শনিবার, নভেম্বর ২৮

পাটুরিয়ায় বিশৃঙ্খলা: মধ্যরাতে অপেক্ষায় হাজারো গাড়ি

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: পাটুরিয়া ফেরিঘাট ও ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ১২ কিলোমিটার জুড়ে যানজট রয়েছে। শুক্রবার দিনভর হাজার হাজার যানবাহনের যাত্রীকে ১০-১২ ঘণ্টা অপেক্ষার পর ফেরিতে উঠতে হচ্ছে।

বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাড়ির পরিদর্শক বাসুদেব সিনহা বলেন, শুক্রবার রাত ১০টার দিকে পাটুরিয়া ঘাট এলাকা থেকে ১২ কিলোমিটার যানজট রয়েছে। রাত ১২টা পর্যন্ত এ যানবাহনের সংখ্যা আরো বাড়বে।

বিআইডব্লিউটিসি ও মানিকগঞ্জ পুলিশ বিভাগ বলেন, অব্যবস্থাপনা ও বিশৃঙ্খলার কারণেই পাটুরিয়া-দৌলতদিয়া নৌপথে শুক্রবার ভোর থেকে রাত অবধি ঢাকা- আরিচা মহাসড়কে দিন ভর তীব্র যানজট দেখা দেয়। এতে দেশের দক্ষিণ পশ্চিম অঞ্চলের প্রবেশ পথ বলে খ্যাত পাটুরিয়া- দৌলতদিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল ব্যাহত হয়।

বিআইডব্লিউটিসির আরিচা কার্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত ডিজিএম মো. জিল্লুর রহমান বলেন, তীব্র স্রোতের কারণে জুলাই মাসজুড়ে ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছিল। আর শুক্রবার ভোর থেকে ঘাট এলাকায় অস্বাভাবিক যানবাহনের কারণে মারাত্মক যানজট সৃষ্টি হয়। শুক্রবার রাতেও ঘাট এলাকায় শত শত যানবাহন ফেরি পারাপারের অপেক্ষায় আছে। তরে রাত বাড়ার সঙ্গে যানবাহনের সংখ্যাও বাড়ছে।

শুক্রবার দুপুরের দিকে পাটুরিয়া ঘাট থেকে মানিকগঞ্জে বাস স্ট্যান্ড পর্যন্ত যানজট ছিল। তা বিকালের দিকে ধামরাই এলাকায়ি গিয়ে ঠেকে। বরংগাইল হাইওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক বাসুদেব সিনহা বলেন, গত কয়েকদিন ধরে যানবাহনের চাপ কম থাকলেও। বৃহস্পতিবার রাত থেকে যানবাহনের সংখ্যা বাড়তে থাকে। সেটা শুক্রবার পাটুরিয়া থেকে ধামরাই এলাকায় গিয়ে ঠেকে।

বিআইডব্লিউটিসি আরিচা কার্যালয়ের সহকারী ব্যাবস্থাপক (বাণিজ্য) মহিউদ্দিন রাসেল বলেন, পাটুরিয়া -দৌলতদিয়া নৌরুটে ১৬টি ফেরি দিয়ে যানবাহন পারাপার করা হচ্ছে। তীব্র স্রোত ও অতিরিক্ত যানবাহন, যাত্রীদের চাপে আমাদের ফেরি চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। তবে আমারা সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি যেন হাজার হাজার মানুষ তাদের বাড়ি গিয়ে ঈদ উদযাপন করতে পারে।


এখানে শেয়ার বোতাম