরণ প্রদান এবং দায়ী পুলিশসহ সংশ্লিষ্ট সকলের দুষ্ঠান্তমূলক শাস্তি দাবি করেছেন।

নেতৃবৃন্দ বিবৃতিতে উল্লেখ করেন এস আলম গ্রুপের মালিকাধীন বাঁশখালীর কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রের স্থানীয় শ্রমিকরা দীর্ঘদিন ধরে বেতনভাতা, ইফতার ও নামাজের জন্য সময় নির্ধারণসহ বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে আসছিলেন। এমন কি শ্রমিকরা গতকাল(শুক্রবার) শান্তিপূর্ণ কর্মবিরতিও পালন করেছেন। আজ সকালে শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া নিয়ে আলোচনা করার কথা বলা হলেও মালিকক্ষ পুলিশ ডেকে এনে বিনাউস্কানিতে নিরীহ শ্রমিকদের গুলি করে হত্যা করার মতো ঘটনার সৃস্টি হয়। গণমাধ্যমে ৫ জন শ্রমিক নিহত হওয়ার সংবাদ আসলেও বিদ্যুৎকেন্দ্রের শ্রমিকদের অভিযোগ পুলিশ ও মালিকপক্ষ অনেক শ্রমিকের লাশগুম করে ফেলেছে। শ্রমিক আন্দোলন দমনে ও মালিকপক্ষের স্বার্থরক্ষায় সরকারের স্বৈরাচারী মনোভাবের উলঙ্গ বহিঃপ্রকাশ এই মর্মান্তিক ঘটনার মাধ্যমে আরও একবার দেশবাসীর সামনে উন্মোচিত হলো।

নেতৃবৃন্দ এই ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন করোনা অতিমারির সময়ে যখন শ্রমিকদের বেতনভাতার সমস্যা সমাধানে সরকার ও পুলিশ প্রশাসনের এগিয়ে আসার কথা সেই সময় পুলিশ অতীতের ন্যায় মালিকপক্ষের স্বার্থরক্ষায় গুলি করে শ্রমিক হত্যা করেছে। যেমনটা ২০১৬ সালেও পুলিশ এই বিদ্যুৎকেন্দ্রের জমি অধিগ্রহণে মালিকপক্ষের পাশে দাড়িয়ে ৪ জন গ্রামবাসীকে হত্যা করেছিল। এছাড়া ২০১৭ সালে এই বিদ্যুৎকেন্দ্রে একজনকে হত্যা করা হয়েছিল।

নেতৃবৃন্দ বিতর্কিত এই বিদ্যুৎকেন্দ্রের লাইসেন্স বাতিল, আহত শ্রমিকদের সুচিকিৎসা ও ক্ষতিপুরণ প্রদান, মৃত শ্রমিকদের এক জীবনের আয়ের সমপরিমান ক্ষতিপুরণ পরিবারকে প্রদান এবং বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে এই ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে সংশ্লিষ্ট সকলের দুষ্ঠান্তমূলক শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবি জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম