রবিবার, এপ্রিল ১১
শীর্ষ সংবাদ

দূর্নীতি-লুটপাট-বৈষম্য সাম্প্রদায়িকতা বিরোধী লড়াই জোরদার করতে হবে: রবিউল আলম

এখানে শেয়ার বোতাম

নিজস্ব প্রতিবেদক:: দেশ শান্তি-স্থিতিশীলতা-উন্নয়ন-উৎপাদনের পথে অনেক এগিয়েছে কিন্তু দেশ ও জাতির অর্জিত এ সাফল্য ধ্বংস করতে উদ্যত হয়েছে দূর্নীতিবাজ-লুটেরা-দলবাজী-ক্ষমতার অপব্যবহারকারী-নারী ও শিশু নির্যাতনকারী গোষ্টি মন্তব্য করে জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যকরি সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল আলম বলেছেন, এই চিহ্নিত অপরাধী গোষ্ঠী অবৈধ পথে অর্জিত বিপুল অর্থ সম্পদ ব্যবহার করে ‘রাজনৈতিক ক্ষমতা’, প্রশাসনিক ক্ষমতা কিনে নিয়ে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে।

তিনি বলেন, মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ নির্মাণের লক্ষ্যে এই মুহুর্তের প্রধান কর্তব্য সুশাসন প্রতিষ্ঠার সংগ্রামকে বেগবান করা। এই লক্ষ্যে আইনের শাসন ও প্রশাসনের নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করতে হবে, চলমান দুর্নীতি বিরোধী শুদ্ধি অভিযান জোরদার করতে হবে, জঙ্গিবাদ-সাম্প্রদায়িকতা নির্মূলের সংগ্রাম বেগবান করতে হবে, শান্তি ও উন্নয়নের ধারা এগিয়ে নিতে হবে এবং বৈষম্যের অবসান করে সমাজতন্ত্রের পথ ধরতে হবে।

তিনি আজ ১৫ ফেব্রুয়ারী (শনিবার) বিকাল ৪ টায় সিলেট জেলা পরিষদ মিলনায়তনে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার ত্রি-বার্ষিক কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই কথা বলেন।

দূর্নীতি-লুটপাট-বৈষম্য সাম্প্রদায়িকতা ও নারী নির্যাতন বিরোধী লড়াই জোরদার করে সুশাসন ও সমাজতন্ত্রের বাংলাদেশ গড়ার দাবীতে এই কাউন্সিল অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত কাউন্সিলে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ এর স্থায়ী কমিটির সদস্য নাদের চৌধুরী, কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা মোঃ আনোয়ারুল হক, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল হক, সদস্য জিয়াউল হাসান তরফদার মাহিন।

জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সিলেট জেলা জাসদ সভাপতি লোকমান আহমদ এর সভাপতিত্বে এবং জেলা সাধারণ সম্পাদক কে. এ. কিবরিয়া চৌধুরী ও মহানগর সাধারণ সম্পাদক গিয়াস আহমদের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত কাউন্সিল-২০২০ এর উন্মুক্ত অধিবেশনে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন, হবিগঞ্জ জেলা জাসদ সভাপতি তাজ উদ্দিন সুফি, গণতন্ত্রী পার্টির জেলা সভাপতি আরিফ মিয়া, সাম্যবাদী দলের সম্পাদক ধীরেন সিংহ, ন্যাপ জেলা জাসধারণ সম্পাদক এম. এ. মতিন, আওয়ামীলগ নেতা মতিউর রহমান, বাসদ জেলা সমন্বয়ক কমরেড আবু জাফর, বাসদ (মার্কসবাদী) জেলা সদস্য এডভোকেট হুমায়ুন রশিদ শোয়েব, সিলেট জেলা জাসদ সহ-সভাপতি মজির উদ্দিন আনসার, মৌলভীবাজার জেলা সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন নজরুল, হবিগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক আবু হেনা মোস্তফা কামাল, সুনামগঞ্জ জেলা সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট রুহুল তুহিন, মহানগর জাসদ নেতা আমিরুল ইসলাম চৌধুরী এহিয়া, কুলাউড়া উপজেলার সাধারণ সম্পাদক আলমগীর আলম শাহান প্রমূখ।

জাতীয় সংঙ্গীত এর সাথে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে কাউন্সিলের উদ্ভোধন ঘোষনা করেন বীর মুক্তিযোদ্ধা রবিউল আলম। অধিবেশনের শুরুতে গভীর শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করা হয় জাসদের প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে আজ অবদি গণতন্ত্র ও সামাজতন্ত্রের সংগ্রামে আত্মদানকারীদের অন্যতম শহীদ কর্ণেল আবু তাহের বীর উত্তম, জাতীয় বীর শহীদ কাজী আরেফ আহমদ, শহীদ সিদ্দিক মাষ্টার, শহীদ স্বপন কুমার চৌধুরী, শহীদ এডভোকেট মোশারফ হোসেন, শহীদ শাহজাহান সিরাজ, শহীদ ডা. সামসুল আলম মিলন, শহীদ মুনির ই কিবরিয়া চৌধুরী, শহীদ তপন জ্যোতি দে, শহীদ এনামুল হক জুয়েল, জাসদ এর প্রতিষ্ঠাতাদের অন্যতম প্রয়াত নেতা সৈয়দ জাফর সাজ্জাদ, ডা, আখলাকুর রহমান, আখতার আহমদ সহ হাজারো শহীদ এবং প্রয়াত নেতৃবৃন্দকে।

অধিবেশনে জননেতা লোকমান আহমদ কে সভাপতি ও কে. এ. কিবরিয়া চৌধুরী কে সাধারণ সম্পাদক করে ৪৬ সদস্য বিশিষ্ট জেলা কমিটি এবং মিশফাক আহমদ চৌধুরী মিশুকে সভাপতি ও গিয়াস আহমদকে সাধারণ সম্পাদক করে ৪৫ সদস্য বিশিষ্ট মহানগর কমিটি ঘোষনা করা হয়।


এখানে শেয়ার বোতাম