বুধবার, জানুয়ারি ২৭

পাওনা দাবিতে ড্রাগন গ্রুপ শ্রমিকদের বিক্ষোভ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 28
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: অবিলম্বে শ্রমিক-কর্মচারীদের প্রভিডেন্ট ফান্ড, সার্ভিস বেনিফিট, অর্জিত ছুটির টাকাসহ সকল আইনানুগ পাওনা পরিশোধের দাবিতে বিক্ষোভ-সমাবেশ করেছে ড্রাগন গ্রুপের দুটি কারখানার শ্রমিকরা।

বৃহস্পতিবার (১০ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামন থেকে বিক্ষোভ মিছিল করে শ্রম ভবনে সমাবেশ করে তারা।

শ্রম ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত সমাবেশ থেকে নেতৃবৃন্দ আগামী রোববারের মধ্যে সংকট সুরহার সময় বেধে দেন।

সমাবেশে গার্মেন্ট শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের নেতা সাদেকুর রহমান শামীম বলেন, মালিক একদিকে মাসের পর মাস শ্রমিকদের পাওনা পরিশোধ না করে নিষ্ঠুর জুলুম চালিয়ে যাচ্ছে অন্যদিকে শ্রমিকদের বিরুদ্ধে নানা মিথ্যা অভিযোগ প্রচার করছে।

তিনি বলেন, শ্রমিকদের আইনগত পাওনা পরিশোধ না করাটাই সবচেয়ে বড় ষড়যন্ত্র। ড্রাগন মালিক দেশ এবং শিল্পের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করছেন। শ্রমিকদের পক্ষে দেশে এবং দেশের বাইরে যে বিবেকবান মানুষ এবং ট্রেড ইউনিয়ন কর্মীরা কথা বলছেন অসহায় ড্রাগন শ্রমিকদের প্রতি সংহতি জানানো ভিন্ন তাদের অন্য কোনো উদ্দেশ্য নেই। শ্রমিকনেতা শামীম অভিযোগ করেন, ড্রাগন মালিক নিজের ফৌজদারি অপরাধ আঁড়াল করতেই শ্রমিকপক্ষের বিরুদ্ধে মিথ্যাচার করে যাচ্ছে।

সমাবেশে সাদেকুর রহমান শামীম বলেন, মালিক অত্যন্ত প্রভাবশালী হওয়ায় শ্রম আইন কিংবা শ্রম দপ্তরের কর্মকর্তাদের তোয়াক্কা করেন না। এ কারণে তিনি গতকাল বুধবার শ্রম মন্ত্রণালয়ের ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটির ডাকা সভা বয়কট করতেও পিছপা হননি।

শ্রমিকনেতা শামীম আরও বলেন, ড্রাগন মালিক মোস্তফা গোলাম কুদ্দুস বিজিএমইএ’র প্রথম সভাপতি হওয়ায় শ্রমিকদের এই সংকট নিরসনে বিজিএমইএ ‘ধরি মাছ নাই ছুই পানি’ ভূমিকা নিয়েছে।

তিনি বিজিএমইএ নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে বলেন, শ্রমিকদের মানবেতর অবস্থা না দেখার ভান করে মালিক নেতৃবৃন্দের নির্বিকার ভূমিকার কথা গার্মেন্ট টিইউসি মনে রাখবে। এর ফলাফলের দায়-দায়িত্ব তাদের নিতে হবে।

ড্রাগন গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এই শ্রমিক বিক্ষোভে বক্তব্য রাখেন গার্মেন্ট টিইউসি’র কেন্দ্রীয় নেতা সাদেকুর রহমান শামীম, মঞ্জুর মঈন, কারখানার শ্রমিক রমেসা বেগম, আব্দুল কুদ্দুস, মোহাম্মদ বাবুল প্রমুখ।

সমাবেশে অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বলেন, জেনারেল মঞ্জুর হত্যাকা-ের পর অসীম ক্ষমতাবান হয়ে ওঠা একজন পুলিশ পরিদর্শক হাজার কোটি টাকার মালিক হয়ে আজ শ্রমিকদের সারা জীবনের সঞ্চিত পাওনা লুটে নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে। এমন একজন মালিকের ক্ষমতার প্রকৃত উৎস দেশের মানুষের সামনে উন্মোচিত হওয়া প্রয়োজন।

সমাবেশ থেকে আগামী রোববার বিকেল ৩টায় শ্রম ভবনের সামনে শ্রমিকদের একত্রিত হওয়ার ঘোষণা দেয় তারা।

উল্লেখ্য, গতকাল (৯ সেপ্টেম্বর) বিকেল৩টায় শ্রম মন্ত্রণালয়ের ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটির ডাকে ড্রাগন গ্রুপের শ্রমিকদের সংকট নিরসনে ত্রিপক্ষীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মালিকপক্ষ সভা বয়কট করায় সমঝোতা আলোচনা ভেস্তে যায়। শ্রম মন্ত্রণালয়ের ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি ও শ্রম অধিদপ্তরের পরিচালক আমিনুল হক-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভাটি কোনো সুনির্দিষ্ট সিদ্ধান্ত ছাড়া শেষ হয়। এর প্রেক্ষিতে শ্রমিকরা আন্দোলন অব্যাহত রাখার ঘোষণা দেয়।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 28
    Shares