মঙ্গলবার, মে ১৮
শীর্ষ সংবাদ

ফরিদপুরের রাজেন্দ্র কলেজের ছাত্র-ছাত্রী সংসদের ভবনে ছাত্রলীগের সাইনবোর্ড

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: দক্ষিণ বঙ্গের ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠ ফরিদপুর সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের ছাত্র সংসদ (রুকসু) ভবনে জেলা ছাত্রলীগের দলীয় কার্যালয়ের সাইনবোর্ড টানানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রুকসু ভবনে টানানো সাইনবোর্ডে লেখা রয়েছে ‘বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ফরিদপুরর জেলা শাখা’।

রাজেন্দ্র কলেজ সূত্রে জানা যায়, কলেজের সবশেষ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারিতে। করোনা মহামারির কারণে কলেজ বন্ধ করে দেওয়ায় ২০২০ ও ২০২১ সালে রুকসু নির্বাচন হয় হয়নি। নিয়ম অনুযায়ী, রুকসুর নির্বাচন পরবর্তী বছর অনুষ্ঠিত না হলেও স্বাভাবিক ভাবে আগের কমিটি বাতিল হয়ে যায়।

ফরিদপুর সনাকের (সচেতন নাগরিক কমিটি) সভাপতি ও নাগরিক মঞ্চের সহসভাপতি অ্যাড শিপ্রা গোস্বামী এ প্রসঙ্গে বলেন, ভবনটি সংসদের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের ব্যবহার করার কথা। কোনোভাবেই রাজনৈতিক সংগঠন তাদের দলীয় কার্যালয় হিসেবে ব্যবহার করতে পারে না। এ বিষয়টি কলেজের অধ্যক্ষকেই পরিষ্কার করতে হবে- কেন, কীভাবে একটি ছাত্র সংগঠন রুকসু ভবনটি ব্যবহার করছে।

ফরিদপুর আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক ও রাজেন্দ্র কলেজের ছাত্রদলের নির্বাচিত ভিপি অ্যাড. জসিমউদ্দিন মৃধা এ প্রসঙ্গে বলেন, ছাত্র-ছাত্রী সংসদ সবার, এটা কোনো দলীয় সংগঠনের না। কীভাবে একটি দলীয় সংগঠন তাদের জেলা কার্যালয় হিসেবে ভবনটি ব্যবহার করতে পারে?

ফরিদপুর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি ও রাজেন্দ্র কলেজের সাবেক ভিপি বর্তমান শহর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মো. মনিরুজ্জামান মনির এ বিষয়ে বলেন, ছাত্র সংসদ সকল শিক্ষার্থীদের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের জন্য। এটা তো কোনোভাবেই কোনো ছাত্র সংগঠনের দলীয় কার্যালয় না। আমি মনে করি, এই জাতীয় ঘটনার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষের দুর্বলতাই দায়ী।

তিনি আরও বলেন, এখন তো সংসদ বিলুপ্ত হয়েছে। তবে কেন রুকসু ভবন খোলা থাকবে। এটা দুঃখজনক।

জেলা ছাত্রলীগের সাবেক কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে দল থেকে বহিষ্কার হওয়ার পরে চলতি বছরের ১ জানুয়ারি জেলা কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়। এর কয়েক দিন পরেই গত ১৯ জানুয়ারি ২৫ সদস্যবিশিষ্ট একটি কমিটির অনুমোদন দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। সেখানে সভাপতি করা হয় তানজিদুল রশিদ চৌধুরী রিয়ান এবং সাধারণ সম্পাদক করা হয় মো. ফাহিম আহমেদকে।

এ বিষয়ে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তানজিদুল রশিদ চৌধুরী রিয়ান বলেন, রুকসু ভবনে ছাত্রলীগের সাইনবোর্ড টাঙানোর সিদ্ধান্ত যদি ভুল হয়ে থাকে, তাহলে আমরা সেটি অপসারিত করে ফেলব।

সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের অধ্যক্ষ মোশাররফ আলী সাংবাদিকদের বলেন, ছাত্রলীগ ওই ভবনে জেলা ছাত্রলীগ সাইনবোর্ড টাঙিয়েছে, এটি তিনি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে থেকে জানতে পেরেছেন। কাজটি ওরা (ছাত্রলীগ) ঠিক করেনি। দ্রুতই এ বিষয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. সুবল চন্দ্র সাহা এ বিষয়ে বলেন, এই বিষয়ে আমি কোনো কথা বলতে চাই না। বিষয়টি আমার জানা নেই।


এখানে শেয়ার বোতাম