মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১

নববধূকে গলা টিপে হত্যা করে ঘরে তালা দিয়ে পালালেন স্বামী

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক:: টাঙ্গাইলে এক নববধূকে গলা টিপে হত্যার পর ঘরে তালা ঝুলিয়ে পালিয়ে গেছেন স্বামী। ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইল পৌরসভার সাহাপাড়া এলাকায়।

নিহত শাবনুর আক্তার খাদিজা (২০) দেলদুয়ার উপজেলার পাথরাইল ইউনিয়নের চিনাখোলা গ্রামের জাকির হোসেনের মেয়ে। স্বামী আব্দুল খালেক (২৮) পশ্চিম আকুর টাকুর পাড়ার আবু সাঈদের ছেলে। এক সপ্তাহ আগে তারা পালিয়ে বিয়ে করেন। স্বামী খালেক গাড়িচালক। এটি তার দ্বিতীয় বিয়ে।

শাবনুর আক্তার খাদিজার বাবা জাকির হোসেন বলেন, গত সপ্তাহে খাদিজা গাজীপুরের একটি পোশাক কারখানায় চাকরি করবে বলে বাড়ি থেকে বের হয়। এরপর শুনেছি সে বিয়ে করেছে। তবে তার বিয়ের বিষয়টি আমাদের জানা ছিল না। এরই মধ্যে তার মৃত্যুর খবর পেলাম।

আব্দুল খালেকের মা বলেন, গত সোমবার (১৭ আগস্ট) খালেক বাড়ি থেকে বের হয়। তারপর থেকে তার মোবাইল বন্ধ ছিল। পরে শুনেছি খালেক বিয়ে করেছে।

টাঙ্গাইল সদর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর মোশাররফ হোসেন বলেন, শুক্রবার (২১ আগস্ট) দুপুরে খালেক তার দ্বিতীয় স্ত্রী খাদিজাকে গলা টিপে হত্যা করে ঘরে তালা লাগিয়ে পালিয়ে যায়। ওই সময় পাশের ভাড়াটিয়া তাকে দেখতে পান। ভাড়াটিয়া জিজ্ঞেস করলে খালেক বলেন আপনার ভাবি ঘুমাচ্ছে, আমি একটু বাইরে যাব, আসতেছি। এই কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। সারাদিন যাওয়ার পর সবার মনে সন্দেহ হলে তারা পুলিশকে ঘটনাটি জানায়। পরে খাদিজার মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ময়নাতদন্ত শেষে তার মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হবে। এ ঘটনায় মামলা প্রক্রিয়াধীন।


এখানে শেয়ার বোতাম