শনিবার, নভেম্বর ২৮

তালেবানের সঙ্গে আফগানিস্তানের ‘ঐতিহাসিক’ আলোচনা শুরু

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 8
    Shares

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: কয়েক মাস বিলম্বের পর অবশেষে কাতারের রাজধানী দোহায় শুরু হয়েছে আফগানিস্তান সরকার ও বিদ্রোহী গোষ্ঠী তালেবানের মধ্যকার শান্তি আলোচনা। এই বৈঠককে ঐতিহাসিক আখ্যা দিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে যোগ দিতে হাজির হয়েছেন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও। বৈঠকে যোগ দিতে কাবুল থেকে শুক্রবার রওনা দেন আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ নেতৃত্বাধীন আফগান সরকারের প্রতিনিধি দল। আগেরদিনই বৈঠকে বসার কথা নিশ্চিত করে তালেবান। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

দীর্ঘ আফগান যুদ্ধ অবসানে দোহায় অনুষ্ঠিত আলোচনায় গত ফেব্রুয়ারিতে ঐতিহাসিক সমঝোতায় পৌঁছায় তালেবান ও যুক্তরাষ্ট্র। ওই সমঝোতায় বিদেশি সেনা প্রত্যাহারের বিনিময়ে আফগানিস্তানে শান্তি স্থাপনের প্রতিশ্রুতি দেয় মার্কিন হামলায় ১৯ বছর আগে দেশটির ক্ষমতা থেকে উৎখাত হওয়া গোষ্ঠীটি। এছাড়াও ওই সমঝোতায় আফগান সরকারের সঙ্গেও তাদের আলোচনায় বসতে বলা হয়। কিন্তু সরকারের সঙ্গে আলোচনার আগে বন্দি বিনিময়ের শর্ত দেয় তালেবান। বন্দি বিনিময় নিয়ে নানা টানাপোড়েনে ওই আলোচনা শুরু বারবার ব্যহত হয়।

শর্ত সাপেক্ষে মুক্তি পাওয়ার পর পাঁচ তালেবান নেতা দোহায় পৌঁছানোর পর শুরু হয়েছে প্রথম দফার আলোচনা। এতোদিন আমেরিকার পুতুল আখ্যা দিয়ে আসা আফগান সরকারের সঙ্গে তালেবানদের আলোচনা এটাই প্রথম। দুই পক্ষই রাজনৈতিক সমঝোতা এবং কয়েক দশকের সংঘাতের অবসান চায়।

তবে দুই পক্ষের চুক্তি চূড়ান্ত হতে এক বছরেরও বেশি সময় লেগে যেতে পারে। অনেকেই আশঙ্কা করছেন দেশটির নারী অধিকারের যে সীমিত অগ্রগতি হয়েছে তাও এই চুক্তি প্রক্রিয়ার জন্য বিসর্জন দিতে হতে পারে। তালেবানদের তরফ থেকেও এই আলোচনায় চ্যালেঞ্জ রয়েছে। তারা আফগানিস্তানে একটি ইসলামিক কিন্তু অংশগ্রহণমূলক সরকার দেখতে চায়।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 8
    Shares