বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫
শীর্ষ সংবাদ

দেশে ফিরছেন ড. বিজন, ভিসার জন্য হাইকমিশনে যোগাযোগ

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 15
    Shares

অধিকার ডেস্ক:: অবশেষে বাংলাদেশে কাজ করার অনুমতি পেয়েছেন আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন অণুজীব বিজ্ঞানী ও করোনাভাইরাস শনাক্তের ‘জি র্যাপিড ডট ব্লট’ কিট উদ্ভাবক ড. বিজন কুমার শীল। অনুমতি পাওয়ার পর ইতোমধ্যে সিঙ্গাপুরে নিযুক্ত বাংলাদেশ হাইকমিশনে ভিসার জন্য যোগাযোগও করেছেন তিনি। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ফেব্রুয়ারিতেই দেশে আসছেন ড. বিজন।

শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) বিকেলে ড. বিজন কুমার শীল জাগো নিউজকে এসব তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশ বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (বিডা) আমাকে বাংলাদেশে কাজ করার অনুমতি দিয়েছে। গণবিশ্ববিদ্যালয়ের মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের অধ্যাপক ও চেয়ারম্যান হিসেবে দুই বছরের জন্য কাজ করার অনুমতি দিয়েছে। এ সংক্রান্ত মেইল আমি গতকাল (বৃহস্পতিবার) গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের কাছ থেকে পেয়েছি।’

বাংলাদেশে ফের কাজের সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বসিত ড. বিজন বলেন, ‘ইতোমধ্যে আমি সিঙ্গাপুরে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকোমশনে যোগাযোগ করেছি। ভিসা আবেদন প্রক্রিয়ার মধ্যে আছি। ভিসা পেয়ে গেলে খুব শিগগিরই দেশে আসবো।’

২০০৩ সালে সিঙ্গাপুরে সার্স ভাইরাসের কিটের উদ্ভাবন করে আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি অর্জন করেন নাটোরের কৃষক পরিবারের সন্তান ড. বিজন। গত বছর করোনা মহামারি দেখা দিলে গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে তার নেতৃত্বে করোনা শনাক্তে অ্যান্টিজেন ও অ্যান্টিবডি ‘জি র্যাপিড ডট ব্লট’ কিট উদ্ভাবন করে দেশ-বিদেশে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করে। তবে বাংলাদেশে তার কাজের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে এবং তা সরকারের পক্ষ থেকে না বাড়ানো হলে গত ২০ সেপ্টেম্বর তিনি সিঙ্গাপুরে পাড়ি জমান। কর্মসূত্রে তিনি সিঙ্গাপুরের নাগরিকত্ব লাভ করেন বেশ আগে।

অন্যদিকে, ড. বিজন উদ্ভাবিত কিট এখনো অনুমোদন পায়নি। যদিও সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে সরকারের পক্ষ থেকে ইতিবাচক অবস্থান দেখা গেছে।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 15
    Shares