শনিবার, মে ৮
শীর্ষ সংবাদ

প্রধানমন্ত্রী প্যাকেজে শ্রমজীবীদের জন্য স্বস্তির কোন খবর নেই: সাইফুল হক

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 280
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত ঋণ ও প্রণোদনা প্যাকেজে শ্রমজীবী-দিনমজুরদের জন্য স্বস্তির কোন খবর নেই বলে মন্তব্য করে বাংলাদেশের বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক বলেছেন, পরিস্থিতি মোকাবেলায় সমন্বিত জাতীয় উদ্যোগের কোন ঘোষণা নেই।

আজ রোববার (০৫ এপ্রিল) সংবাদ পত্রে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এই মন্তব্য করেন।

বিবৃতিতে সাইফুল হক বলেছেন করোনা ভাইরাসজনিত পরিস্থিতি মোকাবেলায় যে ঋণ ও প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা করেছেন তাতে এই করোনা দুর্যোগে কর্মহীন, বেকার, খাদ্যাভাবে ক্লিষ্ট দেশের এক কোটি শ্রমজীবী ও দিনমজুরদের জন্য স্বস্তির কোন খবর নেই। প্রধানমন্ত্রীর কন্ঠে এই বিরাট সংখ্যক শ্রমজীবী-দিনমজুর পরিবারসমূহের জন্য কমপক্ষে আগামী ৩ মাস প্রয়োজনীয় খাবার ও নগদ অর্থ পাবার কোন নিশ্চয়তা মেলেনি। রিক্সা চালক, হকার, বস্তিবাসী, পরিবহনসহ অসংগঠিত খাতের শ্রমিক, শিল্পে নিয়োজিত শ্রমিকসহ শ্রমজীবী-মেহনতি মানুষের খাদ্য নিরাপত্তা নির্দিষ্টভাবে কিভাবে নিশ্চিত হবে আজ প্রধানমন্ত্রী তা উল্লেখ করেননি। সামাজিক নিরাপত্তা কর্মসূচি, ১০ টাকা সের দরে চাল যে অধিকাংশ বেকার হতদরিদ্রের কাছে পৌঁছাবে না তা নিশ্চিত। তিনি বলেন, করোনা সংক্রমন রোধে এই জনগোষ্ঠিকে ঘরে রাখতে হলে তাদের দায়িত্ব নেবার কোন বিকল্প নেই।

তিনি বলেন, কতিপয় গার্মেন্টস মালিকেরা গার্মেন্টস কারখানা চালু রেখে শ্রমিকদেরকে করোনায় সংক্রমনের যে ঝুঁকির মধ্যে ঠেলে দিয়েছে সে ব্যাপারেও সরকারের প্রধান নির্বাহী কিছু বলেননি।

বিবৃতিতে তিনি বলেন, করোনাজনীত পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত নতুন ৬৭ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা মূলত আলাদা চারটি ঋণ প্যাকেজ। তিনি বলেন, ঋণের পুরো টাকা বিতরণ করা হলে এবং এদেরকে প্রদত্ত সব আর্থিক সুবিধা গৃহীত, বাস্তবে প্রণোদনার পরিমান তিন থেকে সাড়ে তিন হাজার কোটি টাকার বেশী হবে না। তিনি বলেন, এই ঋণ সুবিধা দ্রুত বাস্তবায়িত না হলে এ থেকে অর্থনীতিতে কাঙ্খিত ফল আসবে না।

করোনা মহামারী মোকাবেলায় রাজনৈতিক দলসহ সকলকে যুক্ত করে সমন্বিত জাতীয় উদ্যোগের ব্যাপারে নির্দিষ্ট কোন ঘোষণা না থাকায় তিনি হতাশা ব্যক্ত করেন এবং বলেন, জাতীয় দুর্যোগ মোকাবেলায় জাতীয় উদ্যোগ গ্রহণের কোন বিকল্প নেই।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 280
    Shares