শুক্রবার, ডিসেম্বর ৪

খুলনায় বামজোট ও শ্রমিক নেতাদের গ্রেফতারের প্রতিবাদে ফেনীতে বিক্ষোভ মিছিল

এখানে শেয়ার বোতাম
  • 32
    Shares

ফেনী প্রতিনিধি:: খুলনায় পাটকল শ্রমিকদের রাজপথ অবরোধে নারকীয় পুলিশি হামলা, নির্যাতন বামজোট ও শ্রমিক নেতাদের গ্রেফতার, শতাধিক আহত করার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে বাম গণতান্ত্রিক জোট, ফেনী শাখা।

আজ মঙ্গলবার ২০ অক্টোবর বিকেলে জোটের মিছিল মড়েল থানার সামনে থেকে শুরু হয়ে বড় মসজিদ, প্রেসক্লাব, ইসলামপুর রোড়ের মাথা হয়ে শহীদ মিনারে এসে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাম গণতান্ত্রিক জোট, ফেনী জেলা নেতা কমরেড জসীম উদ্দীন ও মালেক মনসুর।

বক্তারা গণতান্ত্রিক আন্দোলনে পুলিশি হামলা নির্যাতন ও গ্রেফতারের প্রতিবাদ করে বলেন, পাকিস্তান আমলে অর্থনৈতিক সাংস্কৃতিক শোষণ বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই করে লাখো শহীদের রক্তে দেশ স্বাধীন হয়েছে। মানুষের খাদ্য, বাসস্থান, মর্যাদার জীবন নিশ্চিতে কথা ছিলো রাষ্ট্রই মানুষের কর্মসংস্থানের নিশ্চয়তা বিধান করবে। স্বাধীনতার অর্ধশত বছরে দুর্নিতি লুটপাটে মগ্ন সরকারগুলো সেটা তো করেইনি বরং এই করোনার মধ্যেই রাষ্ট্রীয় ২৬ টি পাটকল বন্ধ করে প্রায় পঞ্চাশ হাজার শ্রমিককে বেকার করেছে।

বছরের পর বছর ধরে রাষ্ট্রয়ত্ব পাটকলকে কৃত্রিমভাবে লোকসানের মুখে ফেলা হয়েছে। অথচ একই সময়ে দেশের ২০০ টি বেসরকারি পাটকল রমরমা ব্যাবসা করছে ৷ লাখ লাখ শ্রমিক অনিশ্চয়তার মধ্যে জীবনযাপন করছে। তাদেরকে এমন অসুরক্ষিত অবস্থায় ফেলেছে রাষ্ট্র। প্রতিক্রিয়ায় তারা যখন আন্দোলনে নেমেছে তখন রাষ্ট্র তাদের উপরই হামলা চালাচ্ছে। এর আগে আমরা দেখেছি কিভাবে পুলিশ বাহিনী অন্যায়ভাবে শ্রমিক নেতাদের আটক করেছিল। রাষ্ট্রায়াত্ত পাটকল জনগণের সম্পদ, তা বেনিয়াদের হাতে তুলে দেওয়া চলবে না।

উল্লেখ্য গত ১৯/১০/২০ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল অবিলম্বে চালু, দুর্নীতি-লুটপাট বন্ধ ও ভুলনীতি পরিহার এবং পাটকল আধুনিকায়ন করা, অবসরপ্রাপ্ত-স্থায়ী-বদলি ও দৈনিক ভিত্তিক সহ সকল শ্রমিকের পাওনা সঠিক হিসাবে এককালীন পরিশোধ করা সহ ১৪ দফা দাবিতে বাম গণতান্ত্রিক জোটের ডাকে দেশব্যাপী রাজপথ অবরোধ কর্মসূচির সমর্থনে খুলনা-যশোর অঞ্চলে পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের উদ্যোগে আটরা শিল্পাঞ্চলের খুলনা-যশোর হাইওয়েতে অবরোধ কর্মসূচি পালন করে। এমন সময়ে পুলিশ শ্রমিকদের রাস্তা ছেড়ে দেওয়ার কথা বললে শ্রমিকররা তা প্রত্যাখান করে দেয়। এরপর পুলিশ লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের উপর নির্মমভাবে হামলা করে। এছাড়া পাটকল রক্ষা আন্দোলনের নেতা ওলিয়ার রহমান, গণসংহতি আন্দোলন খুলনা জেলার আহ্বায়ক মুনীর চৌধুরী সোহেল, ছাত্র ফেডারেশন খুলনা জেলার আহ্বায়ক আল-আমিন শেখ, শ্রমিক নেতা শামসেদ আলম শমসের, সিপিবি খুলনা জেলার নেতা এস এ আব্দুর রশিদ, বাসদ খুলনা জেলার সমন্বয়ক জনার্দন দত্ত নান্টু ও রাষ্ট্রয়ত্ত পাটকল রক্ষা নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক কুদরত-ই-খুদা সহ ২০ জনের বেশি নেতাকর্মীকে আটক/গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
সমাবেশ থেকে অবিলম্বে শ্রমিক নেতাদের মুক্তির দাবি জানানো হয়। আধুনিকায়ন করে বন্ধ পাটকল চালুর দাবি করেন নেতারা।


এখানে শেয়ার বোতাম
  • 32
    Shares