সোমবার, মার্চ ৮
শীর্ষ সংবাদ

গ্যাস রপ্তানির সুযোগ রেখে প্রণীত পিএসসি অবিলম্বে বাতিল করুন : কমরেড খালেকুজ্জামান

এখানে শেয়ার বোতাম

অধিকার ডেস্ক :: জনমত উপেক্ষা করে সরকার আবারো মন্ত্রীপরিষদের সভায় গ্যাস রপ্তানির সুযোগ রেখে অফসোর মডেল পিএসসি (প্রোডাকশন শেয়ারিং কন্ট্রাক্ট) অনুমোদন করায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল-বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান।

আজ ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ সংবাদপত্রে দেয়া এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, মডেল পিএসসি ২০০৮ এ রপ্তানির সুযোগ রাখায় দেশবাসী হরতালসহ আন্দোলন কর্মসূচির মাধ্যমে তা বাতিল করতে সরকারকে বাধ্য করেছিল। কিন্তু সরকার যে তার অবস্থান থেকে সরে আসেনি তারই প্রমাণ নতুন পিএসসি ২০১৯।

বিবৃতিতে খালেকুজ্জামান বলেন, একদিকে সরকার মুষ্টিমেয় ব্যবসায়ীদের স্বার্থে গ্যাস সংকটের কথা বলে বেশি দামে এলএনজি আমদানী করছে অন্যদিকে সমুদ্রের গ্যাস রপ্তানির সিদ্ধান্ত নিচ্ছে বিদেশী কোম্পানি ও দেশীয় কমিশন ভোগীদের স্বার্থে।

বিবৃতিতে খালেকুজ্জামান বলেন, শুধু রপ্তানির সুযোগই নয়, বিদেশী কোম্পানির কাছ থেকে গ্যাস ক্রয়ের দামও বাড়িয়ে ৭.২৫ ডলার করা হয়েছে, কোম্পানির ট্যাক্স মওকুফ করা হয়েছে ফলে গ্যাসের দাম পড়বে বাস্তবে ১০ ডলারের উপরে। যা দেশের স্বার্থ বিরোধী।

বিবৃতিতে তিনি বলেন স্থলভাগ ও সমুদ্রের তেল-গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলনে বিদেশী কোম্পনি নয়, জাতীয় সংস্থার সক্ষমতা বাড়ানোর দাবি দেশবাসী দীর্ঘদিন থেকে জানিয়ে আসলেও সরকার তাতে সাড়া দিচ্ছে না। বরং স্থলভাগে কয়েকগুণ বেশি খরচে বিদেশী কোম্পানিকে কাজ দিচ্ছে।

বিবৃতিতে খালেকুজ্জামান অবিলম্বে রপ্তানির সুযোগ রেখে বাড়তি দামে গ্যাস ক্রয়ের সমুদ্রের মডেল পিএসসি ২০১৯ বাতিল ও দেশের উন্নয়নে তেল-গ্যাস ব্যবহারের নিশ্চয়তার বিধান এবং শতভাগ মালিকানা নিশ্চিত করে স্থল ও সাগরের গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলনের জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান। একই সাথে সকল বাম-প্রগতিশীল দেশপ্রেমিক জনগণকে জাতীয় স্বার্থ বিরোধী পিএসসি বাতিলে সরকারকে বাধ্য করতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান।


এখানে শেয়ার বোতাম