রবিবার, মে ১৬
শীর্ষ সংবাদ

হিজম ইরাবত মণিপুরী জাতির নবজাগরণের প্রধান পথিকৃৎ

এখানে শেয়ার বোতাম

এ.কে শেরাম ::

বিপ্লবী জননেতা হিজম ইরাবত সিংহ মণিপুরী জাতির নবজাগরণের প্রধান পথিকৃৎ – এক যুগন্ধর পুরুষ। তাঁর প্রতিভার দ্যুতিময় স্পর্শে উজ্জ্বল হয়েছে মণিপুরী জাতির জীবন ও সংস্কৃতির প্রতিটি পর্যায়, মণিপুরী জাতির জীবনে তিনি সূচনা করেছিলেন এক অভূতপূর্ব নবজাগরণ। সমাজসেবা, খেলাধুলা, থিয়েটার, সঙ্গীত ও নৃত্য, ধর্ম সংস্কার, সাহিত্য এবং রাজনীতি – জীবনের কোনো ক্ষেত্রই অস্পৃষ্ট থাকেনি তাঁর। মণিপুরী জাতির চিন্তা-চেতনা, জীবনবোধ – সমস্ত কিছুই তাঁর কর্ম ও ভাবনার কল্যাণী প্রভাবে জেগে ওঠেছে এক নূতন আলোয়। মণিপুরে সমাজতান্ত্রিক রাজনীতির সূচনা করেছিলেন তিনি। রাজনৈতিক কারণে সিলেট জেলে ছিলেন প্রায় দু’বছর। সেখান থেকেই কমিউনিস্ট মতাদর্শে দীক্ষিত হয়েছিলেন তিনি। মণিপুরী জাতি তাঁকে ‘জননেতা’ উপাধিতে ভূষিত করে সম্মানিত করেছেন।

বিপ্লবী জননেতা হিজম ইরাবত সিংহের জন্মদিন আজ। মণিপুরের রাজধানী ইম্ফালে ১৮৯৬ সালের ৩০ সেপ্টেম্বরে জন্ম হয়েছিল তাঁর। মৃত্যুবরণ করেন রাজনীতির এক তরঙ্গসংক্ষুব্ধ সময়ে রাজনৈতিক কারণে আত্মগোপনে এবং স্বেচ্ছানির্বাসনে থাকাবস্থায় বার্মা থেকে ফেরার পথে মণিপুর সংলগ্ন কবো ভ্যালীতে ১৯৫১ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর। মাত্র ৫৫ বৎসরের এক নাতিদীর্ঘ জীবন তাঁর। কিন্তু বর্ণের বৈভবে – ঘটনার ঘনঘটায় আর কর্ম ও কৃতির বৈচিত্র্যে পরিপূর্ণ তাঁর জীবন।

জন্মদিনে এই মহান মানুষকে জানাই বিপ্লবী অভিবাদন।

লেখক : এ.কে শেরাম
সভাপতি, বাংলাদেশ মণিপুরী সাহিত্য সংসদ


এখানে শেয়ার বোতাম