সোমবার, জানুয়ারি ২৫

ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুল ছাত্রীর হত্যার প্রতিবাদে গ্রামবাসীর মানববন্ধন, আটক ২

এখানে শেয়ার বোতাম

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:: ঠাকুরগাঁওয়ে স্কুল ছাত্রী শ্রাবনী রানী (১৫) এর হত্যাকারী সৎ মামা সোহাগ বর্মণ (২২) কে আটক করেছে পুলিশ। ৪ মার্চ বুধবার সন্ধায় সদর উপজেলার আকচা ইউনিয়নের পল্টন এলাকার নিজ বাড়ি থেকে শ্রাবনীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। শ্রাবনী ওই এলাকার ভবেশ চন্দ্র বর্মনের মেয়ে।

আজ বৃহস্পতিবার (৫ মার্চ) ভোর সাড়ে ৪ টার দিকে শহরের বরুনাগাঁও আশ্রমপাড়া এলাকার মাখনের আম বাগান থেকে তাকে আটক করা হয়।
আটক সোহাগ জগন্নাথপুর ইউনিয়নের চব্বিশ টিউবওয়েল এলাকার ধীরেণ বর্মনের ছেলে।

স্কুল ছাত্রী শ্রাবনীর নৃশংস হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে ও হত্যাকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবীতে ৫ মার্চ সকালে আকচা ইউনিয়নে মানববন্ধন করেছে তার সহপাঠি ও বিক্ষুব্ধ গ্রামবাসী।

পুলিশ সুত্রে জানাযায়, ঠাকুরগাঁও সি এম আইয়ুব বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেনীর ছাত্রী শ্রাবনী রানীর সৎ মামা সোহাগ বর্মণ। সে তার মায়ের সাথে খাগড়াছড়ি জেলার মাহালছড়ি উপজেলার মাইশছড়ি গুচ্ছগ্রামে থাকতো। সে গত চার মাস আগে খাগড়াছড়ি থেকে ঠাকুরগাঁওয়ে চলে আসে। এ সময়ে সোহাগ তার সৎ ভাগনিকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে পরিবারে তা জানাজানি হয়ে যায়। এর পরে শ্রাবনী তার প্রস্তাব প্রত্যাক্ষাণ করলে তা মেনে নিতে পারেনি সোহাগ এবং ৪ মার্চ বুধবার সন্ধায় সুযোগ পেয়ে শ্রাবনীর বাসায় ঢুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে শ্রাবনীকে গলাকেটে হত্যা করে পালিয়ে যায়।

ঠাকুরগাঁও সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, চাঞ্চল্যকর এ হত্যাকান্ডের পর আমরা সর্বোচ্চ প্রযুক্তি ব্যাবহার করে হত্যাকারীকে ধরতে পেরেছি। ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে।


এখানে শেয়ার বোতাম