শুক্রবার, নভেম্বর ২৭

জন্মনিবন্ধন না দেয়ায় ইউপি সদস্যকে কুপিয়ে আহত

এখানে শেয়ার বোতাম

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জের দোয়ারাবাজার উপজেলার বাংলাবাজার ইউনিয়নের ৭ নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্যকে দাড়ালোঁ অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেছে জালালবাহিনীর লোকজন। আহত ইউপি সদস্যর নাম মোঃ নজরুল ইসলাম(৪০)।

তিনি বাংলাবাজার ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ও কিরণপাড়া গ্রামের মৃত মোঃ ফরাজ আলীর ছেলে।সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় এ ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে দোয়ারাবাজার থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে রওয়ানা দিয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়,একই ইউনিয়নের রামসাইরগাও গ্রামের মোঃ জামাল উদ্দিনের ছেলে জালাল বাহিনীর প্রধান মোঃ শাহজালাল(২৭) গত ২২ ডিসেম্বর ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামের নিকট একটি জন্ম নিবন্ধন চেয়েছিল।

ঘটনার কিছু সময় পরে নজরুল ইসলাম বাংলাবাজারে এসে ময়না মিয়ার রেস্টুরেন্টে চা খাওয়ার সময় জালাল বাহিনীর প্রধান মোঃ শাহ জালাল ও তার সহকর্মী সন্ত্রাসী কিরণপাড়া গ্রামের ছাতু মিয়ার ছেলে সুমন মিয়া(২৫) দাড়াঁলো অস্ত্র কিরিস ও ডেগার নিয়ে তাকে জন্ম নিবন্ধন না দেয়ার কারণটি জানতে চান এবং এ নিয়ে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। এ সময় ইউপি সদস্য আগামীকাল (২৪ ডিসেম্বর)জন্মনিবন্ধন নেওয়ার কথা বললে এই দুই সন্ত্রাসী মিলে ইউপি সদস্যকে দাড়াঁলো অস্ত্র কিরিস ও ডেগার দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে।

তখন তিনি মাঠিতে লুঠিয়ে পড়লে হামলাকারীরা তার পেঠে ও পায়ে কোপ দিলে তিনি সংজ্ঞাহীন হয়ে হয়ে পড়েন। প্রচন্ড রক্তখনন ও আশংঙ্খাজনক অবস্থা দেখে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে দ্রæত সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে বাংলাবাজার ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ রায়হানুল ইসলাম রবিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান,এই জালাল বাহিনীর অত্যাচারে এলাকার লোকজন আতংঙ্খিক ও অতিষ্ট। ওদের কঠোর শাস্তি না হলে এলাকাটা সন্ত্রাসীদের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হয়ে যাবে।

এ ব্যাপারে দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আবুল হাশেম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়েছে।


এখানে শেয়ার বোতাম