মঙ্গলবার, ডিসেম্বর ১

ভারতে দীর্ঘস্থায়ী হবে করোনা মহামারির ঝুঁকি: মোদি

এখানে শেয়ার বোতাম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :: করোনাভাইরাস নিয়ে ভারতকে আরও বেশি সতর্ক হতে হবে। দেশে দীর্ঘস্থায়ী হবে মহামারি এই ভাইরাসের ঝুঁকি। ভাইরাসটির সংক্রমণ ঠেকাতে হলে সামাজিক দূরত্ববিধিসহ মাস্ক পরার বিষয়টি মানতে হবে সবাইকে। রোববার বেতারে জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে এমন সতর্কবার্তাই দিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ভারতে করোনা সংক্রমণের হার দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে। বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বাধিক জনবহুল দেশটিতে গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে আরও ৪৮ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এখন পর্যন্ত ভারতে নিশ্চিতভাবে আক্রান্ত হয়েছেন এমন মানুষের সংখ্যা ১৪ লাখের বেশি। এদের মধ্যে ৩২ হাজারের বেশি মারা গেছেন।

প্রতি মাসে মোদি বেতারে জাতির উদ্দেশে যে ভাষণ দেন আজ রোববার সেই ভাষণে সতর্কবার্তা উচ্চারণ করে বলেন, ‘করোনার ঝুঁকি শেষ হওয়ার বিষয়টি এখনও অনে দূরে। অনেক জায়গায় ভাইরাসটির সংক্রমণ দ্রুত বাড়ছে। আরও বেশি সতর্ক থাকতে হবে আমাদের। সামাজিক দূরত্ববিধি মেনে মাস্ক পরাটা গুরুত্বপূর্ণ।’

ভারতের সরকারি হিসাবে রোববার দেশটিতে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৩৬ হাজার ১৪৫ জন কোভিড-১৯ রোগী সুস্থ হয়েছেন। একই সময়ে দেশটি করোনা শনাক্তের জন্য ৪ লাখ ৪০ হাজারের বেশি মানুষের নমুন পরীক্ষা করেছে। ভারতে এর আগে একদিনে এত মানুষের নমুনা পরীক্ষা হয়নি বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

কয়েক সপ্তাহ ধরে ভারতের গ্রামীন এলাকায় বিস্তার ছড়াচ্ছে করোনা। ছোট শহরগুলোতেও অনেক রোগী শনাক্ত হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দেশের স্বাস্থ্যব্যবস্থা তো এখনই মহাসঙ্কটে পড়েছে। এছাড়া পরীক্ষার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় আগামী দিনে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। পরিস্থিতি হবে তখন ভয়াবহ।

পশ্চিমের মহারাষ্ট্রের অবস্থা সবচেয়ে বিপর্যস্ত। রাজ্যটিতে ৩ লাখ ৬০ হাজারের বেশি করোনা রোগী শনাক্ত হয়েছে। আক্রান্তদের ৬০ শতাংশের বেশি ভারতের বাণিজ্যিক রাজধানী হিসেবে খ্যাত মুম্বাইয়ের বাসিন্দা। ভারত ২৫ মার্চ থেকে শুরু করে দীর্ঘদিন লকডাউন চালালেও তা প্রত্যাহারের সঙ্গে সঙ্গে সংক্রমণ লাগাম ছাড়া।


এখানে শেয়ার বোতাম